ই কমার্স ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের নামকরণ

5119

ই কমার্স ব্যবসায় প্রতিষ্ঠানের নামকরণ
জাহাঙ্গীর আলম শোভন

নামকরণ যেকোন বিষয়ের জন্য একটা অতিপ্রয়োজনীয় বিষয়। নামকরণ একটা শিল্পও বটে। তাই হয়তো মধূসুদন এর মুখে মধু না থাকতে পারে, মাখনলাল মাখনের ব্যবসা নাও করতে পারেন কিন্তু ব্যবসা প্রতিষ্ঠানের নামের ক্ষেত্রে যথার্থতা থাকা চাই। আপনার ব্যবসা প্রতিষ্ঠান অথবা কোন পন্যের ব্যান্ড নাম সৃজনশীল হতে পারে, হতেপারে কমন কিংবা নতুন তবে যথার্থ হওয়া চাই। কিন্তু দিনে দিনে যথার্থ নামকরণ কঠিনতর হয়ে দাড়িয়েছে কারণ আপনি নাম পছন্দ করলেন কিন্তু নাম অনুসারে পছন্দের ডোমেইন পাওয়া গেলনা তখন মনটা খারাপ হয়ে যায়। আবার নতুন করে ভাবতে হয় নাম নিয়ে। ঈদানিং নাম ঠিক করার জন্য প্রচুর অনুরোধ আসে। তাই এই লেখটা শেয়ার করলাম। বলতে পারেন এটা আমার সিক্রেট আমি এই প্রক্রিয়ায় নাম ঠিক করে থাকি। এজন্য আমি কাউকে ২০টা নাম বললে ৪টার ডোমেইন খালি পাওয়া যায়।
কেমন নাম চাই?

shutterstock_143579758
১. আপনার ব্যবসায়ের নাম হবে সহজ সুন্দর শুনলে মনে থাকে এমন
২. যে ধরনের ব্যবসা করবেন সে রিলেটেড নাম ঠিক করা ভালো।
৩. ডোমেইনটা ইংরেজিতে এবং ডট কম, এবং ৬-৮ ওয়ার্ড এর মধ্যে হলে এসইও করা সহজ হয়
আজকের এই লেখায় যারা নাম নিয়ে হতাশায় আছেন তাদেরকে কিছু গুরুত্বপূর্ণ টিপস দেব। যাতে আপনারা নিজেরাই নিজেদের প্রতিষ্ঠানের নাম সহজে ঠিক করতে পারেন। অনেকে নাম ঠিক করার পরও অতৃপ্তিতে ভোগেন। একটি প্রক্রিয়ার মাধ্যমে যখন আপনি নামটা ঠিক করবেন তখন আপনি বুঝতে পারবেন আপনি সঠিক কাজটি করেছেন তখন আপনার কনফিউ্শান দূর হবে। এজন্য আপনি নিচের প্রশ্নগুলো থেকে আপনার দরকারী প্রশ্নগুলোর উত্তর আগে ছোট একটা কাগজে লিখে নিন। তারর্প ধারাবহিকভাবে নাম বাছার পক্রিয়া শুরু করুন।
তাহলে শুরু করুন আপনার প্রতিষ্ঠানের নাম ঠিক করার কাজ, হাতে নিন কাগজ কলম ।
আপনি ঠিক করুন কি ধরনরে নাম দেবেন? তা এই প্রশ্নগুলো থেকে ঠিক করে ফেলুন।
১. বাংলা হলে, সহজ না আনকমন, সাহিত্যিক না নৈমিত্তিক?
২. ইংরেজী হলে সহজ না সুন্দর, কমন না আনকমন, প্রচলিত না নতুন?
৩. আরবি হলে ধর্মীয় না সাধারণ, সাহিত্যিক না ভাষাগত, প্রচলিত না অপ্রচলিত?
৪. সংস্কৃত হলে নতুন না পুরাতন শব্দ, সহজ না কঠিন শব্দ, ব্যবহৃত নাকি বিরল?
৫. কত থেকে কত শব্দের মধ্যে দেবেন?
৬. পছন্দের শব্দ না পেলে সমার্থক শব্দ যোগ করবেন কিনা অথবা সংক্ষেপ করে ছোট করবেন কিনা?
৭. সরাসরি নাম রাখবেন যেমন বিজয় ডটকম নাকি রিলেটেড শব্দ দিয়ে রাখবেন যেমন বিজয়সুপারমার্ট ডট কম?
৮. যেকোনভাবে ডট কম চান নাকি পছন্দের নাম হলে ডটকমডটবিডিতে চলবে বা অন্যটা?
৯. অর্থ ও বানান ঠিক চান কিনা, নাকি পছন্দের নামের জন্য তা বদলাতে চান। যেমন আপনি চাইলেন দেশিবাজার ডট কম, না পেয়ে নিলে ডিবাজার ডট কম অথবা বাজার বানানে জেড এর জায়গায় জে দিলেন। এরকম করবেন কিনা?
১০. পছন্দের নাম না পেলে নামের সাথে ২৪, দেবেন কিনা যার মানে দাড়াবে ২৪ ঘন্টা সার্ভিস, বা ৩৬৫ যার মানে বছরে ৩৬৫ দিন সেবা, বা ২৪৭ যারমানে ৭দিনে ২৪ ঘন্টা খোলা, বা ৬৪ যার মানে ৬৪ জেলায় সার্ভিস, বা ২১ যার মানে একুশের চেতনায় জাগ্রত, বা ৭১ মানে ৭১ এর শ্রদ্ধায়, বা ১৬ মানে বিজয়ের আনন্দে বা ২৬ মানে স্বাধীনতার মূল্যবোধে ইত্যাদি রাখবেন কিনা রাখলে কোনটি?

