Free_Design_Tools

আনোয়ার হোসেন

প্রথম পর্ব না পড়ে থাকলে দেখুন এখানে

১৬। স্কিটস

এটি এভারনোটের একটি স্ক্রিন ক্যাপচার প্রোগ্রাম। এটি মার্কেটার ও ডিজাইনারদের জন্য দারুন এক ফ্রি টুল। ব্যবহারকারীরা তাদের পুরনো বা নতুন স্ক্রিন শটে শেপ, এরো, টেক্সট, এবং ডুডল ব্যবহার করে ক্যাপসান দিতে পারেন। আপনি যদি আপনার কাজ করা ইমেজগুলো কোন সংঘঠিত, ক্লাউড বেজড জায়গায় সংরক্ষণ করে রাখতে চান তবে এভারনোট ব্যবহার করতে পারেন, এদের ফ্রি সার্ভিস ও আছে। এভাবনোটে একাউন্ট না থাকলে কোন সমস্যা নেই। কেননা সব ধরনের ক্যাপচারিং, মার্ক আপ, সেভিং, এবং শেয়ারিং ফাংশনের জন্য কোন এভাবনোটে একাউন্টের প্রয়োজন নেই।

ফ্রি ফটো এডিটিং টুলস

১৭। পিক মাঙ্কি

আপনার হয়ত পাওয়ার পয়েন্টে ব্যবহার করার জন্য কিছু ভিজুয়াল কনটেন্ট প্রয়োজন কিন্তু ফটোশপের (যদিও আমরা ফটো শপ বিনা পয়সায় ব্যবহার করতে পারি) জন্য কোন বাজেট নেই, কি করতে পারেন ভাবছেন। আপনি যদি আপনার ইমেজ রি-কালার করতে চান, বর্ডার দিতে চান, টেক্সট যোগ করতে চান, এমনকি গ্রাফিক্স বসাতে চান— এগুলোর সবই আপনি অরো একটি সফটওয়ার ডাউনলোড না করেই করতে পারবেন, পিকমাঙ্কি ব্যবহার করে।

Picmonkey

১৮। বিফানকি

আপনি যদি সুন্দর, ইন্সটাগ্রাম ফটো ফিল্টার খুজে থাকেন তবে আপনি বিফানকিকে অবশ্যই পছন্দ করবেন। এই ফ্রি ফটো এডিটিং টুলটির রয়েছে অসাধারন সব ফিচার যেমনঃ ইফেক্টস, ফ্রেমস, গ্রাফিক্স, এবং টেক্সচার। আপনি একজন ডিজাইনার হন বা না হন এর ইন্টারফেজ খুব সরল একই সাথে সহজেই বোধগোম্য । সাধারন কোন ইমেজকে অসাধারন করতে বা সোশ্যাল মিডিয়াতে কোন কোলাজ শেয়ার করতে আপনার দরকার হবে শুধুমাত্র কয়েকটি ক্লিকের।

BeFunky_Photo_Editor

১৯। ভিএসসি ও কেম এবং ২০। স্নেপ সিড

এগুলো ওয়েব ডিজাইন টুল না হলেও আপনার জন্য খুবই উপকারি কিছু টুল হবে। মনে করুন আপনি একটি অনুষ্ঠানে আছেন, সেখান থেকে অসাধারন একটি ইমেজ নিয়েছেন,যে তা আপনি সোশ্যাল মিডিয়াতে শেয়ার করতে  চাচ্ছেন কিন্তু একটি সমস্যা ছবিটা অন্ধকার দেখাচ্ছে। আপনার সাথে ল্যাপটপ ও নেই। এখন উপায় ? মোবাইল ফটো এডিটিং এপ  ভিএসসি ও কেম এবং স্নেপ সিড দিয়ে আপনি খুব সহজেই ইমেজের পরিবর্তন করে নিতে পারে ঠিক যেমনটি আপনি চান। উভয়ই এপই এন্ড্রইয়েড ও আইওএস এ ফ্রি পাওয়া যায়

ফ্রি স্টক ফটো রিসোরচ

২১। কমফাইট

আপনি যদি সৃস্টিশীল ইমেজ খুজে থাকেন কিন্তু সার্চ ইঞ্জিনে তাদের পেতে গিয়ে নানা রকম জামেলাপূর্ণ প্রক্রিয়ার মধ্য দিয়ে যেতে হয় তবে চেক করে দেখতে পারেন কম ফাইট। কম ফাইট এর একটি এলগোরিদম আছে যার মাধ্যমে সবচেয়ে সুন্দর ইমেজকে সবার উপরে প্রদর্শন করা হয়।

বোনাসঃ এট্রিবিউশান নিয়ে চিন্তা করার কিছু নেই কেননা এটি সয়ংক্রিয়ভাবে এইচটিএমএল কোড জেনারেট করে যেখানে আসল লেখককে ক্রেডিট দেয়া হয় ।

২২। ডেথ টু স্টক ফটো

প্রতি সপ্তাহে আপনি যদি হাই কোয়ালিটি ইমেজ পেতে চান তবে আপনার শুধু একটি ইমেইল এড্রেস থাকলেই হবে। অফিস শট থেকে শুরু করে জিভে জল আনা খাবারের ছবি এই ফ্রি স্টক ফটো সার্ভিসের এক ছবির সংগ্রহ আছে বিশাল যা যে কারো চাহিদা মেটাতে সক্ষম। এই ছবিগুলো ব্যবহার করতে পারেন আপনার ওয়েব সাইটে, সোশ্যাল চ্যানেলে, মক আপে ।

Compfight

২৩। হাব স্পটের স্টক ফটো

আপনি যদি এট্রিবিউট ফ্রি ছবি পেতে চান যা আপনি আপনার ডিজাইনে ব্যবহার করতে চান তাহলে আপনি হাব স্পট এর ফ্রি ইমেজ স্টক দেখতে পারেন। হাব স্পট হাজারো ফ্রি ইমেজ অফার করে যা আপনি যেখানে খুশি ব্যবহার করতে পারেন। তার জন্য যা আপনাকে করতে হবে তা হল শুধুমাত্র ডাউনলোড।

berries

২৪। হাব স্পটের ২৫০ হলিডে স্টক ফটো’স

নিদ্রিস্ট কোন ক্যাটাগরির ছবি যদি আপনি হাবের আগের স্টক থেকে খুজে না পান তবে এখানে দেখতে পারেন। এখানে হলিডে সম্পর্কিত সব ছবি পাওয়া যায় যেমন হোলোয়েন, থ্যাঙ্কস গিভিং, হানুকাহ, ক্রিসমাস, এবং নিউ ইয়ার্স।

২৫। আনপ্লাস

আপনি যেমনটা চান ঠিক তেমন ধরনের ছবি পেতে আন প্লাস এ যেতে পারেন। এখানেও ছবি ব্যবহারের জন্য এট্রিবিউশান দিতে হবে না

UnSplash

ফ্রি ইণ্টার এক্টিভ ডিজাইন টুল

২৬। ইনফোজিআর ডট এম

আপনি যদি খুব সাধারন ধরনের ইনফোগ্রাফিক পছন্দ না করে ইন্টারএক্টিভ ইনফোগ্রাফিক পছন্দ করলে এই অনলাইন ডিজাইন টুলটি চেক করে দেখতে পারেন। এর সাহায্যে আপনি এই প্রোগ্রাম গভীরে না গিয়েও সহজেই গ্রাফ, মানচিত্র, টেক্সট, এবং এমনকি ভিডিও যোগ করতে পারেন।এর ইনফোগ্রাফিকের ডানে আছে সোশ্যাল শেয়ারিং টুলস তাই কাস্টম পিন-ইট বাটন তৈরি করা নিয়ে চিন্তা করতে হবে না।

infogr.am_example

২৭। ইনভিশিন এবং ২৮। মারভেল

আপনার কোন জটিল ডিজাইনের প্রয়োজনে আপনি হয়ত কোন ফটো টাইপ এপ খুজে নিতে পারেন। এটি আপনার ধারনাকে বাস্তবে পরিণত করে দেবে। অনলাইনে ফ্রি অনেক অপসান থাকলেও সহজ ব্যবহার ও কার্যকারিতার দিক দিয়ে আমি বেছে নিয়েছি এই দুটিকে।

অবশ্য ইনভিশিন ফ্রির পাশাপাশি এডভান্স গ্রাহকদের জন্য পেইড সার্ভিসের ব্যবস্থাও রেখেছে ।

ফ্রি ড্রয়িং টুলস

২৯। গুগল ড্রয়িং

মাইক্রোসফটের অদ্ভুদ পেইন্ট ড্রয়িংকে বিদায় বলে পলিসড ও প্রফেশনাল গুগল ড্রয়িংকে হ্যালো বলতে পারেন। আপনার যদি একটি ব্যাক্তিগত জিমেইল একাউন্ট থাকে বা আপনার কোম্পানি যদি গুগল এপ ব্যবহার করে তবে কাস্টম ভিজুয়াল কনটেন্ট বানাতে পারেন।

Google_Drawing

 

তথ্যসুত্রঃ

http://blog.hubspot.com/blog/tabid/6307/bid/33899/13-Free-Design-Tools-for-Visual-Marketers-on-a-Budget.aspx

http://blog.proofhq.com/best-free-design-tools-007309/

https://creativemarket.com/blog/2015/01/26/10-graphic-web-design-tools-that-will-explode-in-2015

1,603 total views, 4 views today

Comments

comments