সিনোভা এন ভি

322

সিনোভা এন ভি (Cnova N. V.)বিশ্বের বৃহত্তম ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান গুলোর একটি। গত বছরের মে মাসে নেদারল্যাণ্ডে এটি প্রতিষ্ঠা করা হয়। ফ্রান্সের বিখ্যাত রিটেইলার প্রতিষ্ঠান ক্যাসিনো গ্রুপ সিনোভাকে নিয়ন্ত্রণ করে। ২০১৪ সালে ফ্রান্সের জনপ্রিয় ই-কমার্স সাইট সি ডিসকাউন্ট এবং ব্রাজিলের নোভা পন্টোকম মার্জ করে সিনোভা হয়। সিনোভার প্যারেন্ট কম্পানিগুলোর ই-কমার্সের যে ব্যবসা এবং ই-কমার্স অবকাঠামো ছিল সেগুলো সব সিনোভা এন.ভি এর  আওতায় নিয়ে আসা হয়। বর্তমানে সিনোভা এন.ভি. বিশ্বের অন্যতম বৃহৎ ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান গুলোর একটি। আমার আজকের ব্লগ পোস্ট সিনোভাকে নিয়ে।

প্রতিষ্ঠানের নাম: সিনোভা এন ভি (Cnova N. V.)(সি ডিসকাউন্টের “সি” এবং নোভা পন্টোকম এর “নোভা”)

ওয়েবসাইট: http://cnova.com/

হেডকোয়ার্টার: আইন্ডহোভেন, নেদারল্যাণ্ডস

স্থাপিত: ২০১৪

ব্যবসার আকার: ৪.৫ বিলিয়ন ইউরো। (http://www.groupe-casino.fr/en/activities/cnova/)

ওয়েবসাইট সংখ্যাসিনোভার মোট ২২টি ই-টেইল ওয়েবসাইট রয়েছে।

সিনোভার বাজার:

ফ্রান্স এবং ব্রাজিল সিনোভার মূল বাজার। এ দুটি দেশ ছাড়াও বিশ্বের ১১টি দেশে সিনোভার সাবসিডিয়ারী আছে। অন্যান্য দেশগুলো হলো- কলোম্বিয়া, ইক্যুয়েডর, থাইল্যাণ্ড, ভিয়েতনাম, আইভরি কোস্ট, সেনেগাল, ক্যামেরুন, বার্কিনা ফাসো, বেলজিয়াম, পানামা।

  • জেনারেল ব্র্যাণ্ড:
    • সিডিসকাউন্ট ডট কম: www.cdiscount.com/
      • বাজার: ফ্রান্স, ব্রাজিল, কলোম্বিয়া, ইক্যুয়েডর, থাইল্যাণ্ড, ভিয়েতনাম, আইভরি কোস্ট, সেনেগাল, ক্যামেরুন, বার্কিনা ফাসো, বেলজিয়াম, পানামা।
      • মূল পণ্য: কম্পিউটার, কঞ্জ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্স, হোম অ্যাপ্লায়েন্স, হোম ফার্নিশিং।
    • এক্সট্রা ডট কম ডট বিআর:  www.extra.com.br/
      • বাজার: ব্রাজিল
      • মূল পণ্য: কম্পিউটার, কঞ্জ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্স, হোম অ্যাপ্লায়েন্স, বিভিন্ন মোবাইল ডিভাইস।
      • বিবরণঃ ২০১৪ সালে এটি ব্রাজিলের সেরা ই-কমার্স সাইট মনোনীত হয়। বর্তমানে ব্রাজিলে এটি চতুর্থ বৃহত্তম রিটেইলার ব্র্যাণ্ড।
    • কাসাসবাহিয়া ডট কম ডট বিআর: www.casasbahia.com.br/
      • বাজার: ব্রাজিল
      • মূল পণ্য: কম্পিউটার, কঞ্জ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্স, হোম অ্যাপ্লায়েন্স, হোম ফার্নিশিং, বিভিন্ন মোবাইল ডিভাইস
      • বিবরণ: বর্তমানে ব্রাজিলের এক নম্বর রিটেইলার ব্র্যাণ্ড এবং দেশটির “টপ অব মাইণ্ড” ই-কমার্স ব্র্যাণ্ড।
    • পনটোফ্রিও ডট কম ডট বিআর: www.pontofrio.com.br/
      • বাজার: ব্রাজিল।
      • মূল পণ্য: কম্পিউটার, কঞ্জ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্স, হোম অ্যাপ্লায়েন্স, বিভিন্ন মোবাইল ডিভাইস।
      • বিবরণ: টুইটারে এটি ব্রাজিলের এক নম্বর ব্র্যাণ্ড এবং ষষ্ঠ সেরা রিটেইলার ব্র্যাণ্ড।
  • স্পেশালটি ব্র্যাণ্ড:
    • কম্পটোয়ার সান্টে ডট কম: www.comptoirsante.com/
      • বাজার: ফ্রান্স
      • মূল পণ্য: হেলথ এবং বিউটি প্রডাক্টস।
    • মনকর্ণার ডেকো ডট কম: www.moncornerdeco.com/
      • বাজার: ফ্রান্স
      • মূল পণ্য: বিলাসবহুল হোম ডেকোরেটর।
    • মনশোরুম ডট কম: www.monshowroom.com/
      • বাজার: ফ্রান্স
      • মূল পণ্য: এটি প্রিমিয়াম ফ্যাশন ওয়েবসাইট। এরা জামা-কাপড় বিক্রী করে থাকে।
    • মনকর্ণার ব্রিকো ডট কম: www.moncornerbrico.com/
      • বাজার: ফ্রান্স
      • মূল পণ্য: এ ওয়েব সাইটটি ঘরের বিভিন্ন কাজ নিজে নিজে করা যায় (Do It Yourself) এ ধরণের পণ্য বিক্রী করে। যেমন- ঘরের জিনিসপত্রের ছোটখাট মেরামত বা বিভিন্ন জিনিস পরিস্কার।  এছাড়াও এ ওয়েবসাইটে বিভিন্ন টিউটোরিয়াল এবং টিপস আছে।
    • মনকর্ণার বেবি ডট কম: www.moncornerbaby.com/
      • বাজার: ফ্রান্স
      • মূল পণ্য: এটি বাচ্চা ও মায়েদের পণ্যের প্রিমিয়াম ওয়ান-স্টপ সাইট।

 সিনোভা সম্পর্কে আরো কিছু তথ্য:

  • বিক্রীর দিক থেকে সিনোভা বৈশ্বিক ই-কমার্সে ষষ্ঠ বৃহত্তম।
  • এক কোটি ৩৬ লক্ষ সক্রিয় ক্রেতা আছে (ডিসেম্বর ২০১৪ এর তথ্য অনুসারে) যারা বিগত ১২ মাসে একবার সিনোভার ওয়েবসাইট থেকে পণ্য ক্রয় করেছে।
  • ওয়েবসাইটের মাধ্যমে এক কোটি ৪০ লক্ষের বেশি বিভিন্ন ধরণের পণ্য বিক্রী করে থাকে।
  • ২০১৪ সালেই সিনোভার ওয়েবসাইট গুলোতে তিন কোটি ১৭ লক্ষ অর্ডার পড়েছে।
  • আয়ের দিক থেকে ব্রাজিলে সিনোভা দ্বিতীয় বৃহত্তম ই-কমার্স প্রতিষ্ঠান।
  • ফ্রান্সে সিনোভা ই-কমার্স মার্কেট লিডার। অনলাইনে হোম অ্যাপ্লায়েন্স, কঞ্জ্যুমার ইলেক্ট্রনিক্স, আইটি পণ্যের বাজারে সিনোভা অপ্রতিদ্বন্দ্বী।
  • ২০১৪ সালে সিনোভার ওয়েবসাইটে ৯৩০কোটি (৯.৩ বিলিয়ন)  পেইজ ভিউ আসে।
  • ২০১৪ সালে মাসিক গড় ভিজিটর ছিল ৪ কোটি ৯৮ লক্ষ।
  • মোবাইল কমার্সেও সিনোভা ব্যাপক অগ্রগতি লাভ করেছে। সিনোভার বিভিন্ন মোবাইল অ্যাপ্লিকেশন ৪৫ লক্ষ বার ডাউনলোড করা হয়েছে।
  • ২০১৪ সালে সিনোভার ওয়েবসাইট ট্রাফিকের ২৬% এসেছে মোবাইল ডিভাইস থেকে।
  • ডিসেম্বর ২০১৪ পর্যন্ত সিনোভার অনলাইন মার্কেটপ্লেস সেলার সংখ্যা ছিল ৭১০০।
  • অনলাইনে পণ্য বিক্রীর পাশাপাশি সিনোভার ই-হাব নামে একটি থার্ড পার্টি ই-কমার্স সল্যুশন আছে।

প্রাথমিক গণ প্রস্তাবনাঃ

গত বছরে যুক্তরাষ্ট্রের শেয়ার বাজারে সিনোভা তাদের প্রাথমিক গণ প্রস্তাবনা ছাড়ে। গত বছরের জুনে প্রতিষ্ঠানটি ইউ এস সিক্যুরিটিজ এক্সচেঞ্জ কমিশন-এ তাদের আইপিও এর জন্যে কাগজপত্র জমা দেয়। নভেম্বরে নিউইয়র্ক স্টক এক্সচেঞ্জে তাদের শেয়ার বেচাকেনা শুরু হয়। সিনোভা ২ কোটি ৬৮ লক্ষ সাধারণ শেয়ার ছাড়ে।

২০১৫ প্রথম প্রান্তিকের ব্যবসাঃ 

এ বছরের প্রথম প্রান্তিকে সিনোভার নেট সেল হয় ৯১৫.৫ মিলিয়ন ইউরো। গত বছরের প্রথম প্রান্তিকে প্রতিষ্ঠানটির নেট সেল ৭৭৭.৪ মিলিয়ন ইউরো। নেট সেলস বৃদ্ধি পেয়েছে ১৭.৮%।

প্রথম প্রান্তিকে প্রতিষ্ঠানটি অনলাইনে ১.২৪৮ বিলিয়ন ইউরোর পণ্য বিক্রী করে। একে বলা হয়ে গ্রস মার্চেন্ডাইজ ভ্যালু (জিএমভি)। গত বছরে জিএমভি ৯৭৩.৭ মিলিয়ন ইউরো। জিএমভি বৃদ্ধি পেয়েছে ২৮.২%।

প্রথম প্রান্তিকের গ্রস প্রফিট ১১৩.২ মিলিয়ন ইউরো। ২০১৪ এর প্রথম প্রান্তিকে গ্রস প্রফিট ছিল ৯৬.২ মিলিয়ন ইউরো।

মোবাইল ডিভাইসের মাধ্যমে সিনোভার ওয়েবসাইটগুলোতে প্রচুর ভিজিটর আসে এবং পণ্যও বিক্রী হয়। এখানে প্রথম প্রান্তিকে মোবাইল ট্রাফিকের চার্ট দেয়া হলো-

1

Source: http://cnova.com/_/media/Files/C/Cnova/reports-and-presentations/investor-presentation-may-2015-v2.pdf

২০১৫ দ্বিতীয় প্রান্তিকের ব্যবসাঃ

দ্বিতীয় প্রান্তিক জিএমভি ছিল ১১৫৪ মিলিয়ন ইউরো। ২০১৪ এর দ্বিতীয় প্রান্তিকে জিএমভি ছিল ৯৬৭.৮ মিলিয়ন ইউরো। বৃদ্ধির হার ২৫.৮%।

দ্বিতীয় প্রান্তিকে নেট সেলস ছিল ৮৩৭ মিলিয়ন ইউরো গত বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে নেট সেলস ছিল ৭৫৫.৯ মিলিয়ন ইউরো। বৃদ্ধির হার ১৭.৫%

দ্বিতীয় প্রান্তিকে ওয়েব ট্রাফিক ছিলে ৩৯৬ মিলিয়ন। গত বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে ট্রাফিক ছিল ২৮৫.২ মিলিয়ন।

ট্রাফিকে মোবাইল ডিভাইসের শেয়ার ৩৬.৯% গত বছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে এ হার ছিল ২৪.৭%।

ডেলিভারি নেটওয়ার্ক উন্নয়নঃ

ক্রেতাদের আরও ভাল সেবা দেবার জন্যে এবং দ্রুত পণ্য ডেলিভারি দেবার জন্যে সিনোভা তাদের নিজস্ব ডেলিভারি নেটওয়ার্ক সৃষ্টি করেছে এবং আকার বৃদ্ধি করেছে। এ বছরে তাদের ডেলিভারি নেটওয়ার্কেও প্রতিষ্ঠানটি বিনিয়োগ করেছে। সিনোভার প্যারেন্ট কম্পানি ক্যাসিনো গ্রুপ একটি রিটেইল প্রতিষ্ঠান এবং অনেক জায়গায় তাদের স্টোর আছে। এসব স্টোরকে সিনোভার পিক-আপ-পয়েন্ট হিসেবে ব্যবহার করা হয়। একই সাথে বিভিন্ন জায়গায় ফুলফিলমেন্ট সেন্টার তৈরি করা হয়।

2

ফ্রান্সে সিনোভার ক্লিক অ্যান্ড কালেক্ট পিক-আপ পয়েন্ট

সিনোভার “ক্লিক অ্যাণ্ড কালেক্ট” প্রোগ্রামের মাধ্যমে ক্রেতারা অনলাইনে ক্রয় করে স্থানীয় স্টোর থেকে তাদের ক্রয়কৃত পণ্য সংগ্রহ করতে পারে। প্রথম কোয়ার্টারের বিক্রীর ৭০% “ক্লিক অ্যাণ্ড কালেক্ট” প্রোগ্রামের মাধ্যমে ডেলিভারি দেয়া হয়। গত বছরের জুলাই থেকে এ বছরের জুলাই এর মধ্যে সিনোভা ৩৬০০ “ক্লিক অ্যাণ্ড কালেক্ট” ডেলিভার পিক-আপ পয়েন্ট সৃষ্টি করেছে।

এ বছরের প্রথম ছয়মাসে সিনোভা ওয়্যারহাউজ নির্মাণ করেছে। সামনের মাস গুলোতে তারা ফ্রান্সের প্যারিস এবং লিয়নে একই দিনে হোম ডেলিভারি দিতে পারবে।

সূত্রঃ

ইন্টারনেট রিটেইলার (১)

ইন্টারনেট রিটেইলার (২)

রয়টার্স

ক্যাসিনো গ্রুপ

নাসড্যাক এসইসি ফাইলিং

http://hugin.info/166629/R/1917017/685697.pdf

http://cnova.com/pdf/PR20150710.pdf

লেখকঃ এস এম মেহদি হাসান

Comments

comments

No Comments

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *