capture-20150104-151532

প্রথমেই সবাইকে Happy E-Commerce Year 2015 এর শুভেচ্ছা।

আমি তাসদীখ হাবিব,পেশাগত ভাবে ডিজিটাল মার্কেটিং, বিশেষ করে ফেসবুক মার্কেটিং নিয়ে কাজ করার সুবাদে কিছুদিন আগে রাজীব ভাই আমাকে ফেসবুক মার্কেটিং নিয়ে ব্লগ লেখার জন্য বলেন। কিছুটা ব্যস্ত থাকার কারণে সময় করে উঠতে পারছিলাম না। কিন্তু,আজ বাংলাদেশী কিছু E-Commerce ও F-Commerce নিয়ে কাজ করার অভিজ্ঞতা নিয়ে লিখবো :)

ইতিমধ্যে, ফেসবুক মার্কেটিং নিয়ে গ্রুপ এ একটি PINNED POST এ অনেকের অংশগ্রহণ আমি লক্ষ্য করেছি। ওখানে শিখার মত অনেক কিছু ছিল।

প্রথমেই বলবো, Facebook Marketing is 100% Mathematical Mind Game।

আপনার চোখের সামনেই সব কিছু দিয়ে দেওয়ায় আছে কিন্তু তারপরও কেউ বলতে পারবে না কত ডলার খরচ করলে কতটুকু আউটপুট পাওয়া নিশ্চিত। যেমন ধরুন আমরা অনেকেই মনে করি পেজে বেশী বেশী লাইক আনাই ফেসবুক মার্কেটিং। যার কারণে একটা পেজ ওপেন করার সাথে সাথেই আমরা “৩০০ টাকায় ৫০০ লাইক নিন” শিরোনামের অফার গুলোর দিকে ছুটে যাই। তারপর এক মাসে ৫০০০০ লাইক হয়ে গেলেই আমরা খুশীতে গদগদ হয়ে মনে করি,আমার ফেসবুক মার্কেটিং হয়ে গেছে। অথচ এই সব ফেক লাইক এমন কি ৫০০০০ হাজার আসল লাইক ও যদি আপনার পেজে থাকে তাহলেও ফেসবুকের নতুন নিয়ম অনুযায়ী পোস্ট এ বুষ্ট প্রমোশন না করলে আপনার বিজ্ঞাপন/পোষ্ট আপনার পেজে লাইক দেয়া মানুষ গুলোর মাত্র ৭% এর কাছে পৌঁছাবে। এটাই বাস্তব সত্য।

তাহলে করণীয় কি?
ফেসবুকে বিজ্ঞাপন দেওয়ার অনেক গুলো পদ্ধতি আছে, আপনি চাইলে পেজ প্রমোশন করতে পারেন, পোষ্ট প্রমোশন করতে পারেন, এমন কি চাইলে আপনার অফার অথবা ওয়েবসাইট কেও সরাসরি প্রমোশন করতে পারেন, এই রকম মোট ৯ টি পদ্ধতি আছে। যার প্রত্যেকটি পদ্ধতিতে আবার কিছু কিছু T&C আছে। যেমন, পোষ্ট প্রমোশন এ যদি আপনি ছবি ব্যবহার করেন সেই ক্ষেত্রে ছবির উপরে মাত্র ২০% জায়গাতে আপনি টেক্সট কন্টেন্ট দিতে পারবেন।

হ্যাঁ, আপনার একটি International Debit/Credit Card থাকলেই আপনি ফেসবুক এড নিজেই দিতে পারবেন, কিন্তু, যে বিজ্ঞাপন টা দিচ্ছেন সেইটা আপনার টার্গেট কাষ্টমার এর উপযোগী করে তৈরি হয়েছে কিনা, আরও ভেঙ্গে বললে বিজ্ঞাপনে যেই ছবি ব্যবহার হয়েছে, ছবির উপর যা লেখা হয়েছে, আর বিজ্ঞাপনের বডি তে যা বর্ণনা করা হয়েছে সব কিছু কি আপনার টার্গেট কাষ্টমার এর কথা মাথায় রেখে করা হয়েছে কিনা, সেইটার দিকে কেউ নজর ও দেয় না, পয়সাও খরচ করতে চায় না :)

এইবার আসি টার্গেট কাষ্টমার ফিল্টারিং এর ব্যপারে, আমরা সবাই জানি ফেসবুকে আপনি যাদের কে টার্গেট করে বিজ্ঞাপন দিবেন শুধু তারাই দেখবে, এবং আপনিও শুধু আপনার টার্গেট কাষ্টমারের জন্যই খরচ করবেন। কিন্তু, এই টার্গেট কাষ্টমার ফিল্টার করার ক্ষেত্রে বেশির ভাগ মানুষই মনে করেন শুধু বয়স আর ইন্টারেস্ট সিলেক্ট করে দিলেই কাজ শেষ এবং টার্গেট যত বড় রেসিও তে হবে ততই ভালো :v

শুধু বয়স আর ইন্টারেস্ট ছাড়াও আরও অনেক বেশী ইস্পেসিফিক করে টার্গেট কাষ্টমার ফিল্টার করা সম্ভব। যা একজন সাধারণ ফেসবুক ইউসারের পক্ষে জানা অথবা বুঝা কষ্টকর। যেমন ধরুন আপনি “কাপল টি শার্ট” বিক্রি করবেন তার জন্য টার্গেট কাষ্টমার ফিল্টার এমন ভাবেও করা সম্ভব যেখানে বয়স আর ইন্টারেস্ট এর পাশাপাশি এইটাও ফিল্টার করে দেওয়া সম্ভব যে, শুধু মাত্র তারই এই বিজ্ঞাপন দেখবে যারা Relationship এ আছেন।

এইটা শুধু একটা উদাহরন দিলাম, যেকোনো কিছুর জন্যই এই ফিল্টারিং করা সম্ভব। তাছাড়াও আপনি যেই ছবি ও লেখা ব্যবহার করছেন আপনার বিজ্ঞাপনের জন্য সেটি ও আপনার টার্গেট কাষ্টমার এর উপযোগী কিনা এই ব্যপারটাও অনেক বেশী গুরুত্বপূর্ণ।

Marketing আসলে ডাল ভাতের মত। ডাল ভাত যেমন প্রতিদিন খাওয়া লাগে ঠিক তেমনি Marketing ও প্রতিদিন করা লাগে। কারন আপনি যেইদিন থেমে যাবেন আপনার প্রতিদ্বন্দ্বী কিন্তু থামবেনা। অল্প করে হলেও Marketing চালু রাখতে হবে প্রতিদিন। আর যারা ব্যপারটাকে সত্যি সত্যি ডাল ভাত মনে করে নিজে নিজেই সব কিছু করে ফেলতে চাবেন, তাদের জন্য শুভকামনা 😀

আসলে জাতিগত ভাবেই আমরা সবাই এমন, সব কিছুই নিজে করে ফেলতে চাই। যার একটা যথাযোগ্য উদাহরন হল, “ফটোগ্রাফী” 😀 আজকাল এইটা সবাই পারে 😛 কিন্তু,আসলেও কি তাই? একটু ভেবে দেখবেন।
“আমি একজন ফটোগ্রাফার” এবং “আমার একটি DSLR ক্যামেরা আছে” এই দুটা কথার অর্থ আমরা মিলিয়ে ফেলি।

সকলের সুবিধার জন্য আমার এক Client এর Insight থেকে কিছু Screen Shot দিলাম। যেখানে দেখতে পাবেন সুন্দর উপস্থাপনা, একুরেট টার্গেট কাষ্টমার ফিল্টারিং এবং আকর্ষণী কন্টেন্ট তৈরি করে বিজ্ঞাপন দিলে কি ধরনের ফলাফল পাওয়া যায়। এমনকি আমাদের দেশের জন্য City সিলেক্ট করার পদ্ধতি না থাকার পরও কিভাবে আপনি আপনার কাঙ্খিত শহরের মানুষের কাছে বেশী পৌছাতে পারবেন।

capture-20141030-213347

আমাদের মাথায় রাখা লাগবে, সব রোগের জন্য সকাল বিকাল ২ টা নাপা গিলে ফেল্লেই চলে না, আর ডাক্তারের কাছে গেলে ঔষধ,পরামর্শ,টেস্ট সব কিছুর জন্যই পয়সা খরচ করা লাগে 😀

এই পোষ্ট যদি আপনাদের কোন উপকারে এসে থাকে তাহলে নিজেকে সার্থক মনে করবো। আমাদের দেশে ফেসবুক মার্কেটিং এর বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান গড়ে উঠলেও তারা শুধু মাত্র বড় বাজেটের কাজ করতেই বেশী আগ্রহী। তবে, আমি বড়দের সাথে কাজ করে তাকে আরও বড় করার থেকে, ছোট ছোট প্রতিষ্ঠানের কে তিলে তিলে বড় করে তুলার কাজ করতে বেশী আগ্রহী। তাই করছি :)

আপনার ফেসবুক Business Page নিয়ে যে কোন ধরনের পরামর্শ চাইলে আমার সাথে যোগাযোগ করতে পারেন। অনেকেই আমাকে তাদের ব্যবসার সাথে সংযুক্ত হয়ে কাজ করার ইচ্ছা প্রকাশ করেছেন। কিন্তু তাদের কে তেমন কিছুই Specific করে জানাতে পারি নাই। কারন অন্য ব্যবসার সাথে ইকমার্সের বেশ কিছু পার্থক্য রয়েছে। তাই সেই গুলা নিয়ে অনেক ভাবনা চিন্তা/লেখাপড়া করতে হয়েছে। অবশেষে আমি কিভাবে আপনার ব্যবসায় কাজে লাগতে পারি তার একটা মোটামুটি উপায় বের করতে পেরেছি। এই লিঙ্কে ক্লিক করলে তা সম্পর্কে জানতে পারবেন

Personal Profile: Tashdik Habib
Business Page : E4T 360
Website: www.e4t360.com
Skype ID : tashdik
E-Mail ID: [email protected]
Mobile: 01930659075

#HappyEcommerceYear

:)

13,647 total views, 6 views today

Comments

comments

Your email address will not be published.