ই ক্যাব কে যেখানে দেখতে চাই ই ক্যাব তার থেকে ও অনেক বড় হবে- রাজিব আহমেদ

462

রাজিব আহমেদ স্যার আমাদের যেতে বলেছিলেন ৪টায়, ঠিক ৪টায় আমরা উপস্থিত, গিয়ে দেখলাম ই ক্যাব এর অফিসের রুম একদম মানুষে ভরপুর, মাঝখানে বসে আছেন রাজিব আহমেদ স্যার। আমরা ঢুকতেই স্যার বললেন সবার সামনে চলে আসতে, গিয়ে বসলাম প্রথম লাইন এ।

আমাদের ব্লগ টেক প্রো টিউনস থেকে একটা ইন্টারভিউ নেয়ার উদ্দেশে যাওয়ার হয়েছিলো সেদিন। অনেক কথা হলো ই ক্যাব নিয়ে। ই ক্যাব শুরু কথা, কি চিন্তা করে ই ক্যাব শুরু সেটা, কেমন ছিলো প্রথম দিন গুলো, অনেক বাঁধা পেরিয়ে আজকে ই ক্যাব এর এ জায়গায় আসা আরো অনেক কিছু নিয়ে খোলামেলা আলোচনা করেছেন স্যার ওদিন।

শুরুর গল্প জানতে চাওয়ার পর রাজিব আহমেদ বললেন

“২০১৪ সালে ই কমার্স এর বেশ কিছু প্রতিষ্ঠান অথবা লোক মনে করে যে ই কমার্স এর আলদা একটা এসোসিয়েশন হলে সুবিধা হয়” সাথে আরো বললেন “কোম্পানিকে তেমন কেউ বিশ্বাস করে না তাই একটা সংগঠন হলে ভালো হয় সেখান থেকে ই ২০১৪ সালের জুনের ৫ তারিখে আমরা  ঠিক করলাম একটা সংগঠন করে ফেলবো”

 

সে সময় একদম ই সহজ ছিলো না ই ক্যাব এর যাত্রা, সেটা নিয়ে ও বলেছেন রাজিব আহমেদ, অনেকে ই চায় নি এরকম একটা সংগঠন চালু হোক তারপর ও ই ক্যাব এর যাত্রা বন্ধ হয় নি, রাজিব আহমেদ বলেন “সংগঠন না থাকলে অনেক অনিয়ম এবং সমস্যা দেখা দিবে, তাই এটা নিয়ে কাজ করার জন্য একটা ঐক্যবদ্ধ সংগঠন থাকা দরকার।”

৩ বছর পূর্তি হবার অল্প কিছুদিন পর ই আমরা গিয়েছিলাম তাই জানতে চেয়েছিলাম ৩ বছরের অর্জন, ই ক্যাব এর প্রসার হয়েছে মুলত ৩য় বছরে এসে, প্রথম বছর বিভিন্ন স্বীকৃতি পেতে, ২য় বছরে আস্তে আস্তে মেম্বার আসতে শুরু করেছে আর ৩ বছর শেষে ই ক্যাব এর মেম্বার ৭১০ জন, যেটা যে কোন সংগঠনের সব থেকে কম সময়ে সব থেকে বেশি সাফল্য বলে রাজিব আহমেদ মনে করেন। তিনি বলেন

“ব্যর্থতা সফলতা দুইটাই ই আছে তারপর ও আমরা মনে করি আমাদের যে মৌলিক উদ্দেশ্য ছিলো ই কমার্স কে একটা আলাদা সেক্টর হিসেবে গড়ে তোলা, ই কমার্স এ যারা কাজ করছে তাদের একত্রিত করা, বেসরকারি প্রতিষ্ঠানের মুখপাত্র হিসেবে সকারের সাথে কাজ করা সবগুলাতেই আমরা ১০০% সফল।”

 

আরো ৩ বছর পর ই ক্যাব কে কোথায় দেখতে চান জানতে চাইলে রাজিব আহমেদ বলেন “২০২১ সালে আমরা ই ক্যাব কে যেখানে দেখতে চাই ই ক্যাব তার থেকে ও অনেক বড় হবে এতে কোন সন্দেহ নাই”

তিনি আশা করেন ২০২১ সালে অর্থাৎ আরো ৩ বছর পর মেম্বার ১৪০০ না ২০০০ ছাড়িয়ে যাবে, তিনি বলেন এমন কোন বিজনেস নাই যে ই কমার্স এ আসবে না, বিশেষ করে গারমেন্টস এবং টুরিজম ২০১৮ থেকে  ই কমার্সে আসতে শুরু করবে বলে বিশ্বাস করেন রাজিব আহমেদ।

 

তবে একটা ব্যাপারে কিছুটা চিন্তিত তিনি সেটা হচ্ছে একটা শিল্প যখন বড় হয় তখন দক্ষ জনবলের প্রয়োজন হয় সেটা হয়তো আমাদের পর্যাপ্ত পরিমানে নাই আর সেখানে বিদেশিরা এসে সেই জায়গায় বসতে পারে, তবে তিনি মনে করেন বিদেশিরা আসবেই তাদের সাথে একসাথে কাজ করা আর সেটাকে কিভাবে আমাদের সুবিধায় কাজে লাগানো যায় সেটা চিন্তা করা, তবে মুখে যতটা সহজ করে বলা যায় কাজ করতে হয়তো তত সহজ হবে না তিনি বলেন

“তবে এটা বাস্তবায়ন করা খুব সহজ না যেভাবে বলা যায় কারন বিদেশিরা অনেক টাকা এবং স্কিলড মানুষ নিয়ে আসবে যা আমাদের ও ভাবে নাই, সেজন্য আমাদের অন্তত ৫-৬ বছরের ভিশন নিয়ে আগানো উচিত।”

 

তবে অনেকেই ই কমার্স বিজনেস এ আসতে চাচ্ছে না এটাতে তিনি একমত না, তিনি বলেন ১০ হাজার ফেসবুক পেজ, ১ হজার ওয়েবসাইট আর বেশি দরকার আছে বলে মনে হয় না। আর যারা কাজ করছে তারা আরো ভালো ভাবে ক করে কাজ করতে পারে সেদিকেই লক্ষ্য ই ক্যাব এর। পোস্ট অফিসের সাথে ও একটা চিক্তি হয়ে যাবে, পিয়নদের ট্রেনিং দেয়ার ব্যাপারে কাজ হচ্ছে, ইতিমধ্যে ১০০০ ডেলিভারি ও দেয়া হয়েছে ঢাকার মধ্যে।

আমাজন আলিবাবার মত কোম্পানি কতদিনে তৈরি হবে জানতে চাইলে তিনি বলেন আমাজনের লেগেছে ২১ বছর, আলিবাবার ১৮ বছর আমাদের এতো দিন লাগবে না আগামি ৩-৪ বছরের মধ্যে হয়ে যাবে বলে রাজিব আহমেদ মনে করেন।

 

এখন বাঁধা আছে কিনা জানতে চাইলে সাথে সাথে উত্তর দেন, এখন আর কোন বাঁধা নেই, বলেন

” গত তিন বছরে অনেক বাধা পাড় করেছি এখন সবাই ই কাবের মেম্বার, কারা মেম্বার না সেটার দেখার বিষয়।”

আমাদের কাছে মনে হয়েছে সপ্ন দেখাটাই গুরুত্বপূর্ণ, আর সেটা রাজিব আহমেদ, ই ক্যাব এবং ই ক্যাব এর টিম এর মধ্যে যথেষ্ট পরিমানে আছে। শুভ কামনা থাকবে ই ক্যাবের জন্য।

 

সম্পূর্ণ ইন্টারভিউ পড়তে নিচের লিঙ্ক ই প্রবেশ করেন

এখন আর কোন বাঁধা নেই- রাজিব আহমেদ। একান্ত সাক্ষাৎকার

ইন্টারভিউটি নেয়া হয়েছে ২৭শে নভেম্বর ২০১৮ তে

 

 

 

 

Comments

comments

About The Author


আমি আরিফুল ইসলাম, লেখালিখি করতে ভালো লাগে, জেনেসিস ব্লগ এ লিখি গ্রাফিক ডিজাইন, আউটসোর্সিং ইত্যাদি বিষয়ে। এক বছর ধরে ফেসবুক মার্কেটিং, ভিডিও মার্কেটিং নিয়ে পড়াশুনা করছি, বেশ ভালো ও লাগছে, চেষ্টা থাকবে যা জানবো সেগুলি নিয়ে লিখতে। e-Cab কে অনেক ধন্যবাদ আমাকে এখানে লেখার সুযোগ করে দেয়ার জন্য। আশা করি ভালো কিছু লেখা দিতে পারবো।