মোবাইলে ছবি তোলা: প্রোডাক্টস ফটোগ্রাফী: প্রাথমিক পরামরশ
জাহাঙ্গীর আলম শোভন

আপনি ই কমার্স ব্যবসায় শুরু করে দিয়েছেন। কিন্তু একটি ডিজিটাল ক্যামেরা কিনে পন্যের ছবি তোলার মত অবস্থা এখন আপনার নেই। তাই আসুন আপনার হাতের মোবাইলটি দিয়েই তুলে নিন আপনার পন্যের ছবি। এজন্য ভালো ছবি পেতে আপনি কিছু কাজ করে নিতে পারেন।
ছবি তোলার আগে:
(১) যে পন্যটির ছবি তুলবেন সেখান থেকে সুন্দর পুরচ্ছন্ন ও নিখুত একটি পন্য বেছে নিন।যদি প্লাস্টিক বা কাচের জিনিস হয় হালকা টিস্যুদিয়ে ভালোভাবে মুছে নিন। মি. ব্রাশো ব্যবহার করতে পারেন।
২) মোবাইলে ভালো ছবি আসার জন্য আপনি একটি বা দুটি এলইডি লাইট ব্যবহার করতে পারেন। যাতে ২ দিক থেকে আলো পাওয়া যায় । মাঝারী ধরনের চায়না এ্লইডি লাইটগুলো ১৫০-২৫০ টাকার মধ্যে পাওয়া যায়।
৩)আপনি ১০০ সাদা কোন কাগজ বা কাপড় বা প্লাস্টিক রাখতে পারেন।তবে প্লাস্টিক হলে সেটা অবশ্যই ম্যাট হবে, গ্লসি হলে তা থেকে আলোর পতিফলন ঘটবে েএবং তাতে ঝবি তোলায় ব্যাগাত ঘটতে পারে। পন্যের ছবি তোলার জন্য আপনার কাজে লাগবে। তাছাড়া সাদা ব্যাকগ্রাউন্ডে ছবি ভালো আসে। কেননা আপনার মোবাইলের ক্যামেরাটি কিন্তু একটি ডিজিাটাল ক্যামেরা। ডিজিটাল ক্যামেরার নিয়ম হলো আশপাশের রংকে সে মেইন ফোকাসেরে উপর এনে ফেলে। এটা প্রমান পাওয়ার জন্য আপনি আপনার একটি ছবি তুলুন সাদা জামা পরে আরেকটি তুলুন কালো জামা পরে। এবার দুটো ছবিতে আপনার চেহারা বা গায়ের রং দেখুন। অন্তত ২৫% পার্থক্য থাকবে।
৪. যদি অন্য কালারের ব্যাকগ্রাউন্ড ব্যবহার করতে চান তবে খেয়াল রাখবেন কালার যেন ম্যাচ করে। আর কালার যেন এতটা হাইলাইট না হয় যতটা হলে আপনার পন্যটি আড়াল হয়ে যায়।
৫. আপনার ব্যান্ডের নাম সহ একটি ছোট কার্ড বা কাগজ (রঙীন ডিজিটাল ছাপা)রাখতে পারেন যাতে করে। পন্যের ছবি তোলার সময় এক পাশে বসিয়ে দিতে পারেন। এমনভাবে বসাবেন যেন কেউ সেটাকে এডিট করে পন্য থেকে আলাদা করতে না পারে।
৬. সবচে ভালো হয় যদি আউটডোরে গিয়ে প্রাকৃতিক পরিবেশ বেছে নিতে পারেন। যেমন শাড়ির ছবি তোলার জন্য মাঠ, গাছ বাগান, থ্রিপিছ পরা ছবির জন্য ফুল বাগান, বাগান, পার্ক , কলেজ মাঠ ইত্যাদি। জিন্স ও শার্ট এর জন্য ভালো বিল্ডিং অফিস বা মার্কট প্লেস বেছে নিতে পারেন।
৭. ঘরে ছবি তুললে আপনি ছবির সাথে সৌন্দর্য বৃদ্ধির জন্য ফুল, রংীন কাপড় কাগজ পাতা এসব ব্যবহার করতে পারেন।