কিভাবে নামকরণ করবেন
প্রথম ধাপ
১. আপনি আপনার ব্যবসায়িক রিলেটেড শব্দগুলো লিখে ফেলুন বাংলা ইংজেী আরবি যে ভাষায় নাম রাখতে চান, প্রয়োজনে অভিদান বা ডিকশনারীর সাহায্য নিন।
২. কমন নাম রাখার জন্য ওই ব্যবসায় রিলেটেড বিভিন্ন, পন্য, ধাপ, পক্রিয়া, পরিভাষা গুলো লিখুন।
৩. সাহিত্যিক রাম রাখতে চাইলে, রবীন্দ্রনাথ, নজরুল, জীবনানন্দ, জসীম উদ্দীন, ফররুখ আহমদ, হুমায়ন আহমদ প্রভৃতি লেখকের রচনা থেকে নাম ও সুন্দর শব্দ বেচে নিতে পারেন।
৪. ইউনিক বাংলা নামের জন্য বাংলা ব্যাকরনের সাহায্য নিতে পারেন।
৫. ধর্মীয় আরবি নাম হলে কোরআনের অনুবাদ, অন্য আরবি শব্দ হলে আরবি অবিধান, ইংরেজীর জন্য ইংরেজী ব্যাকরণ ও অভিধান খুলে দেখতে পারেন।
৬. সুন্দর বাংলা নামের জন্য বাংলা প্রবাদ প্রবচন, সমাস, ব্যসবাক্য, এককথায় প্রকাশ, বাগধারা এসবের সাহায্য নিতে পারেন।
৭. আরো আনকমন নামের জন্য ইন্টারনেট সার্চ দিয়ে দেখতে পারেন।
৮. ভিন্ন ধর্মী নাম রাখতে চাইলে কাগজ কলম নিয়ে বসে একটা অক্ষর এর সাথে আরেকটা অক্ষর বা একটা শব্দের সাথে আরেকটা শব্দ জোড়া দিয়ে দেখতে পারেন।
৯. আরো অন্যরকম নামের জন্য গ্রীক জাপানী, গ্রীক, ল্যাটিন শব্দভান্ডার খুজতে পারেন। দেখতে পারেন প্রাচীন সভ্যতার পৌরানিক ইতিহাস।
১০. যদি সংখা যোগ করতে চান কি কি সংখ্যা যোগ করবেন আগেই ঠিক করুন।

দ্বিতীয় ধাপ
আপনি যে নাম রাখবেন সেরকম নামের জন্য যদি আপনি শব্দ নির্বাচন করতে পারেন। তাহলে প্রথমে দেখতে পারেন এই নাম খালি আছে কিনা? এ পর্বে উদাহরণ দিয়ে যেন বোঝানো যায় সেজন্য আমি কিছু প্রতিকী নাম উপস্থাপন করলাম।

১. রিলেটেড নাম: আপনি যেসব পন্য বেচবেন সেরকম নাম। যদি সাধারণ পন্য হয়, সাধারণ, জেনারেল, কমন, নিত্য, প্রয়োজন, সদাই, হাটবাজার, হাটখোলা, হালখাতা, বাজারব্যাগ, সদাইপাতি ইত্যাদি।
২. কমন নাম রাখার জন্য: শপ, বাজার, হাট, মার্ট, কেনাকাটা, দরদাম, হাট, দোকান, দোকানদার ইত্যাদি
৩. সাহিত্যিক রাম :সুতপা, ধানসিড়ি, বলাকা, গোলাপ, বনলতা, ঘাষফড়িং, কাশফুল, নক্ষত্র, শালিক, ময়না, সুরঞ্জনা, চিত্রা ইত্যাদি।
৪. ইউনিক বাংলা নাম: শুভা, যশ, সু, খাটি, বিশেষ, জ্যেতি, জোসনা
৫. ধর্মীয় আরবি নাম : ফালাহ, মদীনা, বিসমিল্লাহ, ফাতেহা, মুহামদ্মদ
৬. সুন্দর বাংলা নাম: বনলতা, কাশফুল, ঘাষফড়িং, প্রজাপতি, গোধুলী
৭. ভিন্ন ধর্মী নাম : অলকান্দা, চাাঁদের হাট., কথারকথা, এলাহিকান্ড, কেতাদূরস্ত, আলীশান,
৮. আরো অন্যরকম নামের (অর্থহীণ): ইকরি মিকরী, রেশুমা, সাইমু, ব্রাটো, কিয়ামো, সাসালা
৯. নিজের নামে, বংশের নামে, এলাকার নামে, থিমের নামে: শোভনীয়, খসরু, কুস্টিয়ানা, খাজাবাবা, বাউলিয়া
১০. সংখ্যা দিয়ে: দোকান২৪, দোকানদার৬৪, দোকানী৭, দোকানে ৩১ ইত্যাদি।
তৃতীয় ধাপ:

এবার আপনার নাম চুড়ান্ত করার পালা। আমি ধরে নিলাম আপনি উপরের পক্রিয়ায় আপনার পছন্দের এক বা একাধিক শব্দ নাম হিসেবে নির্বাচন করেছেন। এখন আপনার নাম কাটছাট, সংযোজন বিয়োজন ও চ’ড়ান্ত করার পালা। আগের পর্বে আপনাকে আমি খাতা কলম নিয়ে বসতে বলেছিলাম। এই পর্বে আপনি অবশ্যই ইন্টারনেট কানেকশান সামনে নিয়ে বসুন।
১. পছন্দের নাম যদি না মেলে ডট কম থেকে ডট বিডিতে বা অন্য কোনোটাতে যেতেপারেন, যেমনটি আপনি আগে সিদ্ধান্ত নিয়েছেন।
২. তাতে না হলে আপনি রিলেটেড পরিভাষা যোগ করতে পারেন।
যেমন আপনার নামগুলো যদি হয়: ধানসিড়ি, শোভনীয়, গোধুলী, বারাকাহ, লাইটহাউজ
পরিভাষাগুলো হলো (জেনারেল শপ এর ক্ষেত্রে): শপ, বাজার, দোকান, মার্ট, স্টোর, সেন্টার, ইপি (এন্টার প্রাইজ)
এখন আপনার নাম দাড়াবে: ধানসিড়ি শপ, ধানসিড়ি বাজার, ধানসিড়ি দোকান, ধানসিড়ি মার্ট, ধানসিড়ি স্টোর, ধানসিড়ি ইপি
অথবা: গোধুলী, শপ, গোধুলী, বাজার, গোধুলী, দোকান, গোধুলী, মার্ট, গোধুলী, স্টোর, গোধুলী, সেন্টার, গোধুলী, ইপি
৩. এতেও যদি পছন্দের নাম না মিলে তাহলে শব্দ আগে পরে করে নিতে পারেন, যেমন : বাংলাশপ না লিখে শপবাংলা, ভালো দোকান না লিখে দোকান ভালো, দেশী মার্ট না লিখে মার্টদেশী এভাবে।
৪. এতেও যদি কাজ না হয় দুটো শব্দ জুড়ে দিয়ে নাম ঠিক করতে পারেন, যেমন: বন+লতা= বনলতা, ঘাষ+ফুল= ঘাষফুল, দোকান+পাট=দোকানপাট
৫. তাতেও যদি পছন্দের নাম খালি না পান তাহলে দুইভাষার দুই শব্দ জুড়ে নিতে পারেন, যেমন: হাটশপ, দেশিবাজার, বড়মার্ট, ছোটশপ, ইজিকেনাকাটা, বিজিদোকান এরকম আপনার পছন্দ অনুযায়ী।
৬. এরপর যদি পছন্দের নাম না পান, তাহলে কৌশলে নাম সংক্ষেপ করে নিতে পারেন। যেমন: জেনারেল শপকে, জেনশপ, দেশিশপকে ডিশপ, বাংলাদোকানকে বিদোকান। যেভাবে ‘‘বিকাশ’’ ও ‘‘বিল্যান্সার’’ এর নাম হয়েছিলো।
৭. তাতেও যদি কাজ না হয় তাহলে আপনি উচচারণ ঠিক রেখে বানান বদলে নিতে পারেন। . . . . . . . . . . . . . .
৮. এই আইডিয়াটাও যদি আপনার মনে না ধরে তাহলে আপনি ছোট শব্দটা বিশেষ পদ্ধতিতে লম্বা করে নিতে পারেন: যেমন, মুভি থেকে মুভিয়ানা, বাঙালী থেকে বাংালীয়ানা, বিবি থেকে বিবিয়ানা।
৯. এতেও যদি আপনার পছন্দের নামটার কোন গতি না হয় তাহলে শব্দ আগে পরে করে দেখতে পারেন। যেমন: ঘাষফ’ল নয় ফুলঘাষ, কাশফুল নয় ফুৃলকাশ।
১০. এই পলিসিও যদি কোন কাজে না লাগে তাহলে নামের শেষে সংখ্যাযোগ করে নিতে পারেন। তবে সংখ্যাটি যেন মিনিংটুল হয়।
যেমন: বেচাকেনা২৪, হরদম২৪৭, দমাদম৭, দোকানদার৬৪, দোকান২১,
১১. এই পদ্ধতিও যদি ফেল হয় তাহলে মূল বানানে অংশগত সংখ্যা এনে নাম ঠিক করতে পারেন। সাধারণত সংখ্যা থাকলে নাকি এসইও করা কঠিন হয়।
১২. এছাড়া নামের মধ্যে, ডট আন্ডার সেআকার হাইফেন ব্যবহার করেও নাম েিদতে পারেন এবং অন্য নামের চাইতে আলাদা করতে পারেন।
১৩. পৌরানিক নাম ঘেটে বের করতে পারেন। যেমন, ইশতার, হুনুমান, শশংক, টলেমি, আফেদিতি, হোমার, ইলিয়ড ইত্যাদি টাইপের।
১৪. রুপক নামও রাখতে পারেন, মেযন মাঝি, কৃষাণী, সওদাগর, বনিক ইত্যাদি।
১৫. রাখতে পারেন আদ্যক্ষর সআইলের নাম যেমন এফএনএফ ্েস্টার, বিডিস্টোর ইত্যাদিূ
১৬. এছাড়া মূল নামের সাথে আপনার ব্যবসার ক্যাটাগরি অনুসারে নাম দিতে পারেন। যেমন শোভনওয়াচ, রুবনব্য্যাগস, গোধুলিফ্যাশন, গোমতি অপটিক, সকালজামদানী, খাটি কসমেটিক।

