10390445_461898683954975_153320666922225131_n1

ই কমার্স : বিষয় ভিত্তিক পরামর্শ

সাধারণ জামা বা কমন ওয়ার শপ এর জন্য এই সময়ের কিছু প্রমোশন প্লান

জাহাঙ্গীর আলম শোভন

Creative.AirwaveHD.img8_lg

আনকমন পন্যের ব্যবসায় করলে সেগুলোর দাম একটু বেশী হয় আবার ক্রেতা হয় সীমিত। তবে সঠিক জায়গায় সঠিকভাবে তুলে ধরতে পারলে হয়তো গছানো যায়। আর কমন পন্যের ব্যবসা করলে তার ক্রেতা ব্যাপক আর বিক্রেতাও এত বেশী যে প্রতিযোগিতা করে পেরে উঠা যায়ন। ফলে দুটো পন্য কমন হোক আর আনকমন হোক দুটোতেই লাভ ও লোকসান উভয় সম্ভাবনা আছে। ফলে কোনোটাটে লাভ জন্ক আর কোনটা লোকসানী এই কথা বলা যায়না। প্রমোশন এর ক্ষেত্রে কমন ব্যবসায় একটু কঠিন বটে কারণ একই পন্যের চারদিকে হাজার হাজার এড । এজন্য এ ব্যাপারে একটু ভিন্নতর কিছু প্রয়োজন হয়। আবার কেউ যদি ভিন্ন একটা কিছু করে একটু সফল হয় তখন সবাই সেটা এত বেশী বেশী ফলো করে যে তার আর কাযর্কারিতা থাকে না।

এখন প্রমোশন বা মার্কেটিং এর ক্ষেত্রে একজন ব্যবসায়ী সফল হবে কিনা।

তা নির্ভর করছে নিচের বিষয়গুলোর উপর।

১. প্রমোশন আইডিয়াটা মানুষ বুঝতে পারলো কিনা? এবং ঠিক একই সময়ে একই পন্যের অন্য কোনো ব্যবসায়ী আরো ভালো কোনো আইডিয়া দিলো কিনা?

২. মার্কেটিং পলিসিটা সময় উপযোগী কিনা এবং তা টার্গেট পিপলসকে কানেক্ট করতে পারলো কিনা?

৩. এই সময়ে এ ধরনের পন্যের প্রতি গ্রাহকের আগ্রহ আছে কিনা? এবং অন্যকোন পার্টি কাস্টমারের মনোযোগ আকষর্ণে আপনার চেয়ে এগিয়ে কিনা?

৪. আপনি যা বলতে চান আপনার বিজ্ঞাপনে সেটা ফুটে উঠেছে কিনা? যে সময় যে মাধ্যমে এডটা প্রকাশিত হলো ওই সময়ে মানুষ তাতে মনোযোগ দিতে পেরেছে কিনা?

৫. আপনার এপ্রোচের কারণে আপনাকে বিশ্বাসযোগ্য মনে হচ্চে কিনা? বিজ্ঞাপন আপনার ব্রান্ডভ্যালু বাড়াচ্চে কিনা?

৬. আগের বিক্রি ও বিজ্ঞাপনগুলোতে আপনার কোনো দূর্বল ইমেজ তৈরী হয়েছে কিনা? সেক্ষেত্রে আপনি পরিবর্তেনের বার্তা দিতে পেরেছেন কিনা?

৭. ঠিক এই সময়ে দেশের আর্থ সামাজিক অবস্থায় গ্রাহক এমন একটি পন্য ক্রয় করতে আর্থিক ও মানসিকভাবে তৈরী কিনা? কেন অন্যদেরটা না কিনে আপনারটা কিনবে সেটা আপনি মেসেজ দিতে পেরেছেন কিনা?

এবার আসুন কি কি প্রমোশনাল ওয়ার্ক করা যায়?

১. পত্রিকায় কয়টা রিপোর্ট করাতে পারেন। সেজন্য প্রেস রিলিজ , প্রোডাক্টস রিভিউ ও প্রোডাক্টস স্যাম্পল পাঠাতে পারেন।

২. ঈদের আগে ১৫ দিনের জন্য একটা এক্সক্লুসিভ সেবা দিতে পারেন, সেটা হলো, কেউ আপনাকে অর্ডার দিলে আপনি বলেন যে একটির জন্য ৫টি পর্যন্ত পাঠানো যাবে। লোক সারফত ঢাকা শহরের মধ্যে যাতে লোকেরা হাত দিয়ে দেখে কিনতে পারেন। এর জন্য ১৫ দিনের জন্য ডেলিভারী দিয়োগ দিতে পারেন।

৩. কূপন সিস্টেমে ছাড় দিতে পারেন। একটি পত্রিকা বা ম্যাগাজিনে অল্প খরচে বিজ্ঞাপন দিবেন? যাতে শর্ত থাকবে, পত্রিকার কূপনটা কেটে বা ছবি তুলে পাঠালে ২০% ছাড়।

৪. যিনি পন্য গ্রহণ করবেন তিনি যদি একটি রিভিউ লিখে দেন তাহলে ২০০ টাকা মোবাইল টক টাইম দিতে পারেন। তার রিভিউটা আপনি আপনার সাইটে পোস্ট করবেন।

৫. অনলাইনে এডগুলো গতানগতিক না দিয়ে নতুন ভাবে দিতে পারেন।

৬. কমিউনিটি ভিত্তিক মেলা করতে পারেন, এক একদিন এক এক এলাকায়। বিশেষ করে ভালো এলাকাগুলোতে। বা যেসব জায়গায় বিভিন্ন কনভেনশন হয়।

৭. এসএমএস কনটেস্ট আয়োজন করেতে পারেন। কার প্রিয় রং কি বা কে কি ধরনের জামা পরে সেজন্য।পরে যারা অংশগ্রহণ করবে তাদের এসএমএস পাঠাতে পারেন।

৮. কর্পোরেট লেবেলে এসএমএস এড দিতে পারেন।

৯. জামা বিক্রির পর গায়ে পরে ছবি তুলে পাঠালে তার ছবি সুন্দর হলে সেটা আপনি বিজ্ঞাপনে ব্যবহার করবেন এবং এজন্য পুরষ্কার দেবেন এ ধরনের একটা অফার দিতে পারেন।

১০. একটা ভালো ভেন্যুতে একটা একক মেলা করুন। ২/৩ দিনের। পত্রিকায় বিজ্ঞাপন দিয়ে বলে দিন আমাদের একটা শিপমেন্ট ক্যানসেল হয়েছে। অনেক জামা স্টক হয়েছে তাই আমরা কমদামে বিক্রি করতে চাই। উন্নত মান ও এক্সপোর্ট কোয়ালিটি।

১১.  একটি লিফলেট বানাতে পারেন যেটাতে কিভাবে কাপড় কাচতে হয়। কিভাবে ইস্ত্রি করতে হয়, সূটকেসে রাখতে হয়। রং নস্ট না হওয়ার জন্য কি করতে হয়। ইত্যাদি টিপস দিয়ে।

১২. বিভিন্ন সংস্থায় পুরস্কার হিসেবে আপনার পন্যকে তালিকাভুক্ত করলে তাদেরকে বিশেষ ছাড় দেবেন বলে জানিয়ে দিন। চিঠি, মেইল কিংবা মেসেজে। যেমন স্কুল কলেজ, ক্লাব, কোম্পানী ইত্যাদি।

১৩. বিভিন্ন ভ্রমণ বা ট্রাভেল সংস্থাকে অফার দিন, তাদের গ্রাহকরা পন্য কিনলে ১০% ছাড়।

১৪. কিছু কোয়ালিটি হকার আছে, কোয়ালিটি হকার যারা বড়ো বড়ো মার্কেটে দোকানদারদের পন্য দিয়ে আসে। তাদের ২/১ জনেক কন্টাক্ট করে মাল দিতে পারেন।

১৫. এক সপ্তাহে এক এক পিপল গ্রুপকে উদ্দেশ্য করে অফার দিতে পারেন যেমন: নারী, শিশু, ছাত্র, ইত্যাদি।

১৬. একটি ভ্রাম্যমান মেলা করতে পারেন। যেখানে একটি লম্বা ওপেন ট্রাক বা ভ্যানে স্টল সাজিয়ে সারা শহর ঘুরতে পারেন। বিভিন্ন স্থানে ১/২ ঘন্টা করে এক্সিবিট করতে পারেন।

  1. কমূউনিটি ফেয়ার করতে পারেন একা বা কয়েকজন মিলে বিভিন্ন এলাকায় ২/১ দিন করে করে।

১৮. টি শার্ট এর অবিকল কাটিং ও ডিজাইন দিয়ে ফেস্টুন বানাতে পারেন।

১৯. ইয়ার এন্ড সেল নামে এড দিয়ে আপনি একটা অনলাইন মেলাও করতে পারেন।

২০. স্টুডেন্টদের জন্য বিশেষ ছাড় দিতে পারেন, স্টুডেন্ট আইডি পাঠানোর শর্তে।

21 . পরোক্ষভাবে বিভিন্ন লেখালেখির মাধ্যমে প্রমোশন চালাতে পারেন। যেমন: সূতি কাপড় এর কি সুবিধা? গরমের দিনে কি ধরনের কাপড় পরতে হয়। কোন কাপড়ে রং উঠেনা েইত্যাদি ।

প্রতিটিাই প্রচার করতে পারেন। কয়দিন বিরতি দিয়ে একটার পর অন্যটাতে যেতে হবে। এক একবার একেকটা করলে আপনি জানতে পারবেন যে মানুষ আসলে কোনটাতে বেশী আকৃষ্ট হয়।

আসলে যারা একই ধরনের পন্য অনেকে বিক্রি করেন। তারা একটু হতাশায় আছেন। তাদের জন্য এটা শেয়ার করলাম। যদিও আগেও বিভিন্ন বিষয় কিছু আইডিয়া শেয়ার করেছি।

2,213 total views, 2 views today

Comments

comments