$_35               Benarasi-Churidar-Suit-Summer-2013-Kids-Wear-Fashion-2

ছবির তোলার সময় করনীয়
(১) মোবাইল দিয়ে ছবি তোলার সময় সাবজেক্টকে ঠিকমত ফোকাস করবেন এবং যতটা সম্ভব কাছ থেকে ছবি নিবেন তাহলে সহজেই ভালো ছবি পাবেন
(২) নিজের দূর্বলতা বুঝে সেটা সমাধানের চেস্টা করুন। বার বার ছবি তুলন। নতুন নতুন জিনিসের অনস্ণধান করে ছবি তুলন। প্রতিটি জিনিসিরে মধ্যে সেীন্দর্য খুজে বের করুন। সঠিকভাবে ছবি তোলা বুঝতে অনলাইনে সঠিকভাবে তোলা ছবিগুলো দেখুন।
(৩) landscape অপশন দিয়ে তখনই ছবি তুলবেন যখন আপনি কোন বড় মাঠ ,নদী অথার্ৎ যে ছবিতে বিশাল জায়গা প্রাধান্য দিয়ে ছবি তুলবেন মানে প্রাকৃতিক ছবি তুলবেন তখন এই অপশনটা সিলেক্ট করবেন নিচের ছবিটা দেখুন
(৪) মোবাইল দিয়ে ছবি তোলার সময় ফোন নাড়াচাড়া করবেন না তাহলে ছবি ভালো আসবেনা । খুব প্রয়োজন ছাড়া কখনোই জুম ব্যবহার করবেন না।

(৫) মোবাইল দিয়ে ছবি তুলার সময় সবোর্চ্চ রেজুলেশন ব্যবহার করুন , নকিয়া এন৭৩ দিয়ে ছবি তুলার সময় ২০৪৮*১৫৩৬ ব্যবহার করুন। মোবাইলেই যদি হোয়াট ব্যালেন্স অপশন থাকে যার কাজ আপনি কোন আবহাওয়াতে ছবি তুলছেন তা সিলেক্ট করে দিন।নকিয়া এন ৭৩ তে কোন মুডে ছবি তুলবেন তা সিলেক্ট করে দেওয়া যায়।
৬) ছবি তোলার সময় আপনার টারগেটকে ফেমের মাঝখানে না রেখে যেকোনো একপাশে রাখবেন। একদিকে জায়গা একটু বেশী রাখবেন। ছবির সৌন্দর্য বাড়বে। আর একটু বেশী জায়গা রাখলে আপনি পরে সেখানে পনে্্যর দাম সাইজ বিবরণ এসব লিখে দিতে পারবেন। আপনি যদি দাম ও বিবরণ েএভাবে মূল ইমেজে রাখেন তাহলে তা সহজে চোখে পড়বে। এবং ফেইসবুকে কেউ ছবি শেয়ার করলে বা কপি করলে ছবির সাথে ছবির তথ্যগুলোও সাথে চলে যাবে।
(৭) কোন ছোট পন্যকে ক্যাপচার করার জন্য Close up মুড ব্যবহার করুন। আপনি কোন রিং বা ঘড়ির বা ফুলের ছবি তুলবেন তাহলে এই অপশনটা সিলেক্ট করে তুলবেন এতে সামনের সাবজেক্টটাকে ফোকাস করা হয় এবং পিছনটা ঝাপসা ও গৌণ হয়ে যায় ।
৮) মডেল ব্যবহার করলে মডেলের ফোজ, মেকআপ ফিগার ও অভিব্যক্তির প্রতি নজর দিন।এগুলো ঠিক না থাকলে ছবির আবেদনটা নস্ট হতে পারে। নস্ট হতে পারে পন্যের আবেদনও।
৯) ম্যানকিন বা ডল ব্যবহার করে ছবি তুলেলে কাপড়ের ভাজের প্রতি খেয়াল করুন। একই আইটেমের মধ্যে বিভিন্ন কালার থাকলে সেটা একই ছবিতে দেকাতে পারেন। একটা যদি পুতুলের গায়ে থাকে বাকীগুলো ভাজ করে নিচে রেখে ছবি তুলতে পারেন।
(১০) যখন আপনি কোন সাবজেক্টকে প্রাধান্য দিবেন Portrait অপশনটা ব্যবহার করবেন । আপনি কোন ব্যক্তি বা পন্যের ছবি তুলেন তাহলে কিন্তু ছবিতে আপনার কাংখিত মানুষ বা পন্যই হাইলাইট হবে।এক্ষেত্রে অপশনটা মোবাইল থেকে সিলেক্ট করতে ভুলবেননা যেন।
১১). কিছু কিছু ছবি আপনি মেইন সোর্স প্লেসে তুলে নিতে পারেন। তাতে আপনার আইডেন্টিটি, বিশ্বস্থতা, এবং পেশাদারিত্ব প্রতিস্ঠিত হবে। যেমন আপনি তাঁত ও জামদানী নিয়ে ব্যবসা করেন। আপনি তাতির বাড়ীর উঠোনো তাতীর হাতে শাড়িটি দিয়েও ছবি তুলে নিতে পারেন। অথবা তাতির বাড়ীর সামেন মডেলকে পরিয়ে ছবিটা তুলতে পারেন।
১২)আপনি শটকি বিক্রি করলে সে প্যাকের ছবিটা নদীর কূলে দাড়িয়েও ক্যামেরা বন্দী করতে পারেন। আপনি মধু বিক্রি করলে সেটা সরিষা খেতের পাশে বোতল রেখে তুলতে পারেন। আপনি দেশী পিঠা শপ দিলে একদম চুলার পাশে রেখেই ছবি নিতে পারেন। প্যাকিং এবং খোলা দু ধরনের ছবিই এভাবে হতে পারে।
(১৩) Night মুড বা রাতের বেলা যখন ছবি তুলতে মুড ব্যবহার করুন । েএছাড়া Night Portait ও ব্যবহার করতে পারেন। যদি কারো চেহারা বা পন্য ভালো রেজাল্ট পেতে চান। এমনকি পরীক্ষামূলকভাবে কয়েকটি মুডেও তুলতে পারেন। পরে যেটা ভালো লাগবে সেটা ব্যবহার করবেন।
১৪) ছবি তোলার সময় আশপাশে জায়গা রাখুন প্রয়োজন না হলে পরে না কেটে ফেলুন।
১৫)খুববেশী কিছু না জানলে প্রথমেই দেখুন Auto Mode বাই ডিফল্ট আপনি সবসময় এই মুডেই ছবি তুলেন । আপনার ফোনে সবসময় এই মুডটাই অটো সিলেক্ট করে রাখবেন । তবে প্রয়োজন বুঝে User Defined মানে ব্যবহারকারীর জন্য আলাদা সেটিংস সেভ করে রাখতে পারেন।
(১৬) কোন চলন্ত বস্তুর ছবি Sports অপশন টা ব্যবহার করুন । উড়ন্ত পাখির ছবি তুলবেন বা চলন্ত গাড়ীর ছবি তুলবেন তাহলে এই অপশনটা ব্যবহার করবেন না হয় ছবিই তুলতে পারবেন না। তবে আশাকরি আপনার এটা খুব একটা দরকার পড়বেনা।
(১৭) ছোট ছোট পন্য হাতে নিয়ে বা হাতের পাশে শোভণীয় ভাবে রেখে ছবি তুলবেন। তাতে পন্যটির সাইজ বোঝা যাবে।একটা ছবি বিভিন্নভাবে বিভিন্ন এঙোগল থেকে তুলবেন।

colette-x-gap-product-2        avrohom-perl-comercial-photography-product

ছবি তোলার পর
(১) ছবি তোলার পর পিসিতে নিয়ে ফটোশপে কিছুটা ইডিটিং করে ছবির মান উন্নয়ন করে নিতে পারেন। বিশেষ করে একটু লাইটিং করা, অনাকাংখিত কিছু থাকলে বাদ দেয়া, ব্রান্ডের নাম যুক্ত করা এসব করে নিতে পারেন।
২) ছবির রেজলেশান শেষবারের মতো দেথে নিন। খুব বেশী রেজুলেশন হলে আপলোড ডাউনলোডে ডেমন সমস্যা হবে। তেমনি কারো শেয়ার, দেখা ও জুম করতেও সময় লাগেব। আবার কমরেজলেশাণ হলে ছবি ফ্যাকাশে দেখাবে। বা ডিঠেইলগুলো ভালো আসবেনা।
৩)প্রতিটি স্থানে ব্যবহারের জন্য ছবিকে আলাদা আলাদাভাবে রিসাইজ করুন। যেমন আপনার ওয়েবসাইটের স্পেস অনুসারে তো করবেনই। তাছাড়া ফেউসবুকের টাইমলাইন, কভার, প্রোফাইল প্রতিটি জায়গার জন্য আলাদাভাবে এডিট করে রিসাইজ করে নিন। এটা করার সময় ডোনে বায়ে বা উপরে নিচে টেনে করবেন না। তাহলে ছবির সাড়ে সর্বনাশ হয়ে যাবে।
৪) এডিট করার সময়ও আপনার ব্রান্ডনেম বসাতে পারেন। যদি ছবি তোলার সময় না দেন।
৫) বিবরণে প্রথমে লিখবেন পন্যটির নাম, ব্রান্ড ও প্রকার। তারপর সাইজ কালার ও মান। তারপর লিখবেন দাম, কমিশন (যদি থাকে), শিপিং চার্জ (যদি থাকে) এবং কতদিনের মধ্যে ডেলিভারী হবে।। এরপর বিস্তারিত অপশনে বা ছোট করে আপনি এর প্রস্তুতকারী, উপাদান, ব্যবহারবিধি, ধোয়ার নিয়ম, গ্যারন্টি ওয়ারেন্টি, ব্যাচ নং ম্যানূফাকচার ডেট ইত্যাদি দিতে পারেন।এমনকি আপনার কাছে আর কত পিস আছে বা কত পিস পর্ন্ত অর্ার নিতে পারবেন অথবা বেশী নিলে কোন সুবিধা আছে কিনা সেটাও এখানে উল্লেখ করে দিতে পারেন। তবে কোন বিশেষ অফার থাকলে সেটা ছবির এক কোণায় বক্স ও কালার করে হাইলাইট করে দিতে ভুলবেন না। যেমন ১০% ছাড়, একটা বিনলে একটা ফ্রি< শাঢ়ীর সাথে ব্লাউজ পিস এসব।

ফটোগ্রাফী সংক্রান্ত আমার অন্যান লেখা:

ফটোগ্রাফীর পরামর্শ: ছবিসহ:

http://blog.e-cab.net/uncategorized/%E0%A6%AB%E0%A6%9F%E0%A7%8B%E0%A6%97%E0%A7%8D%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%AB%E0%A7%80%E0%A6%B0-%E0%A6%AA%E0%A6%B0%E0%A6%BE%E0%A6%AE%E0%A6%B0%E0%A7%8D%E0%A6%B6-%E0%A6%9B%E0%A6%AC%E0%A6%BF%E0%A6%B8/

 

5,018 total views, 4 views today

Comments

comments

You are not authorized to see this part
Please, insert a valid App IDotherwise your plugin won't work.

Your email address will not be published.