ফেসবুক মার্কেটিং এর ৭টি দারুন টিপস

2040

পোস্ট এর সময় অনেক গুরুত্বপূর্ণ

আপনার বিজনেস এর ধরন, ক্রেতা ইত্যাদির উপর নির্ভর করে ফেসবুক এর পোস্ট এর সময় অনেক গুরুত্বপূর্ণ, একজন ছাত্র আর একজন গৃহিণী এক ই সময়ে ফেসবুক এ আসবে না এটা খুব সাধারন ব্যাপার, তাই আপনি কাদের জন্য বিজনেস করছেন, আপনার ক্রেতা কারা এবং তারা কোন সময়ে ফেসবুক এ থাকতে পারে সেটা চিন্তা করে ফেসবুক এ পোস্ট দেন। এর মধ্যে কিছু কমন ব্যাপার আছে যেমন বৃহস্পতিবার রাতে, শুক্রবার এ, দুপুর ১-৩ টা এই সময় গুলোতে ভালো রেসপন্স পাওয়া যায়, আপনি বিভিন্ন সময়ে পোস্ট দিয়ে দেখতে ও পারেন আপনার পোস্ট এর এঙ্গেজমেন্ট কোন সময়ে ভালো হয়।

 

শুধু লেখা না দিয়ে  সাথে ছবি দেন

আপনি এ কথা হয়তো অনেক শুনে থাকবেন যে ছবি দিলে অনেক বেশি রেপন্স পাওয়া যায় ইত্যাদি ইত্যাদি। আসলেই তাই, ছবিতে ৫৩% বেশি লাইক পড়ে এবং ৮৪% বেশি লিঙ্ক এ ক্লিক পড়ে। কিছু ছবি পোস্ট এর আইডিয়া

– রিয়াল মানুষ এর ছবি পোস্ট করেন

– ফেসে ফোকাস করেন

– প্রোডাক্ট এর ছবির থেকে মানুষের ছবি দিলে ভালো হয়

– ইমেজ গ্যালারী ও দিতে পারেন

– আপনার নিজের ক্রিয়েটিভিটি কাজে লাগান আরো কত কিছুই তো আছে

 

ফেসবুক এ কন্টেস্ট এর আয়োজন করেন

আপনাকে চিন্তা করতে হবে মানুষ কেন আপনাকে লাইক দিবে অথবা কমেন্ট দিবে, এখানে কন্টেন্ট এর একটা ব্যাপার তো আছেই আর একটা ব্যাপার হচ্ছে কন্টেস্ট আয়োজন করেন, এখানে ব্যাপারটা হচ্ছে যেহেতু আপনি মানুষ ওরকম ভাবে আনতে পারছেন না তাহলে কন্টেস্ট আয়োজন করেন, একটা পুরুষকার ঘোষণা করেন তাহলে অনেকেই সেই কন্টেস্ট এ অংশ নেয়ার জন্য আপনার পেজে যাবে, কমেন্ট করবে লাইক করবে আর ফেসবুক এর টাইমলাইনে সামনে থাকার একটা বড় ব্যাপার হচ্ছে লাইক আর কমেন্ট, তবে অর্থহীন, বিরক্তিকর পোস্ট দিয়ে কমেন্ট দিন লাইক দিন এরকম কিছু করবেন না আশা করি।

 

প্রশ্ন করেন, উত্তর নেন

কন্টেস্ট এ যেমন আপনি একটা ভালো রেসপন্স পাচ্ছেন ঠিক এক ই ভাবে রেসপন্স পেতে পারেন বিভিন্ন রকম প্রশ্ন করে, তবে এখানে ও শুধু লাইক আর কমেন্ট এর জন্য অর্থহীন কিছু না দিয়ে যে উত্তরগুলো পেলে আপনার জন্য সুবিধা হবে পরবর্তীতে আপনার পেজকে আরো উন্নত করার সেরকম প্রশ্ন করে উত্তর নেয়ার চেস্টা করেন।

 

পেজে অ্যাড দেন

যদিও এখানে কিছু বিতর্ক কিছু আছে যে ফেসবুক অ্যাড এর মাধ্যমে আসলেই পেজের ব্র্যান্ড করা যায় কিনা। এখানে আমার উত্তর হলো অবশ্যই করা যায় তবে শুধু মাত্র অ্যাড এর উপর নির্ভর করে নয়। অ্যাড ফেসবুক বিজনেস এর একটা পার্ট, হার্ট না। ফেসবুক অ্যাড আপনাকে শুধু মানুষ এর কাছে পৌঁছে দিবে এখন কথা হচ্ছে পৌঁছে তো গেলেন কিন্তু তাদের কাছে প্রেসেন্ট করবেন কিভাবে? ধরেন আপনি আপনার একটা সিভি দিয়ে জবের জন্য ইন্টারভিউ দিতে গেলেন লুঙ্গি আর আর গেঞ্জি পড়ে তাহলে কি লাভ হবে, সেই জব কি আপনি পাবেন। ফেসবুক এর কাজ অনেকটা এরকম, আপনাকে সে ইন্টারভিউ বোর্ড নিয়ে যাবে কিন্তু বাকি কাজ কিন্তু আপনার। তাই শুধু ফেসবুকের অ্যাড এর উপর নির্ভরশীল না হয়ে পেজের মান বাড়ানোর দিকে গুরুত্ব দেন।

 

ফেসবুক ইনসাইট দেখুন

ফেসবুকের আরএকটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হলো ফেসবুক ইনসাইট। এটা কি? অনেক কিছু আসলে, ছোট করে যদি বলি তাহলে ব্যাপারটা হলো এরকম যে আপনার পেজে কারা আসে, কারা লাইক দেয়, কোন দেশের অথবা কোন এলাকার মানুষ লাইক দেয়, তাদের বয়স কেমন এগুলি সব আপনি জানতে পারবেন। যেমন আপনি বিজনেস করছেন আর আপনার টার্গেট হচ্ছে ১৮-৩০ বছরের ছেলেদের, কারন আপনার প্রোডাক্ট হচ্ছে ছেলেদের, আপনি কিন্তু ফেসবুক ইনসাইট থেকে জেনে নিতে পারবেন আসলেই আপনার টার্গেট ফুলফিল হচ্ছে কিনা, যদি হয় তাহলে ভালো, না হলে আপনি ব্যাবস্থা নিতে পারবেন। তাই এটা ফেসবুক মার্কেটিং এর জন্য চমৎকার একটা ফ্রি টুল।

নতুন কিছু পোস্ট করেন

উপরের পয়েন্টগুলো থেকে আশা করি পেয়ে গেছেন কারা হবে আপনার টার্গেট কাস্টোমার, এখন হচ্ছে তাদের মধ্যে উৎসাহ তৈরি করা, কেন সে আপনার প্রোডাক্ট কিনবে, কেন সে অন্য কারো কাছে যাবে না ইত্যাদি ইত্যাদি, এখানে আপনি অবশ্যই আপনার টার্গেট কাস্টোমার এর চাহিদার কথা চিন্তা করে পোস্ট দিবেন, আপনি বিক্রি করবেন টি শার্ট, তাহলে আপনার বেশির ভাগ কাস্টোমার ই থাকবে ছেলে এবং কম বয়সের ছেলে তাহলে সেখানে যদি আপনি রূপচর্চার পোস্ট দেন তাহলে সেটা কেমন হয়? তাই চিন্তা করেন তাদের কিভাবে দৃষ্টি আকর্ষণ করবেন, তারা কি পছন্দ করে, মটরবাইক, কার, গেমস, মোবাইল ইত্যাদি এগুলি বিষয় নিয়ে তথ্য ভিত্তিক, মাঝে মাঝে মজার পোস্ট দেন।মানুশ আপনার পেজকে জানুক, চিনুক, এরপর আপনি সেলের জন্য পোস্ট দেন আশা করি হতাশ হবে না।

 

আরিফুল ইসলাম

 

Comments

comments

About The Author


আমি আরিফুল ইসলাম, লেখালিখি করতে ভালো লাগে, জেনেসিস ব্লগ এ লিখি গ্রাফিক ডিজাইন, আউটসোর্সিং ইত্যাদি বিষয়ে। এক বছর ধরে ফেসবুক মার্কেটিং, ভিডিও মার্কেটিং নিয়ে পড়াশুনা করছি, বেশ ভালো ও লাগছে, চেষ্টা থাকবে যা জানবো সেগুলি নিয়ে লিখতে। e-Cab কে অনেক ধন্যবাদ আমাকে এখানে লেখার সুযোগ করে দেয়ার জন্য। আশা করি ভালো কিছু লেখা দিতে পারবো।

No Comments

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *