ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব) এর ব্লগে সবাইকে স্বাগত জানাচ্ছি। প্রথম থেকেই আমাদের ইচ্ছা ছিল এবং এ যুগে সবার কাছে যাবার জন্য সবচেয়ে ভাল উপায় হচ্ছে ব্লগ। অনেকে হয়তো ফেইসবুকের কথা বলবেন কিন্তু ফেইসবুকে বেশিরভাব ক্ষেত্রে মানুষ খুব সংক্ষিপ্ত স্ট্যাটাস দিতে ও পরতে অভ্যস্ত। তাই ব্লগের আবেদন ও প্রয়োজনীয়তা আরও অনেকদিন থাকবে বলেই মনে হয়। ই-কমার্স সম্পর্কিত যেকোনো বিষয় নিয়ে যেকেউ এখানে লেখা দিতে পারবেন বাংলা ও ইংরেজি ভাষায়।

যারা লিখতে আগ্রহী তাদের লেখা পাঠাতে অনুরোধ ও আহ্বান দুই জানাচ্ছি। এই বিষয়ে আমি একটি ফেইসবুকে পোস্ট দিয়েছিলাম এবং সেখান থেকে আবার কপি করে দিচ্ছি।

১। কেন এই ব্লগঃ নানা কারণে। আমরা লক্ষ্য করেছি যে ই-কমার্স নিয়ে লেখার অভাব ইন্টারনেটে। শুধু ইন্টারনেটে কেন পত্র-পত্রিকা বা ব্লগেও বাংলাদেশের ই-কমার্স সেক্টর নিয়ে তেমন লেখা নেই। আবার অন্যদিকে অনেক সাংবাদিক ও ব্লগার আমাদের বলেছেন যে ইন্টারনেটে বাংলাদেশের ই-কমার্স নিয়ে একটা ব্লগ হওয়া দরকার যাতে করে তারা এবং ই-কমার্স নিয়ে যে কেউ তথ্য পেতে পারেন।

২। কি বিষয়ে লেখা যাবেঃ ই-কমার্স সম্পর্কিত যে কোন বিষয় নিয়ে লেখা যাবে। তবে আমরা চাই যারা ই-কমার্স সম্পর্কে তেমন জানেন না তাদের জন্য খুবই সহজ ভাষায় ই-কমার্স এর বিভিন্ন দিক নিয়ে লেখা পোস্ট।

৩। কোন ভাষায়ঃ ইংরেজি ও বাংলা

৪। কোন শব্দ সীমা আছেঃ সর্বনিম্ন ৫০০ শব্দ থেকে সর্বোচ্চ ৫,০০০ শব্দ পর্যন্ত। আমরা চাই ভাল মানের লেখা। তাই একটু সময় নিয়ে একটু বড় করে গুছানো লেখা দিন।

৫। কে লিখতে পারবেঃ যে কেউ, পৃথিবীর যে কোন প্রান্ত থেকে।

৬। লেখা ছাপা হলে ই-ক্যাব কি আমাকে সন্মানি বা অর্থ দেবেঃ না, অন্তত এই মুহূর্তে তো নয়ই।

৭। টাকা না পেলে ই-ক্যাবের ব্লগে লিখে আমার কি লাভঃ লেখার শেষে আপনার নাম পরিচিতি ও আপনার ওয়েবসাইট, ব্লগ এবং ফেইসবুকের প্রোফাইলের লিংক থাকবে। স্বভাবতই ই-ক্যাব ব্লগে লেখা মানেই আপনার লেখা ই-কমার্স নিয়ে আগ্রহী অনেকেই পড়বে। নিয়মিত লেখার মাধ্যমে আপনি হয়ে উঠবেন ই-কমার্সের উপর একজন বিশেষজ্ঞ এবং হয়তো দেখবেন যে বিভিন্ন জায়গা থেকে আপনাকে আমন্ত্রণ জানানো হচ্ছে সেমিনার ওয়ার্কশপে কথা বলার। মনে হয় মিডিয়া থেকেও আপনার মত নিতে সাংবাদিকরা যোগাযোগ করবে। তবে এজন্য আপনাকে অবশ্যই ভাল মানের লেখা উপহার দিতে হবে। আমরা একটা ভাল প্লাটফর্ম দেবার চেষ্টা করছি। এখন বাকিটা আপনার উপর।

৮। অন্যখান থেকে লেখা কপি করা যাবেঃ না, না, না…………………………………। এটা মোটেই করা যাবে। একমাত্র আপনার নিজের লেখা অন্যখানে ছাপা হলে আমাদের দিতে পারেন। অন্যথায় নয়।

৯। সব লেখাই কি ব্লগে প্রকাশ করা হবেঃ আশা করি হ্যা। তবে অতি নিম্নমানের লেখা প্রকাশ করা হবে না এবং এ বিষয়ে আমাদের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত।

১০। লেখার মধ্যে আমি কি আমার কোম্পানির বা আমার পন্যের প্রচার করতে পারবঃ একদমই না। এবং এব্যপারে আমরা কোন আপোষ করবো না। এ ব্লগটি চালু করা হয়েছে মানুষকে ই-কমার্স সম্পর্কে জানাতে কোন পন্যের প্রচারের জন্য নয়।

১১। লেখার কপিরাইট কারঃ অবশ্যই আপনার মানে লেখকের। এ ব্লগে লেখা দিয়ে আমাদের শুধু আপনার এ লেখা প্রকাশের অনুমতি দিচ্ছেন আমাদের। আপনার লেখা কোন ভাবেই আপনার অনুমতি না নিয়ে অন্যখানে ছাপতে পারবো না আমরা।

১২। কোন ঠিকানায় লেখা পাঠাবো বা আমার মনে আরও প্রশ্ন আছেঃ যোগাযোগ করুন [email protected]

আশা করব সবাই নিয়মিত লিখবেন এবং ব্লগটিকে বাংলাদেশে ই-কমার্স বিষয়ে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ ব্লগে পরিণত করবেন।

24,103 total views, 3 views today

Comments

comments

Your email address will not be published.