ই-কমার্স এর পণ্য সরবরাহঃ প্যাকেজিং, শিপিং এবং কুরিয়ার সার্ভিস নিয়ে কিছু টিপস

অভিনন্দন! আপনার অনলাইন স্টোর প্রথম বারের মত একটি পন্য বিক্রি হল । এর আগ পর্যন্ত আপনি যা করেছেন সবই ছিল ভার্চুয়াল, এখন সময় বাস্তবের মুখোমুখি হবার । বাস্তব বলতে আমি বুজিয়েছি বাহিরে যাওয়া এবং আপনার পন্য সরবরাহের আয়োজন করা। আপনি এক বাক্স চকলেট বিক্রি করতে পারেন অথবা এক প্যাকেট পেনসিল- এসব কিছুতেই একটি সাধারন বা

প্রসঙ্গঃ ই-ক্যাবের এক মাস

গত ৮ নভেম্বর তারিখে জাতীয় প্রেসক্লাবে ই-কমার্স অ্যাসোসিয়েশান অব বাংলাদেশ (ই-ক্যাব) এর আনুষ্ঠানিক যাত্রা শুরুর ঘোষণা সভাপতি হিসেবে আমি দিয়েছিলাম। দেখতে দেখতে এক মাস চলে গেল। আজ ডিসেম্বর মাসের ৮ তারিখ। এই এক মাসের মধ্যে কিছু ভুল ত্রুটি ছিল যা থেকে শিক্ষা নিয়েছি এবং অনেক কিছু শিখেছি আমরা। সামনের এক মাসে আশা করি আরও বেশি

How-to1

টি-শার্ট ব্যবসা – কিভাবে শুরু করবেন আর কি কি করতে হবে?

কোনো ভনীতা নয়। সরাসরি টপিক এ চলে যাচ্ছি। এই ব্যবসা এ নামতে হলে চোখ কাআন খোলা রাখবেন। ৩ ভাবে শুরু করতে পারেন এই ব্যবসা। ভয় পাবেন না। ১. স্টক এর বানানো টিশার্ট কিনে তাতে প্রিন্ট করিয়েঃ এ ক্ষেত্রে  যা করা হয় তা হল, সলিড বা এক রঙের টিশার্ট কিনে নেয়া হয় কম দামে। অল্প টাকায়

Nwe-business

ই-কমার্স ব্যবসায় করতে চান? বা অন্য কোনো ব্যবসায় শুরু করতে চান?

ই-কমার্স ব্যবসায় করতে চান? বা অন্য কোনো ব্যবসায় শুরু করতে চান? তাহলে নিচের কথা গুলো শুধু আপনার জন্য   ধাপ-১. ক. আপনার পণ্য কি? খ. আপনার পণ্য বা সার্ভিস কিভাবে সবার চাহিদা মেটাতে পারে? গ. আপনার পণ্য বা সার্ভিস এর বাজারে প্রতিদ্বন্দ্বী আছে কি? ঘ. আপনার পণ্য বা সার্ভিস এরপ্রতিদ্বন্দ্বী থাকলে কতজন আছে? ঙ. আপনার পণ্য

“আমরা ব্রেনো.কমকে বাংলাদেশের অন্যতম জনপ্রিয় ই-কমার্স সাইট হিসেবে প্রতিষ্ঠিত করতে চাই”-রাজীব রায়, সিইও, রয়েক্স টেকনোলজিস অ্যাণ্ড ব্রেনো.কম

রাজীব রায় রয়েক্স টেকনোলজিস এবং ব্রেনো.কম এর সিইও। তিনি বিগত আট বছর ধরে দুবাইতে আছেন এবং সেখানে চারটি আইটি ব্যবসা রয়েছে তাঁর। তিনি একজন সফল উদ্যোক্তা। কন্টেট.কম (http://quontent.com) নামে একটি ওয়েবসাইটের জন্যে তিনি ১মিলিয়ন ডলারের বিনিয়োগ যোগাড় করেন। দুবাইয়ের পাশাপাশি বাংলাদেশে তিনি রয়েক্স টেকনোলজিস (www.royex.net) এবং ব্রেনো.কম (www.branoo.com) নামে দুটি সফল ব্যবসা প্রতিষ্ঠান পরিচালনা করছেন।