(এটি একটি অনুবাদ এবং এর সঙ্গে আসলে ই-কমার্স এর কোন ধরনের সম্পর্ক নেই। তবে কাস্টমার সন্তুষ্টি ই-কমার্স এর বেলাতে অনেক বেশি গুরুত্বপূর্ণ একটি বিষয়।)

একবার একজন ট্যাক্সি ড্রাইভার কাস্টমার এর প্রত্যাশা ও সন্তুষ্টি (customer satisfaction and expectation) সম্পর্কে মিলিয়ন ডলার সমমানের এক শিক্ষা প্রদান করে। অনুপ্রেরণা দানকারী বক্তারা কর্পোরেট এক্সিকিউটিভ ও স্টাফদের এ ধরনের শিক্ষা দেবার জন্য হাজার হাজার ডলার চার্জ করে। আর এ শিক্ষা পেতে আমাকে সেই ট্যাক্সি ভ্রমণের জন্য মাত্র ১২ ডলার খরচ করতে হয়েছিল।

এক ক্লায়েন্টের সঙ্গে দেখা করার জন্য আমি বিমানে করে ডালাসে যাই। আমার হাতে সময় একবারে কম ছিল এবং চিন্তা করছিলাম যে এয়ারপোর্ট থেকে একটি ট্যাক্সি নিয়ে ক্লায়েন্টের সঙ্গে দেখা করে আবার সঙ্গে সঙ্গে এয়ারপোর্টে ফিরে আসবো। একটি ঝকঝকে তকতকে ট্যাক্সি এসে আমার সামনে দাঁড়াল।

ট্যাক্সির ড্রাইভার খুব দ্রুততার সঙ্গে তার সীট থেকে বের হয়ে আমার জন্য পেছনের দরজা খুলে দিয়ে আমি যেন আরামে বসতে পারি তা নিশ্চিত করলো। আবার ড্রাইভারের আসনে ফেরত আসার পর আমাকে বিনয়ের সঙ্গে জানালো যে আমার সামনে ওয়াল স্ট্রিট জার্নালের (পত্রিকা) কপি আছে পড়ার জন্য। কয়েকটি গানের টেপ (ক্যাসেট) দেখিয়ে আমার কোনটা পছন্দ তাও জানতে চাইল।

আমি চারদিকে টেলিভিশনের ক্যান্ডিড ক্যামেরা অনুষ্ঠানের ক্যামেরা ও লোকজনের জন্য তাকালাম। “আমার জায়গায় হলে, আপনিও কি তাই করতেন না?” যে ধরনের সেবা আমি পাচ্ছিলাম একজন ট্যাক্সি প্যাসেঞ্জার হিসেবে তা বিশ্বাস করতে কষ্ট হচ্ছিল। আমি তাকে বললাম, “আপনি অনেক গর্বের সঙ্গে আপনার পেশায় কাজ করছেন। বলার মত নিশ্চয়ই কোন গল্প আছে।“

তিনি উত্তর দিলেন, “অবশ্যই আছে। আমি একটি কর্পোরেট প্রতিষ্ঠানে কাজ করতাম। কিন্তু একসময় সে কাজে ক্লান্তি ধরে গেল এই দেখে যে সামর্থ্যের সেরা প্রচেষ্টা দিলেও তা বসদের জন্য যথেষ্ট সন্তোষজনক ছিল না। তাই চিন্তা করলাম যে এমন কোন কাজ করবো যাতে আমি আমার সেরা প্রচেষ্টা নিয়ে নিজের কাছে অন্তত গর্ব অনুভব করতে পারি।

আমি জানতাম যে আমার পক্ষে রকেট সায়েন্টিস্ট হওয়া সম্ভব নয় তবে গাড়ি চালাতে আমার খুব ভাল লাগতো। আরও ভাল লাগতো প্রতিদিন মানুষের সেবা করতে এবং মন দিয়ে নিজের কাজ করতে। আমি আমার নিজের ব্যক্তিগত সম্পদের অবস্থা নিয়ে কিছুটা চিন্তা করলাম এবং এরপর একজন ট্যাক্সি ড্রাইভার হিসেবে কাজ শুরু করে দিলাম।

কাজে নেমে একটা বিষয় খুব ভাল মতই উপলব্ধি করলাম। আমার প্যাসেঞ্জাররা আমার থেকে যা প্রত্যাশা করে তা করতে পারলে আমি আমার পেশায় ভাল করবো বা সফল হবো। কিন্তু আমার কাজে অসাধারণ বা দারুন সাফল্য পেতে হলে আমাকে আমার কাস্টমারদের প্রত্যাশার থেকেও কিছু বেশি দিতে হবে। তাই সাধারন মানের সাফল্যতে থেমে না থেকে আমি আমার কাজে সেরা হতে চাই।’”

তাকে কি আমি বেশ ভাল টিপস (বখশিশ) দিয়েছিলাম? অবশ্যই। কর্পোরেট আমেরিকা একজন দক্ষ কর্মীকে হারালেও আমাদের মত ভ্রমণকারীরা একজন ভাল বন্ধু পেয়েছে।

A Million Dollar Lesson

by Petey Parker

মূল লেখার লিংকঃ http://www.inspire21.com/stories/businessstories/a_million_dollar_lesson

অনুবাদঃ রাজিব আহমেদ

লেখিকা পরিচিতিঃ পিটেই পার্কার দীর্ঘ দিন কর্পোরেট জবে থাকার পর নিজেই একটি কনসালটেন্সি কোম্পানি খোলেন কয়েক বছর আগে। তার সম্পর্কে জানতে চাইলে এ লিংকে ক্লিক করুনঃ http://www.peteyparker.com/mediakit.pdf

তিনি আমেরিকার অনেক বড় কোম্পানির কর্মীদের জন্য সেমিনার, কনসালটেন্সি করে থাকেন এবং তাদের কাজের প্রতি অনুপ্রেরণা বৃদ্ধির জন্য নানা ধরনের প্রশিক্ষন দেন। তার তিনটি বই প্রকাশিত হয়েছে। তার সম্পর্কে বলতে গেলে একেবারেই কিছুই জানি না তবে তার একটা কথা খুব মনে ধরেছেঃ

When Good isn’t Good enough, go for great.

এ গল্পের শিক্ষণীয় বিষয়ঃ যা ভাল লাগে সেই কাজ করুন এবং ফাঁকি না দিয়ে আনন্দের সঙ্গে ভাল লাগার কাজটি করুন।

4,485 total views, 3 views today

Comments

comments

You are not authorized to see this part
Please, insert a valid App IDotherwise your plugin won't work.

Your email address will not be published.