Facebook-Guns-033151834628

ফেসবুক মার্কেটিং – পর্ব ২

ফেসবুক মার্কেটিং – পর্ব ২ ফেসবুক পেইড মার্কেটিংঃ কন্টেন্ট ও টার্গেটিং সর্ব প্রথমে মহান সৃষ্টিকর্তা কে অশেষ ধন্যবাদ দিয়ে লেখা শুরু করছি। অনেক ধন্যবাদ যারা পর্ব ১ পড়েছেন এবং এখন পর্ব ২ পড়া শুরু করবেন। আজকে আমরা জানবো ফেসবুক এ পেইড মার্কেটিং করার জন্য কিভাবে ভালো কন্টেন্ট ও কিভাবে টার্গেটিং করতে হবে।   কোথায় বুঝতে

wdife

ই কমার্সের জন্য ওয়েব ডিজাইন আইডিয়া যা সেল বৃদ্ধি করতে সাহায্য করবে

ই কমার্স বাংলাদেশের প্রেক্ষিতে এখনও অনেকটা নতুন। কিন্তু ই কমার্স যোদ্ধারা ( যোদ্ধা বলব কারন শুরু থেকে নতুন কিছু প্রতিষ্ঠা করা খুব ই কষ্টসাধ্য। যা ই ক্যাব এর মেম্বার প্রতিষ্ঠান এবং অন্যান্য ছোট – বড় প্রতিষ্ঠান করে দেখিয়েছে। ) ইতিমদ্ধে বর্তমান জেনারেশন কে ই কমার্স এর সাথে সম্পৃক্ত করতে পেরেছে। কিন্তু এখনও হতাশ হতে হয় যে

Screenshot_34

কাস্টমার নেগোসিয়েসন সম্পর্কে কিছু পরামর্শ

কাস্টমার বা ক্রেতাই ব্যবসায় কে টিকিয়ে রাখার চাবিকাঠি। এটা নিশ্চয় নতুন করে আপনাকে বোঝাতে হবে না?? এটা যেহেতু বুঝতে পারছেন, তাহলে এটা কেন বুঝতে পারছেন না, যে কিছু সময় কাস্টমার কেও ডিল করতে দিতে হয়???   হ্যাঁ, বিষয় টা একটু অন্যরকম। আজ আমরা কাস্টমার নেগোসিয়েসন বা ক্রেতার সাথে কিভাবে আপোষ এ আশা যায় সেটা নিয়ে

url

কেন ই-কমার্স ট্রাফিকের জন্য শুধুমাত্র সোশিয়াল মিডিয়ার উপর নির্ভর করা উচিত না

ট্রাফিক পাবার একটি শক্তিশালী মাধ্যম হিসেবে সোশিয়াল মিডিয়া নিজেদের প্রতিষ্ঠিত করেছে এবং ওয়েবের উপর নিজেদের অথরিটি ও প্রতিষ্ঠা করতে সক্ষম হয়েছে। অনেকেই সোশিয়াল মিডিয়াকে তার নিসের উপর লিডার হবার জন্য ব্যবহার করেন এবং এক সময় দেখা যায় তারা তাদের শিল্পে / ইনডাজট্রিতে প্রভাব বিস্তারও করছেন । বাংলাদেশে ই-কমার্স ব্যবসায়ের জন্য সোশিয়াল মিডিয়া বিশেষ করে ফেসবুকের

ই কমার্স: সবার স্বার্থে বাজারকে বিস্তৃত করতে হবে

ই কমার্স: সবার স্বার্থে বাজারকে বিস্তৃত করতে হবে জাহাঙ্গীর আলম শোভন ই কমার্স এসোসিশেন অব বাংলাদেশ। এই সংগঠনে ২৩০ টি কোম্পানী আজ অবধি নিবন্ধিত হয়েছে। আশাকরা যায় চলতি বছর ৩০০ কেমা্পানী হয়ে যাবে। ই কমার্সের ভবিষ্যত ভালো। একটি একটিভ এসোসিয়েশন হিসেবে এর কাযক্রম সর্বসহলে প্রশংসিত হয়েছে। দেশে মানুষ জীবন ওজীবিকার জন্য কাজ করতে চায়, কাজ

maxresdefault

ই-কমার্স সম্পর্কে কিছু ভুল ধারনা এবং সমাধান

আবুল খায়ের অনেক দিন পর লিখছি, তবে আজকের লেখার পিছনে বেশ কিছু কারন রয়েছে। লেখার শুরুতেই আগে একটা ছোট গল্প শোনাতে চাই। গত কালকে ই-ক্যাব মেম্বার’স জেনারেল মিটিং এবং সার্টিফিকেট বিতরনী অনুষ্ঠান শুরু হওয়ার আগ মূহুর্তে আমরা যখন অনুষ্ঠানের প্রস্তুতি নিচ্ছিলাম ঠিক তখন ষাট উর্ধ একজন সিনিয়র সিটিজেন এসেছিলেন অডিটোরিয়ামে কি হচ্ছে তা জানার জন্য।

ই কমার্স , ই মিডিয়া ও ই মার্কোটং

  ই কমার্স , ই মিডিয়া ও ই মার্কোটং জাহাঙ্গীর আলম শোভন ই কমার্স এর সাথে সম্পর্কিত কিছু বিষয় নিয়ে আলোচনা করতে চাই। সে বিষয়গুলো শুধু ইলেকট্রনিক্স মাধ্যম বলে ই কমার্সের সাথে সম্পর্কিত তা নয়। বরং ই কমার্স ব্যবসায় বিভিন্ন ভাবে এসব মাধ্যমের ভ’মিকা রয়েছে। বিশেষকরে ই মার্কেটিং এসব মাধ্যমের বিকল্প নেই। সাধারণত আশা করা

পাঁচটি পর্বে ই-কমার্সের কন্টেন্ট রাইটিং শিখুনঃ পর্ব শুন্য

অনেকদিন ধরেই চিন্তা করছিলাম কন্টেন্ট রাইটিং এর উপরে একটি বড় আর্টিকেল লিখব কিন্তু তেমন ভাবে গুছিয়ে উঠতে পারলাম না। তাই পুরো জিনিস টা কয়েকটি পর্বে ভাগ করার সিদ্ধান্ত নিলাম। জানিনা কত ভালো সিদ্ধান্ত হয়েছে এটি। যারা নতুন শুরু করতে চাচ্ছে তাদের হয়ত কাজে লাগবে। নাও লাগতে পারে। তবে আমি যেভাবে কাজ করি সেভাবেই জিনিসটা তুলে

ই-কমার্স ক্রেতার নজর কাড়ার উপায়। পর্ব- ১ সুন্দর ছবি

ই-কমার্স ক্রেতার নজর কাড়ার উপায়। পর্ব- ১ – সুন্দর ছবি

বর্তমানে বাংলাদেশে অসংখ্য ই কমার্স সাইট আছে যার সিংহ ভাগই টেমপ্লেট নির্ভর। যার ফলে নজরকাড়া ই কমার্স সাইট খুবই কম। সবগুলো সাইট দেখতে প্রায় এক। সাইটের রং, ডিজাইন, ক্যাটাগরি স্টাইল, হেডার, ফুটার, লোগো পজিসনিং, সাইট অপসন ইত্যাদি সবই প্রায় দেখতে এক। সিমাবদ্ধ আর অল্প জায়গার অনেক কিছু রাখার চেষ্টার ফলে পুরো জিনিসটা জগা খিচুরি হয়ে