সফল ভাবে বিজনেস করতে যা করবেন

1020
article-cover

আপনি কি চান সেটা না, ক্রেতা কি চায় সেটা করুন

প্রথমেই ঠিক করেন কি নিয়ে বিজনেস করবেন। এটা খুব গুরুত্বপূর্ণ একটা বিষয়। এখানে আপনাকে ক্রেতা কি চায় সেদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে, আপনি কি চান সেটার থেকে বেশি। তাই বিভিন্ন ওয়েবসাইট, ফেসবুক গ্রুপ, পেজে দেখেন তাদের কি সমস্যা, কিভাবে সমাধান করতে চাচ্ছে সেটা প্রোডাক্ট হতে পারে সার্ভিস হতে পারে। কি ওয়ার্ড রিসার্চ করে দেখে নিতে পারেন মানুষ বেশি কি সার্চ করে শুধু মাত্র অন্য একজন কিছু করছে সেটা চিন্তা করে আপনি ও সেটা করা শুরু করলেন এটা বোধয় ঠিক হবে না

কিভাবে লিখবেন আপনার সেল পোস্ট

  • হেডিংটা আকর্ষণীয় হতে হবে
  • বিস্তারিত ভাবে লিখতে হবে আপনি যেটা বিক্রি করছেন সেটা সম্পর্কে
  • আপনার কাছ থেকে কেনো সে কিনবে, আপনি তাকে অরিজিনাল প্রোডাক্ট দিবে সেটার কি ভরশা সেটা নিশ্চিত করুন
  • আপনার প্রোডাক্ট অথবা সার্ভিস কিনলে ক্রেতা কিভাবে উপকৃত হবে
  • বিভিন্ন ধরনের অফার দেন
  • গ্যারান্টি দিতে পারেন

কেমন হবে আপনার ওয়েবসাইট

আপনি ফেসবুক পেজের মাধ্যমে ও শুরুতে কাজ করতে পারেন, সে ক্ষেত্রে প্রোফাইল ফটো, কাভার ফটো আর অন্যান্য জিনিস যেন মানসম্মত হয় সেটা নিশ্চিত হবে। আর ওয়েবসাইট বানিয়ে নিলে আরো ভালো।লক্ষ্য রাখবেন এগুলির উপর

  • সেটা খুব নরমাল ডিজাইন এ করার চেষ্টা করবেন যেমন সাদা রঙের ব্যাকগ্রাউন্ড, দুইটার বেশি ফন্ট না,
  • রঙ ক্ষেত্রে ও তাই
  • সব থেকে গুরুত্বপূর্ণ হচ্ছে মানুষ যেন ওয়েবসাইট সহজ ভাবে চালাতে পারে, ওয়েবসাইট এ ঢুকে সে যদি না বুঝতে পারে কিভাবে কি করতে হবে তাহলে আপনি ক্রেতা হারাবেন।
  • কোন একজায়গায় ইমেইল অ্যাড্রেস নেন ক্রেতার যেটা আপনার পরবর্তীতে মার্কেটিং এর জন্য কাজে লাগবে
  • আপনার পণ্য অথবা সার্ভিস এর অ্যাড ফেসবুক অথবা গুগল এ দেন। তাহলে সেখান থেকে আপনি ক্রেতা পাচ্ছেন। এখানে কি ওয়ার্ড রিসার্চ ভালো মত করবেন এবং ব্যবহার করবেন তাহলে আপনি টার্গেট করা দর্শক পাবেন আর ফেসবুক অ্যাড এর ক্ষেত্রে অবশ্যই আপনার ক্রেতা বুঝে টার্গেট করবেন

ফ্রি সার্ভিস দেয়ার চেষ্টা করেন

ফ্রি কিছু রাখার চেষ্টা করেন, যেমন আপনার হয়তো আইটি ট্রেনিং সেন্টার আছে, আপনি সেখানে ফি ডাউনলোড এর কিছু রাখতে পারেন যেখানে বিভিন্ন সফটওয়্যার, ভিডিও ইত্যাদি থাকবে।আপনার বিজনেস এর ধরন অনুযায়ী সিদ্ধান্ত নেন যে আপনি কিভাবে উপকারিতা মুলক ফ্রি সার্ভিস দিতে পারবেন। এরকম লিঙ্ক অনেক শেয়ার হয় তাই আপনার ওয়েবসাইট অনেক মানুষের কাছে এটা আশা করা যায়

 

ইমেইল অ্যাড্রেস এর মাধ্যমে মার্কেটিং করুন

আপনি আপনার ক্রেতার কাছ থেকে অথবা ভিজিটরের কাছ থেকে যে ইমেইল অ্যাড্রেস পেয়েছেন সেটা ব্যবহার করেন। এখন ফেসবুক অ্যাড এর ক্ষেত্রে অনেকেই এটা ব্যবহার করছে এবং এখানে সফলতা পাওয়ার সম্ভাবনা অনেক বেশি থাকে কারন এখানে ক্রেতা আপনাকে চিনে, ক্রেতা হয়তো কোন না কোন ভাবে আপনার কাছ থেকে উপকার পেয়েছে।

 

পুরানো ক্রেতা ধরে রাখুন

যারা একবার আপনার কাছ থেকে কিনেছে তারা যেন পরবর্তীতে কিনে সেভাবে কাজ করেন। তাই প্রথম সেলের সার্ভিস যেন অনেক ভালো হয় সেটা লক্ষ্য রাখুন, পণ্যের ম্যান থেকে শুরু করে ডেলিভারি সার্ভিস। আর ফেসবুক অ্যাড এ তাদের মোবাইল অথবা ইমেইল অ্যাড্রেস দিয়ে দেন তাহলে তারা আপনার পরের অ্যাডটা দেখতে পাবে আর আপনার সার্ভিস যদি তার ভালো লাগে সে কিনবে আপনার কাছ থেকে।

 

আরিফুল ইসলাম

Comments

comments

About The Author


আমি আরিফুল ইসলাম, বর্তমানে স্কলারস ইন্সটিটিউট এ আছি হেড অফ গ্রাফিক ডিজাইন এবং ডিজিটাল মার্কেটিং এ। লেখালিখি করতে ভালো লাগে, জেনেসিস ব্লগ এ লিখি গ্রাফিক ডিজাইন, আউটসোর্সিং ইত্যাদি বিষয়ে। এক বছর ধরে ফেসবুক মার্কেটিং, ভিডিও মার্কেটিং নিয়ে পড়াশুনা করছি, বেশ ভালো ও লাগছে, চেষ্টা থাকবে যা জানবো সেগুলি নিয়ে লিখতে। e-Cab কে অনেক ধন্যবাদ আমাকে এখানে লেখার সুযোগ করে দেয়ার জন্য। আশা করি ভালো কিছু লেখা দিতে পারবো।

No Comments

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *