ই কমার্সের জন্য ওয়েব ডিজাইন আইডিয়া যা সেল বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে

798
wdife

ই কমার্স বাংলাদেশের প্রেক্ষিতে এখনও অনেকটা নতুন। কিন্তু ই কমার্স যোদ্ধারা ( যোদ্ধা বলব কারন শুরু থেকে নতুন কিছু প্রতিষ্ঠা করা খুব ই কষ্টসাধ্য। যা ই ক্যাব এর মেম্বার প্রতিষ্ঠান এবং অন্যান্য ছোট – বড় প্রতিষ্ঠান করে দেখিয়েছে। ) ইতিমদ্ধে বর্তমান জেনারেশন কে ই কমার্স এর সাথে সম্পৃক্ত করতে পেরেছে। কিন্তু এখনও হতাশ হতে হয় যে প্রায় ৯০ শতাংশ ই কমার্স উদ্যোক্তাগণ তাদের ওয়েবসাইট এর চেয়ে ফেসবুক পেজ এর কমেন্ট বা মেসেজ -এ বেশি সেল হয় বলে ওয়েবসাইট এর ব্যাপারে সচেতন না।

তবে শীঘ্রই আলিবাবা বা অন্য বড় প্রতিষ্ঠান আসলে এই ট্রেন্ড দ্রুত পরিবর্তন হয়ে যাবে তা বলার অপেক্ষা রাখেনা। আর ওয়েবসাইট হল ব্যবসার মুল ভিত্তি যা দেখে ভিজিটর আপনাকে বিশ্বাস করবে। ওয়েবসাইট ডিজাইন এর সময় কিছু বিষয় লক্ষ রাখতে হবে যা আপনার সেল বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে। আজ প্রায় অনেক সাইট ঘুরলাম। কিন্তু কারও সাইট ই সম্পূর্ণ পেলাম না। তাই লেখাটা জরুরি মনে হল।

১. লাইভ চ্যাট

আপনি জানেন আপনার সাইট এর কোথায় কি আছে কিন্তু নতুন একজন ভিজিটর তো জানেনা। তাকে গাইড করার জন্য, তার প্রশ্নের উত্তর দেয়ার জন্য লাইভ চ্যাট অনেক জরুরি। তবে ইদানিং আমাদের মধ্যে ধারনা হয়ে গেছে লাইভ চ্যাট সফটওয়্যার এর মাসিক বিল অনেক খরচ। কিন্তু ১০০% ফ্রি চ্যাট সফটওয়্যার আছে। যা আপনি সহজেই আপনার সাইট এ যুক্ত করতে পারেন।

ওপেনকার্ট এর জন্যঃ  এখানে ক্লিক করুন 
ওয়ার্ডপ্রেস এর জন্যঃ  এখানে ক্লিক করুন 
মাজেন্টো এর জন্যঃ    এখানে ক্লিক করুন 

এছারা এই চ্যাট সিস্টেম দ্বারা আপনি ভিজিটর ট্রাক করতে পাবেন। ভিজিটর কোন পেজ এ ভিজিট করছে। কোথায় গিয়ে আটকে আছে দেখতে পারবেন। হেল্প ও করতে পারবেন। নিসন্দেহে সেল বাড়াতে লাইভ চ্যাট আপনাকে হেল্প করবে।

২. ওয়েবসাইট হতে হবে খুবই দ্রুতগতি সম্পন্ন

আজকাল অনেক নতুন ও পুরাতন উদ্যোক্তাদের দেখা যায় ফিজিকাল শপ এর জন্য মাসে ৪০-৫০ হাজার টাকা দোকান ভাড়া দিতে রাজি। যা কিনা একটি এলাকা বা একটি শহরের ভিতর সীমাবদ্ধ। কিন্তু ওয়েবসাইট যা সারা পৃথিবীর যেকনো স্থান থেকে ভিজিট করা যাবে তার সার্ভার বিল মাসে ৩-৪ হাজার মানতেই পারেনা। কম দামি সার্ভার নিয়েই ব্যবসায় নেমে পরেন যা সম্পূর্ণ ভুল। কারণ ই কমার্স এ ক্রেতা সময় বাঁচাতে কেনাকাটা করে আপনার ওয়েবসাইট এর লোডিং টাইম এর জন্য অবশ্যই সে অপেক্ষা করবেনা। তবে শুধু ভাল মানের হোস্টিং হলেই হবে তা কিন্তু না আপনার ওয়েবসাইট হতে হবে সম্পূর্ণ অপ্টিমাইজড।

৩. অটো সার্চ বা আজাক্স লাইভ সার্চ সিস্টেম

সাইট এর চোখে পড়ার মত স্থানে সার্চ বক্স থাকতে হবে এবং তা লাইভ সার্চ সিস্টেম হওয়া জরুরি। লাইভ সার্চ সিস্টেম হল কিছু লিখে আপনার এন্টার বাটন প্রেস করতে হবেনা স্বয়ংক্রিয় ভাবে সার্চ রেজাল্ট আসতে থাকবে।

Screenshot_3

৪ . সহজেই চোখে পরে এমন Add To Cart অপশন

অনলাইন এ ভিজিটর কিন্তে আসে সময় বাঁচাতে। তাই সব কিছুই তার ছখের সামনে স্পস্ট ভাবে আশা উচিত। ইউজার ফ্রেন্ডলি ডিজাইন না হলে সেই সাইট থেকে ভিজিটর কিছু কিনতে আসবেনা।

Screenshot_27

এটি বাংলাদেশের একটি ওয়েবসাইট এর Add to cart অপশন যদিও বাংলায় লেখা কিন্তু সহজেই চোখে পরে এবং বড় করে হাইলাইট করা। কিন্তু এখন বেশিরভাগ ওয়েবসাইট এর দেখা যায় খুব ছোট একটা Add to cart অপশন।

 

৫. ইউজার ফ্রেন্ডলি মেনু / ক্যাটাগরি অপশন

ইউজারকে আপনি যত সহজ ভাবে কিছু উপস্থাপন করবেন সে তত বেশি আগ্রহি হবে। অনেক ওয়েবসাইট এর নেভিগেসন সিস্টেম থেকে কিছু খুজে পাওয়া কস্টকর। তাই সবকিছু সহজ ও স্পস্ট ভাবে উপস্থাপন করতে হবে। যেমন নিছের ছবিতে একটা উদাহরনঃ

Screenshot_2

 

৬.  একটা প্রডাক্ট এর একাধিক ছবি দেয়ার চেষ্টা করুনhobo-international-lauren-wallet-vintage-leather

 

আমরা মার্কেট এ যখন কিছু কিনতে যাই। খুব ভাল করে দেখে কিনি। ই কমার্স এ যেহুতুখুব ভাল ভাবে দেখার সুযোগ নেই তবুও ভিজিটর কে কিছুটা সুবিধা তো দেয়াই যায়। এক ই প্রদাক্ট এর বিভিন্ন সাইড থেকে ছবি তুলে যদি ভিজিটর কে দেখানো যায় তাহলে সে কিনতে আগ্রহ বোধ করবে।

ভিডিও রিভিউ হলে তো আরোও ভাল হয়। তবে বাংলাদেশের সাপেক্ষে তা সময় এবং খরচ সাপেক্ষ।

 

 

 

 

 

৭. ভিজিটর কে লগিন না করে সরাসরি প্রোডাক্ট কেনার সুযোগ দিন।

ভিজিটর এর কাছে লগিন করার সময় নাও থাকতে পারে। তাই তাকে গেস্ট হিসেবে ক্রয় করার অপশন দিতে হবে। তবে এটা উল্লেখ করা জেতে পারে যে একবার রেজিস্ট্রেশন করলে পরবর্তীতে আর আপনাকে সম্পূর্ণ তথ্য দিতে হবেনা সুধু লগিন করলেই হবে।

 

৮. রেজিস্ট্রেশন সিস্টেম সহজ করুন

কিছু কিছু সাইট এ রেজিস্ট্রেশন করতে বিরক্ত লাগে যেখানে নাম, ঠিকানা, মোবাইল নাম্বার, ই মেইল এড্রেস হলেই কাজ হয়ে যায় সেখানে First Name, Middle Name, Last Name, Fax Number, 2nd address, state আরও কতকিছু চেয়ে ভিজিটর কে কনফিউজ করা হয়। তাই যথাসম্ভব সহজ রেজিস্ট্রেশন পদ্ধতি ব্যবহার করা দরকার।

 

৯. ভিজিটর কেন আপনাকে বিশ্বাস করবে তা দেখাতে হবে।

সর্বপ্রথম আপনি আপনার ওয়েবসাইট এ  SSL Certificate ব্যবহার করতে পারেন। দ্বিতীয়ত আপনি যদি ই ক্যাব মেম্বার হন তা আপনার ওয়েবসাইট এ হাইলাইট করুন এবং উল্লেখ করুন যে তার প্রতারিত হবার সম্ভাবনা নেই।

 

মোটামুটি অনেক গুলো আইডিয়া এই কন্টেন্ট এর মাধ্যমে শেয়ার করলাম। এই কয়টা শুধু বর্তমান ই কমার্স ওয়েবসাইট গুলোর প্রধান সমস্যার ভিতর কয়েকটি মাত্র। এরকম আরো অনেক অনেক সমস্যা আছে সামনে লিখব আশা করি। কারও কোন প্রশ্ন থাকলে নিচে কমেন্ট করতে পারেন বা সরাসরি ফেসবুকে আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন।

ফেসবুকে আমিঃ Zaied Sifat

Comments

comments

1 Comment

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *