বিজনেস এসোসিয়েশন এর মেম্বারশিপ

ই-কমার্স ও নারী

নারী উদ্যোক্তাদের জন্য একটা আশ্রয়স্থল হয়ে দাড়িয়েছে ই-কমার্স খাত বা অনলাইন ব্যবসায়। আমরা এক নজরে দেখে নিতে চায় এই খাতে নারী উদ্যোক্তাদের অবস্থান। ই-ক্যাবের সদস্য সংখ্যা বর্তমানে ১৬০০ এর মধ্যে ২৭% উদ্যোক্তা নারী উদ্যোক্তা রয়েছেন। সংখ্যা ৪৩০ জন। তবে ক্ষুদ্র অনলাইন উদ্যোক্তাদের মধ্যে এই সংখ্যা ৩০% এর বেশী এবং ফেসবুক কেন্দ্রীক উদ্যোক্তাদের মাঝে ৪০% এর

বাংলাদেশে ই-সিগারেট নিষিদ্ধ করা হোক

অনলাইনে ই-সিগারেট বিক্রি ও প্রদর্শনরোধে কঠোর আইন প্রয়োজন

অনলাইনে ই-সিগারেট বিক্রি ও প্রদর্শনরোধে কঠোর আইন প্রয়োজন রেজাউর রহমান রিজভী মানুষ সর্বদা পরিবর্তন পছন্দ করে। নতুন নতুন জিনিসের সঙ্গে পরিচিত হতে পছন্দ করে। ফলে কিছু ভালো সঙ্গে কিছু মন্দ জিনিসও এই পরিবর্তনের তালিকায় ঢুঁকে পড়ে। ই-সিগারেট তেমনই একটি নতুন ও আকর্ষণীয় জিনিসের নাম। অথচ এর কোন উপকার তো নেই-ই, বরং অপকারের জন্য পৃথিবীর ২০টিরও

রাইড শেয়ারিং সেবার জন্য করোনাকালীন নির্দেশিকা

রাইড শেয়ারিং সেবার জন্য করোনাকালীন নির্দেশিকা

রাইড শেয়ারিং সেবার জন্য করোনাকালীন নির্দেশিকা     রাইড শেয়ারিং সার্ভিসকে রোগজীবানূ থেকে নিরাপদ রাখতে নিন্মলিখিত স্বাস্থবিধি মেনে চলা উচিৎ রাইড শেয়ার এ্যাপ অথরিটির করনীয় ১. সকল রাইডারকে স্বাস্থ্য নিরাপত্তা বিধি, টেকনিক্যাল ও বেস্ট প্রাকটিস গাইডলাইন এবং সামাজিক দূরত্ব বিষয়ে প্রশিক্ষণ ও দেয়া হবে। ২. নিরাপত্তা বিধি সংক্রান্ত নির্দেশনা এ্যাপে সংযুক্ত করা হবে। প্রতিদিন নিরাপত্তা

করোনায় ই-কমার্স সেবা

করোনাকালীন সময় বা কোভিড ১৯ সময়ে ই-ক্যাবের কার্যক্রম

করোনাকালীন সময় বা কোভিড ১৯ সময়ে ই-ক্যাবের কার্যক্রম গত কয়েকদিন ধরে করোনা সংকটে জাতি এক কঠিন সময়ের মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। এই সময়ে শুরু থেকে সচেতন থেকে আমাদের সদস্য প্রতিষ্ঠান এবং জনগনের কথা মাথায় রেখে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে ই-ক্যাব। বলতে পারেন যখন যেখানে যা করা দরকার তাই করার চেষ্টা করেছি।   ই-ক্যাব এটুআই, ক্যাবিনেট ডিভিশন, আইসিটি

sobjibazar

ই-ক্যাব ও বাংলাদেশের ই-কমার্স ২০২০

ই-ক্যাব ও বাংলাদেশের ই-কমার্স ই-কমার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ প্রতিনিয়ত নতুন নতুন স্বপ্ন জাগিয়ে এবং সফল কার্যক্রমের মাধ্যমে ই-ক্যাবের পথচলা তরুনদের আশাব্যঞ্জক এবং দেশের জন্য সফলতার এক নতুন স্বাক্ষর। বিশেষ করে গত ৮ মাসে পরিস্থিতি মোকাবিলায় ই-ক্যাব যেভাবে সাড়া দিয়েছে। একের পর এক দায়িত্ব সফল বাস্তবায়ন করেছে এজন্য টিম ই-ক্যাব প্রশংসার যোগ্যতো বটেই, দেশের ডিজিটাল অর্থনীতির

ই-ক্যাবের ৬ বছর

ই-ক্যাবের ৬ বছর

ই-ক্যাবের ৬ বছর জাহাঙ্গীর আলম শোভন দেখতে দেখতে চোখের সামনেই ই-ক্যাব ৬ বছরে পা দিল। এর মধ্যে সাড়ে ১৩০০ উদ্যোক্তা সরাসরি এবং আরো কয়েকহাজার তরুন প্রত্যক্ষভাবে ই-ক্যাবের সাথে সম্পৃক্ত। প্রতিনিয়ত নতুন নতুন স্বপ্ন জাগিয়ে এবং সফল কার্যক্রমের মাধ্যমে ই-ক্যাবের পথচলা তরুনদের আশাব্যঞ্জক এবং দেশের জন্য সফলতার এক নতুন স্বাক্ষর। বিশেষ করে গত ৮ মাসে পরিস্থিতি

ই-কমার্স: ২০২১

ই-কমার্স: ২০২০

ই-কমার্স: ২০২০ বিগত বছরগুলোতে ই-কমার্সখাতে প্রবৃদ্ধি ছিল ২৫%। গত বছর এই প্রবৃদ্ধি ঘটেছে দ্বিগুনের কাছাকাছি। এই হিসেবের সমর্থন বিভিন্ন সূত্র থেকে পাওয়া যাবে। যেমন ই-ক্যাবের সদস্য প্রতিষ্ঠান যেখানে আগে ছিল ১০০০, সেখানে এখানে ১৪০০। এখানে প্রায় ৪০%। ফেসবুক ভিত্তিক প্রতিষ্ঠানের সংখ্যা বৃদ্ধির হার এর চেয়ে অনেক বেশী। সবার ক্ষেত্রে চিত্রটা একই রকম নয়। কিছু প্রতিষ্ঠান

করোনাকালীন ই-ক্যাবের বিভিন্ন পদক্ষেপ

করোনাকালীন ই-ক্যাবের বিভিন্ন পদক্ষেপ সাধারণ ছুটির শুরুতে যখন চলাচল সীমিত ঘোষণা করা হয়। তখন ই-ক্যাব বাণিজ্য মন্ত্রণালয় থেকে খাদ্য, নিত্যপণ্য ও ঔষধ ব্যবহারের অনুমতি পায়। এবং সদস্য প্রতিষ্ঠানগুলোকে ‘‘জরুরী সেবা’’-র জন্য স্টিকার প্রদান করে। হিসেব মতে ১৭০ টি প্রতিষ্ঠান প্রায় ১০ হাজার স্টিকার নেয়। এসব প্রতিষ্ঠানের ১০ হাজার গাড়ি সারাদেশে পণ্য সরবরাহে নিয়োজিত থাকে। এটা