4344878104_e537b0248b_b

আমাদের যখন নতুন কারো সাথে দেখা হয় আমরা তখন পরস্পর হাত মেলাই। আমরা কোন রেস্টুরেন্টে প্রবেশ করলে কেউ একজন আমাদেরকে একটি টেবিলের দিকে নিয়ে যায়। বাড়িতে গিয়ে মাকে ডাকলে মা সাড়া দেন। এসব আচরণ আমাদের প্রতি অন্যদের আগ্রহ এবং যোগাযোগের ব্যপারটি নিশ্চিত করে। ঠিক একারনেই ৭৪.৪% সাবস্কারাইবাররা কোন নিউজলেটারে সাবস্কাইব করলে প্রত্যাশা করে কেউ তাদেরকে স্বাগতম জানাবে। তারা আপনার প্রতি আগ্রহ দেখায় এবং আশা করে আপনি তাদের প্রত্যাশা অনুযায়ী আচরণ করবেন মানে আপনি ও তাদের প্রতি আগ্রহ দেখাবেন এবং স্বাগতম ইমেইল পাঠাবেন। সেলস ফোরস (http://www.salesforce.com) এর এক রিপোর্টে দেখা গেছে ৪২% কোম্পানি স্বাগতম ইমেইল (welcome email) পাঠিয়ে থাকে। যারা স্বাগতম ইমেইল পাঠায় তারা দাবি করে যে, এ থেকে তারা লাভবান হয়েছেন। তাদের ৭২% ই মনে করেন স্বাগতম ইমেইল খুবই কার্যকর এবং মাত্র ৫% মনে করেন তা থেকে খুব কম সুবিধা পাওয়া যায় বা যায় না। আমার কাছে এই অটোমেটেড ইমেইল এর ভাল মূল্যায়নের পেছনের কারণগুলো নিন্মরুপ বলে মনে হয়ঃ

we_salesforce_report

 

প্রতিটি যোগাযোগই আপনার এবং আর আপনার ব্রান্ডের সাথে সাবস্কাইবারদের সংযোগকে শক্তিশালী থেকে আরো শক্তিশালী করে। এর মাধ্যমে আপনি যেটা করতে পারেন তা হল, সম্ভাব্য ক্রেতাদের সাথে যোগাযোগ নিশ্চিত করা এবং আপনার অনলাইন স্টোরের বিশ্বাসযোগ্যতাকে আরো বাড়ানো। কিছু ক্ষেত্রে আপনি একজন সাবস্কাইবারকে অপ্রত্যাশিত ক্রয় যেমনঃ ডিস্কাউন্ট, ফ্রি ডেলিভারি অথবা আকর্ষণীয় কোন অফার ইত্যাদি দিতে পারেন। আর স্বাগতম ইমেইল পাঠানো আপনার পন্য বা র্ব্যান্ডের সাথে নতুন সাবস্কাইবারদেরকে পরিচিত করে দেবার জন্য একটি দারুন উপায়। এতে করে ক্রেতারা আপনার পণ্য বা সেবার সাথে পরিচিত থাকে এবং একসময় তারা একই ধরনের কোন পণ্য বা সেবা দরকার হলে আপনার কাছ থেকেই কিনে নিবে। আপনি সঠিক সময়ে সঠিক ইমেইলটি পাঠিয়ে একজন সবস্ক্রাইবারের আগ্রহকে ক্রয় ইচ্ছায় পরিণত করতে পারবেন। অন্যকথায় স্বাগতম ইমেইল নতুন একজন ক্রেতাকে প্রথমবারের মত ক্রয় করাতে আইস ব্রেকার হিসাবে কাজ করে। চলুন তাহলে স্বাগতম ইমেইলের আরেকটু গভীরে প্রবেশ করি এবং দেখি এ থেকে আমরা কিভাবে সবচেয়ে ভাল ফল পেতে পারি।
টিপ # ১ স্বাগতম ইমেইল পাঠানো শুরু করুন

আপনার ইমেইল সার্ভিস প্রোভাইডারের সাথে কথা বলে দেখুন যে তাদের অটোমেটেড ইমেইল পাঠানোর কারিগরি সামর্থ্য আছে কিনা। যদি থাকে তাহলে ভাল, আর না থাকলে এরকম সামর্থ্য আছে এমন কাউকে খুজে নিন। স্বাগতম ইমেইল পাঠানো লাভজনক। কারন এটি সেট করতে আপনাকে তেমন সময় ব্যয় করতে হবে না, কিন্তু কোন রকম চেষ্টা ছাড়াই মাস শেষে এটি স্বয়ংক্রিয়ভাবে বিক্রয় নিয়ে আসবে। দেখা গেছে এ ধরণের ইমেইল খোলার হার ৪ গুন এবং ক্লিক করার হার অন্যন্য বিপণনের ইমেইলের তুলনায় ৫ গুন বেশি। ই-কমার্সের ক্ষেত্রে মনে রাখতে হবে প্রতিটি প্রমোশনাল ইমেইল থেকে গড়ে রেভিনিউ আসে ০.০২ ডলার, সেখানে স্বাগতম ইমেইল এর গড় আয় তার ৯ গুন বেশি। মানে ০.১৮ ডলার। আর আপনি যদি এটিকে ভালভাবে অপ্টিমাইজড করতে পারেন তবে আয় হার আরো বেড়ে প্রতি ইমেইলে ৩.৩৬ ডলার পর্যন্ত যেতে পারে । কার্যকরভাবে অপ্টিমাইড করতে ভিন্ন ধরণের কপিরাইটিং , ইন্সেন্টিভ এবং কল টু একশান বাটন যোগ করতে হবে। স্বাগতম ইমেইল সেট করা কঠিন কিছু নয়। আপনি সাউন্ডেস্ট (https://www.soundest.com/) ইমেইল মার্কেটিং টুলে একটি মাত্র ক্লিকেই এই ফিচারটি সচল করতে পারবেন। এরপর আপনি যদি ঠিক বুজতে না পারেন যে, ইমেইলের বডিতে কি লিখবেন, তাহলে ইমেইল সার্ভিস প্রভাইডারদের ডিফ্লট স্বাগতম ইমেইল ব্যবহার করতে পারেন।

we_chart1
টিপ # ২ একটির বদলে সিরিজ স্বাগতম ইমেইল পাঠান।

সাবস্ক্রাইবারদেরকে স্বাগতম জানাতে ইমেইল মার্কেটিং টুলগুলোর একাধিক বিকল্প থাকে। যেমনঃ আপনি চাইলে একটি স্বাগতম ইমেইল না পাঠিয়ে সিরিজ স্বাগতম ইমেইল পাঠাতে পারেন। একক ইমেইলের চেয়ে সিরিজ ইমেইল আরো বেশি কার্যকর পন্থা। যেসব ক্রেতা প্রথম ইমেইল পাবার পর ক্রয় করেছেন তাদের কাছে আর দ্বিতীয় ইমেইল যাবে না। আপনি এ ধরনের ইমেইলগুলোকে সৃজনশীলতার সাথে ব্যবহার করতে পারেন। যেমনঃ আপনি আপনার ব্রান্ড ও প্রতিটি ক্যাটাগরি আলাদাভাবে পরিচিত করিয়ে দিতে পারেন। সম্ভাব্য ক্রেতাদের সাথে আরো বেশি যোগাযোগের প্রত্যাশা করতে হবে, তাদেরকে ইনসেন্টিভ দিতে হবে এবং তাদেরকে সে ইনসেন্টিভ সম্পর্কে কয়েকবার মনে করিয়ে দিতে হবে। এখন প্রশ্ন আসতে পারে একটি সিরিজে কতটি ইমেইল পাঠাতে হবে? সেটা হতে পারে ৩-৫ টি। আপনি যদি ক্রয় ইন্সেটিভ ব্যবহার করেন তবে তিনটিই যথেষ্ট। আপনি যদি পণ্য বা ব্রান্ডের বিস্তারিত জানাতে চান তবে পাঁচটি ইমেইল পাঠাতে পারেন। মাছ ধরার গিয়ার বিক্রি করে অস্ট্রেলিয়ার এক কোম্পানি কয়েক মাসে ৪,৬০০ নতুন সাবস্ক্রাইবার পান। প্রথম ইমেইল থেকে তারা ১০৮ টি অর্ডার পায়। দ্বিতীয় ইমেইল থেকে ৩৫ টি এবং তৃতীয় ইমেইল থেকে পান ২৮ টি। তারমানে তারা পুরো ইমেইল সিরিজ থেকে মোট ১৭১ টি নতুন ক্রেতা পায় যা একক ইমেইল থেকে ৩৬.৮% বেশি। আপনি যদি ঠিক করে ফেলেন যে, ইমেইলে কি লিখবেন। তবে এবার সময় ঠিক করার পালা। মানে কখন পাঠাবেন কারন ইমেইল পাঠাবার সময় খুবই গুরত্বপুর্ন একটি বিষয়। আপনি সারা সপ্তাহ জুরে ইমেইল পাঠাতে পারেন না। প্রথম ইমেইলটি আপনার সাইটে ভিজিটর সাইন আপের পর পরই পাঠাতে পারেন, দ্বিতীয়টি তার কয়েক দিন পর পাঠান, এবং সর্বশেষটি পাঠান রেজিস্ট্রেশন করার ছয় বা সাত দিন পর। খুব বেশি বা খুবই ঘন ঘন ইমেইল পাঠাবেন না। তাতে করে লাভ কিছু হবে না , যা হবে তা হল আপনার নতুন সবস্ক্রাইবাররা আনন্সাবস্ক্রাইব করবে। আপনার বিক্রয় চক্র যদি ৪৮ ঘণ্টা হয় ( সাধারনত লোকেরা বেশি মুল্যের জিনিসপত্র যেমন টিভি, ফ্রিজ, হলিডে ট্রিপ কিনতে বেশি সময় নেয় ) তাহলে আপনি ইমেইল পাঠাবার ভিন্ন ভিন্ন সময় চিন্তা করতে পারেন। কখনো কখনো শেষ ইমেইলটি এক মাস পর ও পাঠাতে পারেন।

we_chart3-copy
টিপ # ৩ : আলাপচারিতামূলক একটি ইমেইল বিষয় নির্বাচন করুন

সাবস্ক্রাইবাররা যেন কোনটি প্রমোশনাল ইমেইল আর কোনটি স্বাগতম ইমেইল তা খুব সহজেই বুজতে পারে। মনে রাখতে হবে তারা আপনার প্রতি আগ্রহী বলেই সাবস্ক্রাইব করেছেন, তাই আপনার উচিত হবে তাদেরকে সঠিক মর্যাদা দেয়া। তবে আপনি নতুন সাবস্ক্রাইবারদেরকে অন্যান্য জিনিসের প্রতিও আগ্রহ বাড়াতে ভুমিকা রাখবেন। যেমনঃ বিষয়টি হতে পারে এমন “সাবস্ক্রাইব করার জন্য আপনাকে ধন্যবাদ। আপনার জন্য উপহার ভেতরে ” অথবা “আমাদের কমিউনিটিতে স্বাগতম। আপনাকে পেয়ে আমরা আনন্দিত।” একটি প্রি হেডারও ব্যবহার করুন। প্রিহেডারে কোন ইনসেন্টিভ বা উপহারের কথা ঘোষণা দিতে পারেন। আর একটা ব্যাপার কোন বিষয় বা প্রিহেডার নিয়ে পরীক্ষা নিরীক্ষা করতে ভীত হবেন না।

crocs
টিপ # ৪ সিটিএ বাটনের দিকে ভালভাবে নজর দিতে হবে
নতুন ক্রেতারা বেশি বেশি ক্লিক করে থাকে। আপনি এর সুবিধা নিতে পারেন। সিটিএ বাটনটাকে যেন সাবস্ক্রাইবারদেরকে খুজে নিতে হয়। বাটনটি হতে হবে উজ্জ্বল, সহজেই চোখে পরে এবং একি সাথে এর অবস্থান হতে হবে সবচেয়ে ভাল জায়গায়। যেহেতু আমি এ লেখাতে আরো বেশি ক্রয়কে উৎসাহিত করছি তাই আপনার বাটনটি হতে পারে এমন “কিনুন আজই”, “কিনে নিন এখনই” বা “আজকের জন্য বিশেষ ছাড়!”।
টিপ # ৫ ইমেইলের ইনসেন্টিভ ব্যবহার করুন
আপনার সবাস্ক্রাইবার হয়ে লোকে আপনার ব্রান্ডের প্রতি তাদের আগ্রহকে প্রকাশ করেছে। এ উপলক্ষে আপনি তাদেরকে ছোট কোন উপহার, ডিস্কাউন্ট বা ফ্রি ডেলিভারি সুবিধা দিয়ে প্রথম ক্রয়ের দিকে নিয়ে যেতে পারেন।
উদাহরণ ১

we_michaels
নিচের ছবিতে দেখুন , তারা তাদের স্বাগতম ইমেইলে তাদের ব্রান্ডের সাবস্ক্রাইবার হয়েছে বলে ধন্যবাদ জানিয়েছে। এবং সবাস্ক্রাইবার হবার সুবিধা কি বলেছে আর সবস্ক্রাইবারদেরকে ২০% ছাড় ঘোষণা করেছে।

we_funnel
টিপ # ৬ স্বাগতম ইমেইল আপনার নিয়মিত প্রমোশনাল ইমেইলের সাথে কত টুকু খাপ খায় ভেবে দেখুন
একটি স্বাগতম ইমেইল কোন একটি প্রমোশনাল ইমেইল ক্যাম্পেইন শুরুর আগে সাবস্ক্রাইবারদেরকে পুরো ব্রান্ডের সাথে পরিচয় করিয়ে দেয়। এক্ষেত্রে আপনাকে একই ধরনের ব্রান্ড রং, ফন্ট, স্টাইল এবং ইমেজ ব্যবহার করতে হবে যেন ধারাবাহিকতা না হারিয়ে যায়। অনেক লোকেরদের ক্ষেত্রে দেখা গেছে ভিজুয়াল মেমরি ভাল কাজ করে এবং তা যাকিছু তারা চোখে দেখে তার সাথে জড়িত। তাই স্বাগতম ইমেইলের ভাল ইম্প্রেশন তাকে আপনার প্রমোশনাল ইমেইল খুলতে উৎসাহিত করবে।
টিপ # ৭ যোগাযোগ রাখার জন্য ক্রেতাদেরকে উৎসাহিত করুন
যোগাযোগ থাকাটা ব্যবসায়ে সফল হবার অন্যতম শর্ত। তাই আপনি আপনার স্বাগতম ইমেইলে সাবস্ক্রাইবারদেরকে আপনার ব্রান্ডকে অনুসরণ করতে, সামাজিক মাধ্যামে ভক্ত হতে উৎসাহিত করবেন।
আজকের দিনে, অটোমেশন ছাড়া সফল ইমেইল মার্কেটিং বাস্তবায়ন করা সম্ভব না। শুরু থেকে ক্রেতাদের সাথে সংযুক্ত থাকার অনেক ভাল একটি উপায় হল স্বাগতম ইমেইল পাঠানো।

তথ্যসুত্রঃ

১। https://www.bigcommerce.com/blog/7-tips-to-increase-welcome-email-marketing-engagement-and-effectiveness/

২। https://community.spiceworks.com/topic/1451420-7-tips-to-increase-welcome-email-marketing-engagement-and-effectiveness

৩। https://shopifystorepro.com/top-tips-to-increase-your-welcome-email-marketing-value/

৪। https://www.campaignmonitor.com/blog/email-marketing/2015/09/10-essential-elements-of-an-effective-welcome-email/

914 total views, 6 views today

Comments

comments