এই পক্রিয়াটিকে আরো সহজ করতে আপনি নিচের পক্রিয়া অনুসরন করতে পারেন।
১. প্রথমে একটি সাদা কাগজ নিন। তা লম্বালম্বিভাবে চারটি ভাঁজ করুন, অথবা লাইন টেনে লমা¦া চারটি ঘর বানান।
২. প্রথমঘরে আপনার পছন্দের নামগুলো একটার নিচে একটা লিখুন। প্রতিটি নামের ডোমেইন সার্চ দিন। (কাজ না হলে)
৩. দ্বিতীয় সারিতে আপনি রিলেটেড শব্দ বা কী ওয়ার্ডগুলো লিখুন।
৪. এবার আপনার প্রতিটি নামের সাথে কি ওয়ার্ডগুলো একটা একটা যোগ করে নাম বানিয়ে অনুসন্ধান করুন। (না পেলে)
তৃতীয় সারিতে যে সমস্ত শব্দ বা সংখ্যা যোগ করা যায় সেগুলো লিখুন। এবার প্রতিটি নামের সাথে প্রতিটি শব্দ আলাদাভাবে যোগ দিয়ে দেখুন আপনার কাংিখত নামটা মেলে কিনা?
৫. এভাবে আপনি উপরের অন্যান্য টেকনিকগুলো এপ্লাই করতে তাকুন । যতক্ষন না আপনি আপনার পছন্দের না না পচ্ছেন।

তথ্যসূত্র সূত্র:
ই ক্যাব থেকে কড়া নির্দেশ লেখার সূত্র উল্লেখ করতে হবে। এই লেখা হচ্ছে একটা প্রক্রিয়া যে পক্রিয়ায় আমি নিজে জটিল পরিস্থিতিতে কোন প্রতিষ্ঠানের নাম রেখে থাকি। এখন এই প্রক্রিয়াটি আমার নিজের তৈরী আমি আমার সুবিধার জন্য বানিয়েছে। আমি এর কি সূত্র দেব। যেহেতু এই সব বাংলা শব্দ বাংলা অভিধানে আছে মনে করুন যে বাংলা অভিদানটাই এর সূত্র।

Comments

comments

About The Author



Freelance Consultant, Writer and speaker . Jahangir Alam Shovon has been in Bangladeshi Business sector as a consultant, He has written near about 500 articles on e-commerce, tourism, folklore, social and economical development. He has finished his journey on foot from tetulia to teknaf in 46 days. Mr Shovon is social activist and trainer.

No Comments

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *