২৫ টি কৌশল কিভাবে নিশ প্রোডাক্ট খুঁজে বের করবেন

2351
২৫ টি কৌশল কিভাবে নিশ প্রোডাক্ট খুঁজে বের করবেন

২৫ টি কৌশল কিভাবে নিশ প্রোডাক্ট  খুঁজে বের করবেন  

(এ লেখাটি কনটেন্টএভার ফেসবুক পেজেতে  আলোচনা করা হবে । )

এখানে আলোচনা করা হলো ২৫ টি কৌশল কিভাবে নিশ প্রোডাক্ট  খুঁজে বের করবেন  । ই-কমার্স ব্যবসায় কি প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করবেন  তা বাছাই এবং বিশ্লেষণ করে বের করতে হলে একজন ই-কমার্স ব্যবসায়ীকে বেশ কিছু আইডিয়া কিংবা কৌশল অবলম্বন করতে হবে ।

কি থাকবে সেই কৌশলে যা একজন ব্যবসায়ীকে তার ব্যবসা করার ক্ষেত্রে বিভিন্ন প্রোডাক্ট বাছাই করতে সহায়তা করবে ? আপনি আপনার ক্রেতার কাছে কি ধরণের প্রোডাক্ট বিক্রি করতে চান তা জানতে হবে , এবং আপনার সাইটের ক্রেতারা আপনার অনলাইন সাইট থেকে কি কিনতে চায় সেই প্রোডাক্টগুলো নিয়ে আপনার কাজ করতে হবে ।

 

ক্রেতা কি চায় , ক্রেতার জন্যে কি প্রোডাক্ট রাখবেন , কি নিশ প্রোডাক্ট এখন বাজারে চলছে ভালো এবং কি প্রোডাক্ট রাখলে আপনার বিক্রি বাড়বে সেই কৌশলগুলো বের করেই আপনার প্রোডাক্ট বাছাই করতে হবে ।

১।প্রতিদিনের প্রয়োজন

আমাদের দৈনন্দিন জীবনে আমরা আসলে আমাদের জীবনকে সহজ করতে কি রকম প্রোডাক্ট প্রতিনিয়ত ব্যবহার করছি , সেই প্রোডাক্টগুলোর বিষয়ে খেয়াল রাখতে হবে। কি রকম প্রোডাক্ট ছাড়া আমরা এক মুহূর্ত চলতে পারছিনা , সেই প্রোডাক্টগুলো খুঁজে বের করে সেই প্রোডাক্টগুলো বিক্রি করতে হবে ।

২। সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইট

সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটগুলোতে পর্যবেক্ষণ করতে হবে। ফেসবুক ,টুইটার এর মতন সাইটগুলোতে মানুষ এই মুহূর্তে কোন বিষয় কিংবা কোন প্রোডাক্ট নিয়ে আলোচনার ঝড় তুলছে এবং বিভিন্ন গ্রুপে  কোন প্রোডাক্ট এর প্রয়োজন বেশি বলে খুঁজে বেড়াচ্ছে , সেইদিকে লক্ষ্য রাখতে হবে । এতে কোন আপনি সহজে বুঝবেন মানুষের আসলে কি ধরণের প্রোডাক্ট দরকার এবং প্রয়োজন বেশি।

৩। বিভিন্ন ই-কমার্স ওয়েবসাইট ভিজিট

চেনাজানা , দেশি –বিদেশি বিভিন্ন ই-কমার্স সাইটগুলো ভিজিট করুন । সেখানে দেখেন কোন প্রোডাক্টগুলো নিয়ে সেই সাইটের ক্রেতারা সবচেয়ে বেশি রিভিউ দিচ্ছে এবং আলোচনা করছে । আবার কোন প্রোডাক্টগুলোর সামনে ভালো সম্ভাবনা আছে তা সম্পর্কেও ধারণা পেয়ে যাবেন অন্য ই-কমার্স সাইট ভিজিট করায় ।

৪।কিওয়ার্ড রিসার্চ

বিভিন্ন অনলাইন কিওয়ার্ড রিসার্চ পেইড টুল ব্যবহার করতে পারেন। এতে করে আপনার কি উপকার হবে ? এতে করে আপনি বিভিন্ন দেশে কোন কোন প্রোডাক্ট এর সার্চ ভলিউম বেশি এবং কোন প্রোডাক্ট মানুষ বেশি অনলাইনে খুঁজছে এবং কিনছে তা জানবেন । কোন কোন প্রোডাক্ট কিওয়ার্ড এর বেশি চাহিদা এবং কোনটির চাহিদা কম , তা পর্যবেক্ষণ করা যাবে সহজে এবং কোন প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করবেন তার ব্যাপারে সিদ্ধান্ত নিতে পারবেন । গুগল কিওয়ার্ড প্ল্যানার , কিওয়ার্ড রিভেলার , লংটেইল প্রো এর মতন বেশকিছু অনলাইন টুলস ব্যবহার করে সহজেই ধারণা পাওয়া যাবে ।

৫।পত্রিকা পড়ুন

নিয়মিত পত্রিকা পড়তে থাকুন, এতে করে অনেক নতুন বিষয়ের প্রোডাক্ট এর খোঁজ খবর পাবেন , যা নিয়ে আপনি হয়ত এতদিন কাজ করার কথা চিন্তা করেননি । বিভিন্ন বিজ্ঞাপন কিংবা বিভিন্ন খবরে আপনি খুঁজে পাবেন নতুন কোন প্রোডাক্ট এর খবর ।

 

৬।নিজস্ব চিন্তা

আপনার নিজস্ব কিছু পছন্দের প্রোডাক্ট অবশ্যই আছে ।  আপনার পছন্দের বিষয় কি , আপনি কি ধরণের প্রোডাক্ট এর খবর নিজে জানেন তা নিয়েই প্রথমে আপনি আপনার ই-কমার্স ব্যবসা শুরু করতে পারেন এবং এরপর আরও অনেক প্রোডাক্ট এর বিষয় নিয়ে কাজ করার আইডিয়া আপনি নিজে নিজেই বের করতে পারবেন সেই প্রোডাক্ট এর সাথে সম্পর্কিত নতুন বিভিন্ন প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করে ।

৭।বিভিন্ন মানুষের পোস্ট পড়ুন

পরিচিত এবং অপরিচিত বিভিন্ন মানুষের পোস্ট পড়তে পারেন । এতে করে কি হবে ? হয়ত আপনি ভাবছেন সময় নষ্ট , কিন্তু সেই পোস্টগুলো থেকেও আপনি খোঁজ পেতে পারেন নতুন কোন অজানা প্রোডাক্ট এর খোঁজ যা হয়ত আপনার পুরো ব্যবসা ভালো করে দিবে । যেই প্রোডাক্ট আপনার ক্রেতারা অনেক পছন্দ করবে , তাই মানুষের পোস্ট পড়তে পারেন এবং এটাও গুরুত্বপূর্ণ একটা উৎস আপনার নতুন প্রোডাক্ট এর খোঁজ পাওয়ায় ।

 

৮।বিভিন্নজনের কমেন্ট পড়ুন

বিভিন্ন সময় আমরা অনেক বিখ্যাত মানুষের পোস্ট পড়ি অনলাইনে , কিন্তু একটা গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে যে , সেই পোস্টে অনেকেই কমেন্ট করে যা আমরা এড়িয়ে যাই এবং পড়িনা , কিন্তু সেই কমেন্টগুলোতেও থাকতে সম্ভাবনাময় কোন প্রোডাক্ট এর খবর ।

৯।কমিউনিটি এবং ফোরাম

অনলাইনে বিভিন্ন কমিউনিটি এবং ফোরামে নিয়মিত ঘুরতে থাকুন । অনেক মানুষ সেখানে লেখে এবং বিভিন্ন আইডিয়া শেয়ার করে । সেই আইডিয়াগুলো অনেক গুরুত্বপূর্ণ, তা থেকে আপনার প্রয়োজনীয় প্রোডাক্ট এর খোঁজ পেতে পারেন । Quora এর মতন প্রশ্ন উত্তরের সাইট থেকেও অনেক তথ্য পেতে পারেন ।

১০। চারপাশ ঘুরে বেড়ান

দেশে এবং বিদেশে আপনার পক্ষে যতটুকু ঘুরা সম্ভব ঘুরেন। এখানে সেখানে অনেক অজানা প্রোডাক্ট ছড়িয়ে ছিটিয়ে আছে , যা আপনার ক্রেতার খুব পছন্দ হতে পারে । সেই  প্রোডাক্টগুলো খুঁজে বের করুন এবং তা নিয়ে ব্যবসায় কাজ করতে শুরু করুন । বিভিন্ন মার্কেটে ঘুরতে পারেন , এতে করে  অনেক তথ্য প্রোডাক্ট বিষয়ে পাবেন ।  আপনি কতটা চেষ্টা করছেন প্রোডাক্ট খুঁজে বের করতে তার উপর নির্ভর করছে আপনার ব্যবসা । রাস্তার কোন পোস্টার কিংবা বিজ্ঞাপন , অথবা কোন এলাকা হতে পারে আপনার জন্যে নতুন কোন প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করার আইডিয়ার উৎস । তাহলে এখনই শুরু করতে পারেন চারপাশটা আবিষ্কার করা এবং আবিষ্কার করুন আপনার সাইটের জন্যে নতুন প্রোডাক্ট ।

১১।সার্চইঞ্জিন গুগল এবং বিং সাজেশন

সার্চইঞ্জিনে বিভিন্ন সময় আমরা সার্চ দিয়ে থাকি বিভিন্ন প্রোডাক্ট এর খোঁজ খবর নিতে , এর ফলে নতুন আরও নতুন বেশকিছু প্রোডাক্ট এর খোঁজখবর আমরা পেয়ে যাই যা নিয়ে কাজ করার কথাই ছিলোনা । এজন্যে গুগল কিংবা অন্যান্য সার্চইঞ্জিনগুলোতে আপনার বিচরণ থাকতে হবে , এতে করে নতুন অনেক তথ্য আপনি পাবেন ।

১২।  বিভিন্ন কনফারেন্স

বিভিন্ন কোনফারেন্স একজন ব্যবসায়ীর জন্যে অনেক গুরুত্বপূর্ণ । এখন ইন্টারনেট প্রযুক্তির যুগ এবং এ সময়ে কনফারেন্সগুলোতে থাকে প্রযুক্তির ছোঁয়া এবং এতে অংশগ্রহণকারী অনেক মানুষের আলোচনা উঠে আসে নতুন প্রযুক্তির প্রোডাক্ট এর অনেক খবর যা আপনার ব্যবসায়ের প্রোডাক্ট খুঁজে বের করতে অনেক সহায়ক ভূমিকা রাখবে ।

১৩। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান

শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে আমরা বিভিন্ন বিষয়ে শিক্ষা লাভ করে থাকি । একজন মানুষের মানুষ হয়ে ওঠার প্রথম শুরুটা পরিবার হলে এরপর আসে তার শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের বিষয় । আপনার শিক্ষক , বন্ধু এবং অন্যান্য সহপাঠীদের থেকেও আপনি কিছু শিখতে ও জানতে পারেন । সেখান থেকেও উঠে আসতে নতুন কোন বিষয়ভিত্তিক প্রোডাক্ট এর ধারণা ।

১৪।বইপত্র

মানুষের জীবনের প্রয়োজনীয়  একটা অংশ বই । অনেক কিছু প্রতিনিয়ত আমরা শিখছি বই থেকে । একজন মানুষ একজন ব্যবসায়ীর শুরুটা হয় চারপাশ এবং বই থেকে । মানুষ আসলে কি চাচ্ছে এবং কি চায় না সবকিছুর একটা সমন্বয়ের অংশ বই । বইয়ের মাধ্যমে সকলে অনেক কিছু জানে এবং শিখে থাকে । এতে করে আপনার পছন্দের বিষয় নিয়ে কাজ করার ধারণা পাওয়া হয় ।

১৫। ব্লগ এবং অনলাইন শেয়ারিং সাইট

বর্তমান সময়ের অনলাইনে আলোচিত একটা বিষয় ব্লগ । ব্লগে বিভিন্ন বিষয় নিয়ে অনেকে লেখালিখি করে থাকে , এতে যেমন পোশাক ফ্যাশন নিয়ে আলোচনা হয় ঠিক তেমনি আলোচনা হয় আমাদের দৈনন্দিন জীবন নিয়ে । ইউটিউবের মতন ভিডিও শেয়ারিং সাইট এবং ব্লগে বিচরণের কারণে একজন ই-কমার্স ব্যবসায়ী বর্তমান সময়ের বিভিন্ন খোঁজখবর যেমন পাবেন তেমনি পাবেন মানুষ আসলে কি চায় তার কিছু আলোচনা । Pinterest এর মতন সাইটগুলো এবং ব্লগের এই খোঁজখবর এবং আলোচনা বিষয়গুলোর সমন্বয় থেকে একজন ই-কমার্স ব্যবসায়ী ধারণা পেতে পারেন নতুন প্রোডাক্ট তৈরি এবং ভিন্ন কিছু নিয়ে কাজ করার আইডিয়া ।

 

১৬।কাস্টমার রিভিউ এবং ইন্টারভিউ

আপনি যাদের কাছে অনলাইনে প্রোডাক্ট বিক্রি করছেন সেই মানুষদের কাছ থেকে রিভিউ নেয়ার চেষ্টা করুন এবং তাদের ইন্টারভিউ নিতে পারেন নতুন ধারণা তৈরি করতে । এতে করে আপনার কাস্টমাররা নতুন কি প্রোডাক্ট চাচ্ছে কিংবা তাদের কি প্রোডাক্ট আসলে ভালো লেগেছে কেনাকাটা করে তা জানাবে। এতে করে আপনার ব্যবসায়ে কোন প্রোডাক্টগুলো বেশি গুরুত্বপূর্ণ এবং কোন প্রোডাক্টগুলো নিয়ে কাজ করা উচিত তা আপনি জানতে পারবেন ।

১৭।মার্কেট ডিমান্ড

মার্কেটে কোন প্রোডাক্ট এ মুহূর্তে ক্রেতারা কেনার ব্যাপারে সবচেয়ে আগ্রহী , কোন প্রোডাক্ট এর বাজার চাহিদা বেশি সেটা পর্যবেক্ষণ করে প্রোডাক্ট বাছাই করা যায় । এতে করে খুব সহজে কম সময়ে কোন প্রোডাক্ট বাজারে বিক্রি করা যায় তা জানা যাবে ।

১৮। টিভি চ্যানেল

টিভিতে  বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন রকম অনুষ্ঠান হয় , নাটক হয়, এছাড়া বিভিন্ন ধরণের টিভি বিজ্ঞাপন

হয় প্রতিনিয়ত । প্রতিটা টিভি বিজ্ঞাপন বা অনুষ্ঠানে কিছু বিষয় আপনার কাছে নতুন মনে হতে পারে । নতুন কোন একটা প্রোডাক্ট এর খোঁজ কিংবা আইডিয়া পেয়ে যেতে পারেন কয়েক সেকেন্ডের একটি বিজ্ঞাপনের মাঝে । হয়ত আপনি ভাবছেন , বিজ্ঞাপন যে প্রোডাক্ট এর দিচ্ছে সেটাতো অনেক জনপ্রিয় এবং সবাই জানে সেই প্রোডাক্ট এর ব্যাপারে । তাহলে কেনো সেই প্রোডাক্ট নিয়ে চিন্তা করবো ?

উত্তর হচ্ছে – আমি আপনাকে সেই প্রোডাক্ট নিয়ে চিন্তা করতে বলছি না , কিন্তু সেই প্রোডাক্ট এর বিজ্ঞাপনে আপনি আরও কিছু প্রোডাক্ট আশেপাশে দেখবেন বিজ্ঞাপনে এবং সেটাই হতে পারে আপনার জন্যে নতুন এবং অতীব দরকারি একটা ব্যবসার প্রোডাক্ট । তাহলে , নিশ্চয় বুঝছেন যে কিভাবে আপনি একটি প্রোডাক্ট এর বিজ্ঞাপন থেকে কিভাবে আরেকটি নতুন প্রোডাক্ট খুঁজে বের করছেন । এইরকম করেই বিভিন্ন বিষয়ে আপনি পেতে পারেন নতুন প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করার আইডিয়া ।

১৯। অনলাইন এবং অফলাইন জরিপ

অনলাইন এবং অফলাইনে করতে পারেন বিভিন্ন রকম জরিপ । কি রকম হতে পারে সেই জরিপগুলো ?

বিভিন্ন অনলাইন সোশ্যাল নেটওয়ার্কিং সাইটে করতে পারেন অনলাইন জরিপ , তা থেকে বেরিয়ে আসতে পারে নতুন কোন প্রোডাক্ট এর খবর কিংবা কোন প্রোডাক্ট এর চাহিদা বেশি সেই তথ্য । সেই তথ্য উপাত্তগুলো থেকেই আপনি চিন্তা করতে পারবেন যে কোন প্রোডাক্ট নিয়ে আপনি কাজ করবেন এবং কি রকম প্রোডাক্ট তৈরি করা দরকার ক্রেতার কাছে যেতে , যাতে করে বাজার আপনি পেতে পারেন । অফলাইন জরিপ হতে পারে বিভিন্ন প্রতিষ্ঠানের মাধ্যমে । সেখানে কাজ করতে পারে আপনার ই-কমার্স প্রতিষ্ঠানের কর্মীরা , যারা জরিপ করবে দেশের মানুষ আসলে কোন প্রোডাক্ট বেশি ব্যবহার করছে এবং কোন প্রোডাক্ট এর চাহিদা বেশি । এতে কোন প্রোডাক্ট এর চাহিদার সম্ভাবনা সামনে বেশি এরও একটা আইডিয়া পেয়ে যাবেন ।

২০। বিভিন্ন কুইজ

কুইজ প্রতিযোগিতা অনলাইনে অনেক জনপ্রিয় , এটি হতে পারে আপনার প্রোডাক্ট  এর আইডিয়া এবং বাজারে কোন প্রোডাক্ট এর চাহিদা বেশি , চাহিদা ক্রমাগত বাড়ছে কোন প্রোডাক্ট , কোন প্রোডাক্ট সম্ভাবনাময় তা জানার উপায় । এতে করে কুইজে অংশগ্রহণ করে আপনারই সম্ভাবনাময় ক্রেতা আপনার প্রোডাক্ট এর খবর দিবে , তাতে করে নির্দিষ্টভাবে আপনি আপনার ক্রেতার জন্যে অনলাইনে প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করতে পারবেন আর ক্রেতাও তার প্রোডাক্ট সহজে নিজের দরকার অনুযায়ী আপনার সাইট থেকে কিনবে ।

২১।দেশ-বিদেশের আলোচনা

দেশ-বিদেশ নিয়ে বিভিন্ন সময় বিভিন্ন রকম আলোচনা আমাদের আশেপাশে হয়, এতে করে দেখা দেয় নতুন কিছু সম্ভাবনা । কি রকম হতে পারে সেই সম্ভাবনা ? সেই সম্ভাবনা হচ্ছে প্রোডাক্ট এর চাহিদা বৃদ্ধি , নতুন প্রোডাক্ট এর প্রয়োজন , ফ্যাশন এর সাথে পারিপার্শ্বিক অবস্থা মিলিয়ে নতুন কিছু তৈরির প্রয়োজন । এভাবে করে নতুন প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করার সম্ভাবনা বাড়ে এবং আপনি পাবেন নতুন একটি প্রোডাক্ট এর দরকার , তা নিয়েই আপনার ব্যবসা পরিবর্তনের জন্যে হতে পারে ভালো একটা প্রোডাক্ট ।

২২। উৎসব এবং চলচ্চিত্র

বিভিন্ন রকম উৎসব হয় সমাজে , সেই উৎসবগুলো ঘিরে তৈরি হতে নতুন প্রোডাক্ট এর বাজার এবং পুরনো প্রোডাক্ট ঘিরে আরও কিছু নতুনত্ব তৈরি হতে পারে যা আপনার ব্যবসার জন্যে নতুন প্রোডাক্ট এর আইডিয়া নিয়ে আসবে । তাহলে কি উপকার হবে ? আপনি নতুন প্রোডাক্ট নিয়ে নতুন আশা নতুন সম্ভাবনা নিয়ে এগিয়ে যেতে পারবেন । আর আমাদের জীবনে আমরা চলচ্চিত্র দেখি সেখানে বিভিন্ন প্রোডাক্ট এর খবর পেয়ে যেতে পারেন , যা আপনার জানা নয় । এভাবেই প্রোডাক্ট নিয়ে কাজ করার সম্ভাবনা এবং নতুন প্রোডাক্ট এর খোঁজ আপনি পাবেন ।

২৩। প্রতিযোগিতামূলক বিভিন্ন ক্যাম্প

বিভিন্ন প্রতিযোগিতামূলক ক্যাম্পে আপনি জরিপ করলে কিংবা প্রতিযোগিতা কিংবা কন্টেস্ট চলাকালীন সময় দেখবেন কিছু প্রয়োজন পরছে মানুষের কিন্তু যেই বিষয়গুলো আমাদের কাছে খুব গুরুত্ব পাচ্ছেনা , সেখানেও কিছু নতুন প্রোডাক্ট এর খোঁজ এসে যেতে পারে।

 

২৪। মেলা এবং অনুষ্ঠান

মেলা কিংবা কোন অনুষ্ঠান কিংবা অনেক মানুষের ভিড়ে কিছু প্রোডাক্ট চাহিদা কম কিন্তু আলোচনা আসছে লক্ষ্য করা যায় , যেগুলোর বাজার এই মুহূর্তে খুব একটা নেই কিন্তু সামনে এই প্রোডাক্টগুলোর প্রয়োজন এবং চাহিদা অনেকগুণ বেড়ে যাবে সেক্ষেত্রে সেই প্রোডাক্টগুলো নিয়ে আপনি কাজ শুরু করতে পারেন । এতে করে আপনার ই-কমার্স সাইটের জন্যে যেমন কিছু নতুন প্রোডাক্ট পাওয়া হবে ঠিক তেমনি সঠিকভাবে প্রচার প্রচারণার মাধ্যমে আপনার ব্যবসার মার্কেট তৈরি হবে ।

 

২৫। বিভিন্ন সময় ভিত্তিক

বছরের বিভিন্ন সময়ে বিভিন্ন ঋতুতে বিভিন্ন রকম প্রোডাক্ট এর দরকার কম বেশি হয় । কখনো বেশি দরকার পরে কিছু প্রোডাক্ট এর , কখনো বেশি দরকার পরেনা । বর্ষাকাল ,শীত এবং গ্রীষ্মকালে একেক সময়ে একেক প্রোডাক্ট কিংবা পণ্যের প্রয়োজন বেশি হয় । এতে করে বাজারে সেই মুহূর্তে কিছু নির্দিষ্ট সংখ্যক পণ্যের চাহিদা বেড়ে যায় । কি ধরণের পণ্যের চাহিদা কোন সময়ে বাড়ে তা এনালাইসিস করে নতুন প্রোডাক্ট , সম্ভাবনাময় প্রোডাক্ট এবং প্রয়োজনীয় প্রোডাক্ট এর তালিকা তৈরি করা যায় ।

২৫ টি কৌশল কিভাবে নিশ প্রোডাক্ট  খুঁজে বের করবেন   তা বলা হল !

প্রশ্ন এবার আপনার কাছে ! ! ! ! এভাবে কি কখনো আপনি প্রোডাক্ট বাছাই করেছেন ? ? ? ? ?

_______

কনটেন্ট রাইটারNazmul Hasan Majumder

For Facebook profile : Click here   

FOR FACEBOOK PAGE : CONTENTEVER

 

 

 

Comments

comments

About The Author



Hey, My name is Nazmul Hasan Majumder . I'm passionate about writing & Seo Analyst, love to work on Animation & Web Development. All time, I usually try to up to date on tech stuff & E-Commerce industry,especially on marketing strategy & software of online world. You can join me on Facebook : https://www.facebook.com/nazmulhasanmajumder