২৫ টি অনলাইন ব্যবসার আইডিয়া এবং ই-কমার্স ব্যবসার নতুন সম্ভাবনা ক্ষেত্র

12670
২৫ টি অনলাইন ব্যবসার আইডিয়া

২৫ টি অনলাইন ব্যবসার আইডিয়া এবং ই-কমার্স ব্যবসার নতুন সম্ভাবনা ক্ষেত্র

(এ লেখাটি কনটেন্টএভার ফেসবুক পেজেতে  আলোচনা করা  হয়েছে । )

২৫ টি অনলাইন ব্যবসার আইডিয়া যা দিয়ে আপনিও ব্যবসা শুরু করতে পারেন  । অনলাইন ব্যবসায় আধুনিকত্ব থাকবেনা , কিংবা নতুনত্ব থাকবেনা সেটা কি হয় ? একটু অন্যরকম , একটু নতুনত্ব নিয়ে আপনিও অনলাইন ব্যবসা শুরু করতে পারেন । বিশ্বের ই-কমার্স জায়ান্ট প্রতিষ্ঠান আমাজন কিংবা আলিবাবা এর সাথে যখন প্রতিদ্বন্দ্বিতা করতে আপনার অনেক চিন্তা হচ্ছে, তখন আপনার অনলাইন ব্যবসা কিংবা এর আইডিয়া ঠিক তাদের থেকে একটু আলাদা হয়ে থাকলে কেমন হয় ?

 

আপনি ই-কমার্স বা অনলাইন ব্যবসা করবেন , তবে একটু অন্যরকমভাবে আপনার কাস্টমারদের কাছে আপনি আপনার প্রোডাক্ট বা সেবা নিয়ে পৌছাতে পারেন । বিভিন্ন ধরণের কিছু অফলাইন সেবা নিয়েই কিন্তু দারুণভাবে অনলাইন জগতের সহায়তায় অনলাইন-অফলাইন ব্যবসা শুরু করা যায় । অনলাইন ব্যবসা যখন বাংলাদেশে দারুণ জনপ্রিয় হয়ে উঠছে এবং মানুষ যখন অনলাইনেই অনেক কিছু কেনাকাটা কিংবা সেবা পেতে চাচ্ছে তখন আপনিও সেই অনেক কিছুর মাঝ থেকে একটি আনকমন ব্যবসা শুরু করে দিতে পারেন । এমন না যে এই ব্যবসার আইডিয়াগুলো নিয়ে কেউই কাজ করছেনা , অনেকেই এইরকম আইডিয়া নিয়ে কাজ করছে এবং কিছু আইডিয়া নিয়ে হয়ত সামনে কাজ শুরু করবে কেউ কেউ, কিন্তু আপনার শুরুটা চমৎকার ও ভিন্নরকম কিছু উপলক্ষ্য নিয়ে আসতে যদি পারে, তবে বাংলাদেশের বাজারে চমৎকারভাবে আপনার অনলাইন কিংবা ই-কমার্স ব্যবসা এগিয়ে যাবে ।

 

২৫ টি অনলাইন ব্যবসার আইডিয়া  যা নিকট ভবিষ্যতে জনপ্রিয় হয়ে উঠতে পারে-

 

১। মেকআপ বা সাজসজ্জাঃ

বিয়ে,উৎসব কিংবা বিভিন্ন অনুষ্ঠানে নারী-পুরুষ উভয়ের জন্যেই সাজসজ্জা বা মেকআপ একটি অত্যাবশ্যকীয় বিষয় হয়ে উঠছে বিগত কয়েক বছর ধরে অনলাইনের মাধ্যমে আপনিও এই সেবা নিয়ে কাজ করতে পারেন অফলাইনের জন্যে এবং অর্ডার অনুযায়ী এই বিষয়ক বিভিন্ন প্রোডাক্ট বিক্রি থেকে শুরু করে কাস্টমারদের অনুষ্ঠানে আপনার প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে সার্ভিস দিতে পারেন । বিশ্বস্ত প্রতিষ্ঠান হিসেবে নিজের প্রতিষ্ঠানের গ্রহণযোগ্যতা যত বৃদ্ধি পাবে ততই নতুন এক সম্ভাবনার দ্বার উন্মোচিত হবে আপনার ও প্রতিষ্ঠানের ।

 

২। বাসা পাল্টানোর জন্যে সহায়তাকারী প্রতিষ্ঠানঃ

প্রতি মাসে কিংবা প্রতিদিন ঢাকা শহরসহ দেশের সকল জায়গায় অনেক মানুষ বাসা পাল্টায় কিন্তু বিশ্বস্ত মানুষ কোথায় পাবে কিংবা কোন প্রতিষ্ঠান বা কাদের দিয়ে এ কাজ করাবে তার জন্যে তাদের হন্যে হয়ে খোঁজ- খবর নিতে হয়। কিন্তু বাসা পাল্টানোর সেবার সহায়তার ক্ষেত্রে আপনার প্রতিষ্ঠানও অনলাইনের মাধ্যমে মানুষের কাছে খুব সহজে পৌছাতে পারে । অনলাইনে মানুষ তার কাজের জন্যে অর্ডার দিলো আর আপনার প্রতিষ্ঠান সেই কাজ নির্বিঘ্নে কোন ঝামেলা ছাড়া অর্থের বিনিময়ে করলো ।

৩। লন্ড্রিঃ

বাসার কাপড় ধোয়া থেকে শুরু করে ইস্ত্রি করা নিয়ে অনেক সমস্যায় পরতে হয় কর্মচঞ্চল এই ঢাকা শহরের মানুষকে । অনলাইনে লন্ড্রি সেবা নিয়েও আপনার প্রতিষ্ঠান কাজ শুরু করতে পারে এলাকা ভিত্তিক কিংবা পুরো শহরজুড়ে । এতে করে ঘরে বসেই মানুষজন সার্ভিস নিতে পারবে ।

৪। রেন্ট এ কারঃ

দেশের বিভিন্ন প্রান্তে যেতে আমাদের বিভিন্ন সময় গাড়ি ভাড়া করতে হয় , কিন্তু অনলাইনেই যদি এই গাড়ি ভাড়ার নেয়ার ব্যবস্থা থাকে এবং নিজের পছন্দ অনুযায়ী গাড়ি ভাড়া নিয়ে নিজের কাজে ঢাকার বাইরে কিংবা অন্য শহর থেকে ঢাকাতে আসা যায় , তবে কেমন হয়?

বিশ্বস্ত একটা প্রতিষ্ঠানই পারে সহজে দেশের যেকোন প্রান্তের মানুষকে অনলাইনের মাধ্যমে এই সেবা নেয়ার জন্যে গাড়ি বুকিং সার্ভিস ।

৫। কম্পিউটার সার্ভিসিং এবং ইলেকট্রিক বা ইলেক্ট্রনিক্স সার্ভিসঃ

ব্যস্ত শহরে যানজট ঠেলে কে চায় তার বাসার কম্পিউটার বা ল্যাপটপ এর সমস্যার জন্যে দোকানে যেতে , কিন্তু বিশ্বস্ত কোন অনলাইন প্রতিষ্ঠান নেই যে নিশ্চিন্তে তাদের বলবে যে আমার বাসা থেকে আমার পিসি বা ল্যাপটপ নিয়ে সার্ভিস দিয়ে আমাকে বাসায় দিয়ে যান । আপনার প্রতিষ্ঠান দিতে পারে সেই চমৎকার সার্ভিস , সেবাটি ভালভাবে দিতে পারলে এবং জনপ্রিয় করতে পারলে দারুণ এক ব্যবসা শুরু হয়ে যাবে । এছাড়া বিল্ডিং করতে কিংবা বাসা বদলের সময় বিভিন্ন ধরণের ইলেকট্রিক বা ইলেকট্রনিক্স জিনিসপত্রের প্রয়োজন পরে এবং সার্ভিস দেয়ার দরকার পরে, আপনার অনলাইন সাইটের মাধ্যমে সেইসব সার্ভিস কিংবা প্রোডাক্ট সহজে মানুষ পেতে পারে ।

৬।ফটোগ্রাফি এবং ইভেন্ট ম্যানেজমেন্টঃ

বিয়ে কিংবা বিভিন্ন অনুষ্ঠানে ফটোগ্রাফি থাকবেনা তা কি সম্ভব ? কখনোই সম্ভব না । এখন অধিকাংশ ফটোগ্রাফি বিষয়ক অর্ডারগুলো অনলাইনেই হয় । যদি আপনি ভাল ফটোগ্রাফার হয়ে থাকেন তবে আপনার প্রতিষ্ঠানের একটি ওয়েবসাইট করতে পারেন এবং আপনার ফটোগ্রাফি পেশাকে অনলাইন সাইটের মাধ্যমে জনপ্রিয় এবং অনলাইন সাইটের মাধ্যমে অর্ডার নেয়া শুরু করতে পারেন । এর পাশাপাশি কোন প্রতিষ্ঠান ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট সার্ভিসও দিতে পারে।

৭। খাবার অর্ডার সার্ভিসঃ

বিয়ে কিংবা বিভিন্ন অনুষ্ঠানে মানুষ বিভিন্ন মজাদার খাবার পরিবেশন করতে চায় অতিথিদের, আপনার প্রতিষ্ঠান সেই মজাদার খাবার তৈরি এবং অর্ডার নিয়ে সার্ভিস দিতে পারে । অথবা বিভিন্ন নামকরা খাবার দোকানের খাবার আপনার প্রতিষ্ঠান এরকম অনুষ্ঠানে অর্ডার অনুযায়ী ডেলেভারি দিতে পারে ।

৮। অফিস সাজানো এবং ইনটেরিয়র ডিজাইনঃ

অফিসের সুন্দর ইনটেরিয়র ডিজাইন করে দেয়ার সার্ভিস আপনার প্রতিষ্ঠান দিতে পারে এবং অনলাইনে এর অর্ডার নিতে পারে আপনার প্রতিষ্ঠান । এছাড়া বিভিন্ন অফিসের শোভাবর্ধনের জন্যে গাছসহ ফুলের টব কিংবা বিভিন্ন প্রয়োজনীয় জিনিস আপনার প্রতিষ্ঠান সার্ভিস দিয়ে থাকতে পারে । আপনার প্রতিষ্ঠান সুন্দর সুন্দর বাহারি রকমের গাছসহ টব বিভিন্ন অফিসের জন্যে সার্ভিস দিবে এবং তা কয়েকদিন পর পর রক্ষণাবেক্ষণ করে দিবে ।

৯। অফিসের বিভিন্ন প্রয়োজনীয় ষ্টেশনারী জিনিসঃ

অফিসে কাগজ থেকে শুরু করে কলম এবং অন্যান্য বিভিন্ন প্রয়োজনীয় ষ্টেশনারী জিনিসপত্র লাগে , আপনার প্রতিষ্ঠান অনলাইনের মাধ্যমে বিভিন্ন অফিসের কাছ থেকে সেইসব প্রোডাক্ট এর অর্ডার নিতে পারে এবং তা ডেলেভারি করতে পারে ।

১০। কাঁচা বাজারঃ

বাংলাদেশে যানজট একটা প্রধান সমস্যা এবং সাথে সাথে আমাদের দেশের মানুষ ক্রমাগতভাবে ব্যস্ত হচ্ছে নিজের কর্মক্ষেত্র নিয়ে , ঢাকা শহরের অভিজাত এলাকার মানুষ অনেক ব্যস্ত এবং সেসব এলাকায় অনলাইনের মাধ্যমে মানুষের কাছ থেকে কাঁচা বাজারের অর্ডার নেয়া যায় এবং কাস্টমারকে হোম ডেলেভারি দেয়া যায় ।

১১। ফার্নিচার প্রোডাক্টঃ

ঘরের আসবাবপত্র নিয়ে এবং এর ডিজাইন নিয়ে অনেকের মাঝেই অনেক চিন্তা থাকে ও অনেক রকম ইচ্ছে থাকে । ফার্নিচার নিয়ে ই-কমার্স সাইট করতে পারে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠিত ফার্নিচার ব্যবসায়ীরা । এতে করে কেউ যদি অনলাইনে আসবাবপত্র দেখে কিনতে চায় তবে কিনতে পারবে কিংবা দোকানে গিয়ে দেখে এসে অনলাইনে অর্ডার করতে পারবে ।

১২। ভ্রমণ সার্ভিসঃ

শহরের যান্ত্রিকতা ছেড়ে অনেকেরই দেশ-বিদেশের বিভিন্ন জায়গায় ঘুরতে ইচ্ছে করে , কিন্তু কখন কিভাবে সহজে কোথাও ভ্রমণ করবে , কোথায় থাকবে এবং যাতায়াত এর সময় যাবতীয় সহায়তার প্রয়োজন পরে । আর এ জন্যে অনলাইনে ভ্রমণ বিষয়ক সার্ভিস দেয়ার জন্যে সাইট করতে পারেন । যাতে করে বিভিন্ন জায়গায় ভ্রমণের সার্ভিস অনলাইনে সিলেক্ট করলে এবং পেমেন্ট করে পরবর্তীতে মানুষ সহজে আপনার প্রতিষ্ঠানের সহায়তায় ঘুরতে যেতে পারে । এছাড়া হোটেল এন্ড রিসোর্ট অনলাইনে অগ্রিম বুকিং দেয়ার ব্যবস্থাও থাকতে পারে যদি কেঁউ নিজে নিজে ভ্রমণ করতে চায় ।

১৩। কিচেন আইটেমঃ

রান্নাঘরের বিভিন্ন প্রোডাক্ট নিয়ে ই-কমার্স সাইট করা যায়, শুধুমাত্র রান্না বিষয়ক ও রান্নাঘরের জিনিসপত্র এবং এ বিষয়ক বইপত্র এই সাইটে ক্রেতারা অর্ডার দিতে পারবে এবং কিনতে পারবে ।

 

১৪। দৈনন্দিন প্রয়োজনীয় আনুষঙ্গিক বিষয়ঃ

ডিস, ইন্টারনেট কিংবা সকালে যে হকার পত্রিকা দিয়ে যায় কিংবা প্রতিদিন ডেইরি প্রোডাক্ট অনেকের বাসায় প্রয়োজন পরে থাকে । কিন্তু কোথায় কাকে খুঁজে পাবে এই সার্ভিসের জন্যে , কিংবা বিশ্বস্ত কোন প্রতিষ্ঠানের খোঁজখবর পাওয়া অনেকটা চ্যালেঞ্জ । ইচ্ছে করলেই আপনি একটি ব্র্যান্ড তৈরি করতে পারেন শহরের মানুষকে এই সেবাগুলো দিতে । অনলাইনের মাধ্যমে আপনার প্রতিষ্ঠানে মানুষ অর্ডার করবে এবং আপনার প্রতিষ্ঠান সেই সেবা দিবে । এছাড়া বাসায় যদি রং করার প্রয়োজন পরে কখনো , তবে এ প্রতিষ্ঠান অনলাইনে অর্ডার নিয়ে সেই সেবাও দিতে পারে ।

 

১৫। পুরুষদের প্রোডাক্টঃ

শুধুমাত্র অনলাইনে পুরুষদের যাবতীয় পোশাক এবং ব্যবহার্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে অনলাইনে আপনার প্রতিষ্ঠানও বিক্রি শুরু করতে পারে । এতে করে আপনার প্রতিষ্ঠান অন্য অনেক অনলাইন সাইট থেকে ভিন্নতা নিয়ে আসতে পারবে।

 

১৬। মহিলাদের পোশাকঃ

নারীদের পোশাক ও ব্যবহার্য প্রয়োজনীয় জিনিসপত্র নিয়ে অনেক নারীরই ইচ্ছে করলে অনলাইনে নিজেদের ব্র্যান্ড তৈরি করে বিভিন্ন প্রোডাক্ট বিক্রি করতে পারে। বাংলাদেশে অনেক নারী ইতিমধ্য এ ধরণের ব্যবসা অনলাইনে করছে ।

 

১৭। পুরনো বইপত্রঃ

অনেক সময় অনেক পুরনো বইপত্রের প্রয়োজন পরে , আবার অনেকে পুরাতন বইপত্র বিক্রি করে দিতে চায় । ইচ্ছে করলে এই চ্যালেঞ্জিং ব্যবসাটি অনলাইনে আপনিও শুরু করে দিতে পারেন এবং বিভিন্ন নামকরা পত্রিকা , ম্যাগাজিনও বিক্রি করতে পারেন।

 

১৮। শোপিসঃ

ঘর সাজাতে সুন্দর সুন্দর শোপিস অনেকে পছন্দ করে । তাই আপনার যদি সুন্দর প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করতে ইচ্ছে হয়, তবে আপনি আপনার প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে অনলাইনে মানুষের কাছে শোপিস বিক্রি করতে পারেন ।

 

১৯। ফার্মেসী ও মেডিকেল প্রোডাক্টঃ

প্রতিদিন মানুষের বিভিন্নরকম ওষুধের প্রয়োজন পরে, বেশকিছু ওষুধ থাকে যা সহজে পাওয়া যায়না এবং বিভিন্ন ধরণের মেডিকেল চেকআপ এর জন্যে দৈনন্দিন জীবনে অনেক মেডিকেল প্রোডাক্ট এর প্রয়োজন পরে । এসব প্রোডাক্ট নিয়ে অনলাইনের মাধ্যমে আপনিও ক্রেতার অর্ডার নেয়ার জন্যে আপনার ই-কমার্স সাইটটি তৈরি করতে পারেন ।

 

২০। খেলাধূলার সরঞ্জামঃ

খেলাধূলার বিভিন্ন প্রোডাক্ট নিয়ে অনলাইন সাইট হলে যারা এই বিষয়ক প্রোডাক্ট কিনতে চায় , কিংবা অনেকে অনেক বিদেশী খেলাধূলার প্রোডাক্ট যা সহজে দেশে পাওয়া যায়না , তাদের জন্যে চমৎকার অনলাইন কেনাকাটার সাইট হতে পারে।

 

২১। সাইকেল ও মোটরসাইকেল পার্টসঃ

সাইকেল বা মোটরসাইকেলের বিভিন্ন পার্টস যা কিছুটা আনকমন তা নিয়েও অনলাইনে অনেকে কাজ করতে পারে। অনেক সময় অনেকের অনেক পার্টস কেনার প্রয়োজন পরে যেগুলো কোথায় পাওয়া যায় তা অনেকে জানেনা , সেসব ক্ষেত্রে দারুণ সমাধান হতে পারে এই বিষয় কেনাকাটার সাইট ।

 

২২। লিফট সার্ভিসঃ

আমাদের দেশে ক্রমাগত নতুন নতুন বাড়ি হচ্ছে এবং বেশিরভাগ বাসাতেই এখন ওপরের তালায় যাওয়ার জন্যে লিফট ব্যবহার করা হয় । লিফট বিক্রি কিংবা এর মেইনটেইন এর ক্ষেত্রে অনলাইন-অফলাইন ভাল সেবা নিয়েও কাজ শুরু করা যায় ।

 

২৩। গিফট আইটেমঃ

বিয়ে, বিভিন্ন অনুষ্ঠানে বিভিন্ন ধরণের উপহার মানুষকে দিতে হয়, কিন্তু হঠাৎ করে কি ধরণের ব্যতিক্রমী জিনিস আপনি দিবেন ঠিক করতে পারছেন না , ঠিক শুধুমাত্র গিফট আইটেম নিয়েও আপনি আপনার অনলাইন ব্যবসা শুরু করতে পারেন ।

২৪। রিভিউ সার্ভিসঃ

বিভিন্ন ধরণের প্রোডাক্ট রিভিউ, বিভিন্ন বিষয়ের লেখা ই-কমার্স ব্যবসায়ীদের বিভিন্ন সময় প্রয়োজন পরে । তাই আপনি যদি ভাল লিখতে পারেন , তবে অনলাইনে আপনি আপনার আর্টিকেল নিয়ে কাজ করতে পারেন আপনার নিজের সাইটের মাধ্যমে ।

২৫মাছ ও গবাদি পশুর মাংস ডেলেভারি সার্ভিসঃ

আপনি হয়ত অনেক ব্যস্ত, তাই হয়ত মাছ বা মাংস কিনতে বাজারে যেতে পারছেন না , কিন্তু এমন যদি কোন অনলাইন শপ থাকে যারা শুধু বিভিন্ন ধরণের মাছ – মাংস আপনার অর্ডার অনুযায়ী ডেলেভারি করে দিবে, তাহলে কেমন হয় ? যদি কোন প্রতিষ্ঠান মনে করে তাদের পক্ষে এইরকম সার্ভিস দেয়া সম্ভব , তবে তারা সুন্দরভাবে চেষ্টা করলে দারুণ একটা উদ্যোগ হবে ।

 

২৫ টি অনলাইন ব্যবসার আইডিয়া !

 

 

ই-কমার্সের সাথে জড়িত সকল ব্যবসায়ী এবং ক্রেতাকে শুভেচ্ছা ।

ভাল থাকুন , ভাল সময় কাটান এবং ই-কমার্সের সাথে থাকুন ।

 

কনটেন্ট রাইটারNazmul Hasan Majumder

For Facebook profile : Click here 

For Facebook Page : contentever 

____________________

আরও লেখাসমূহ :

১।অ্যামাজন এফবিএ (FBA) বা “ফুলফিলমেন্ট বাই অ্যামাজন

২। ই-মেইল মার্কেটিং টুল : মেইলচিম্প | Mailchimp

৩। সার্চ ইঞ্জিন অপটিমাইজেশন কিং বা এসইও কিং | SEO KING Search Engine Optimization King”

 

৪। কমার্স সাইট কিভাবে ক্রেতার নির্ভরতা অর্জন করবে( SSL part)

৫। কমার্স বিজনেস কোম্পানি মডেল

 

৬। কমার্স সাইট ফর কাস্টমার (ডোর টু ডোর)

 

৭। কমার্স সাইটে প্রোডাক্ট রিভিউ কনটেন্ট কিং

 

৮। কমার্স সাইট বিজ্ঞাপন কৌশল

৯। কমার্স সাইটের বিজ্ঞাপনের জন্যে ফেসবুকে “ Page Post Engagement বুস্ট পোস্ট” !!!!!

 

১০। কমার্স সাইটে বিজ্ঞাপন হিসেবে এনিমেশন

 ১১ কমার্স সাইটের বিজ্ঞাপনএর জন্যে ফেসবুক পেজ থেকে কিভাবে ভিডিও মার্কেটিং করবেন !!!!

 

কমার্স সাইটের বিজ্ঞাপনের জন্যে ফেসবুকে Page Promote কম খরচে !!! !!! !

Comments

comments

About The Author



Hey, My name is Nazmul Hasan Majumder . I'm passionate about writing & Seo Analyst, love to work on Animation & Web Development. All time, I usually try to up to date on tech stuff & E-Commerce industry,especially on marketing strategy & software of online world. You can join me on Facebook : https://www.facebook.com/nazmulhasanmajumder