4color-apple-bird

ই কমার্স : শিক্ষা ও জ্ঞান ভিত্তিক ব্যবসায়
জাহাঙ্গীর আলম শোভন

‘‘ই কমার্স ভদ্রলোকের ব্যবসায়, জ্ঞানী ও শিক্ষিত লোকের ব্যবসায়। ই কমার্স করতে হলে শিখতে হবে জানতে হবে বুঝতে হবে এবং লেখাপড়া করতে হবে। প্রযুক্তিকে চিনতে হবে।’’ না ভাই এটা আমার কথা নয়, শ্রদ্ধেয় মুস্তাফা জব্বার সাহেবের কথা। হ্যাঁ আসলেও তাই। ই কমার্স শুধু ব্যবসায় করার জন্য নয় ই কমার্সেও একজন ক্রেতা হওয়ার জন্যও লেখাপড়া বা শিক্ষা দরকার। দেখুন না একজন অশিক্ষিত বা অক্ষরজ্ঞানহীন লোক কি অনলাইন থেকে কেনাকাটা করতে পারবে? কি করবে করবে তিনিতো পড়তেই পারবেন না, আর লেখাতো আরো পরের কথা। তাহলে যে বাজারে ক্রেতাকে শিক্ষিত হতে হয় সে বাজারে বিক্রেতার শিক্ষাটা কেমন থাকা চাই, এবার বুঝুন। আসলে এগুলো আপনারা সবাই জানেন।
আমরা বরং আসল কথায় আসি যে কিভাবে আপনারা ই কমার্স সম্পর্কে জানতে পারবেন।
বই পড়া:
হ্যাঁ দুনিয়ার তাবৎ জ্ঞানের উৎস বই। আজ ইন্টারনেটে অনেক জ্ঞানই আছে কিন্তু এগুলোর মূল উৎস ওই বই। বই থেকে আহোরিত জ্ঞানই সর্বত্র ছড়িয়ে পড়ে। হাঁ অন্য যেকোনো প্রয়োজনীয় বিষয়ের জন্য আপনি যেমন বই পড়বেন তেমনি ই কমার্স জানার জন্যও বই পড়তে পারেন। আমরা বলি বাংলা ভাষায় ভালো ই কমার্স বই নেই। আসলে তাই। সব বইতে শুধু ই কমার্স ওয়েবসাইট বানানোর কথাগুলোই বেশী করে বলা আছে। ক্ষতি কি? বই পড়ে না হয় সেটা অল্প কিছু শিখলেন।

তবে অনেক বইয়ের সাথে সিডি পাওয়া যায় সেটাও নিতে ভুলবেন না। বলা বাহুল্য এখানেও ই কমার্স এর শুধু টেকনিক্যাল দিকগুলোই আছে। আপনার যদি টেকনিক্যাল বিষয়ে দূর্বলতা থাকে তবে আপনার সেটা কাজে লাগতেই পারে। না বই পড়ে আপনি ওয়েবসাইট বানাতে পারবেন আমি সেটা বলছিনা। তবে ভালো একটা ধারণাতো পাবেন।
ই কমার্স যেহেতু একটা ব্যবসায়িক সেক্টর অন্যান্য ব্যবসায়ের মতো এখানে ব্যবসায়টাতো আগে জানতে শিখতে বুঝতে হবে।  হ্যাঁ এই ব্যবসায়ের প্রাথমিক জ্ঞানের জন্য আপনাকে বইপড়া দরকার। না গাদা গাদা বই নয়। এই ধরুন নবম দশমশ্রেনীর ব্যবসায় উদ্যোগ, ব্যবসায় পরিচিতি, সাফল্য লাভের জন্য করনীয় টাইপের ২/১টা বই, মার্কেটিং এর বেসিক সম্পর্কে ২/১টা বই, ই কমার্স নিয়ে সিডি সহ অন্তত ১টা বই, দেশের বিভিন্ন ব্যবসায়িক কোনো তথ্যসম্বলিত বই। অবশ্যই যদি পৃথিবীর সেরা সফল ব্যবসায়ীদের লেখা আত্মজীবনী বা তার উপদেশমূলক কিছু বই পড়তে ভুলে যাবেন না।

আর আপনি যে পন্য বা সেবা নিয়ে ব্যভসায় করবেন সে বিষয়ে অন্তত একটা বই। হ্যা ৫/৭টা বইয়ের একটা কোর্স বটে। জীবনের ১০/১৫ বছর ধরে শুধু সার্টিফিকেটের জন্য যদি পড়তে পারেন তাহলে জীবিকার অর্জনের ব্যবসায়ের জন্য একটু পড়বেন না। আপনি হয়তো ইতোমধ্যে জেনেই গেছেন যে, বিশ্বসেরা ধনী বিলগেটস প্রতি সপ্তাহে কমপক্ষে ১টি বই পড়েন। এবং যে বইটি তার জীবন বদলে দিয়েছে। সেটা হলো বর্তমান বিশ্বের দ্বিতীয় সেরা ধনী ওয়ারেন বাফেটের সাফল্য সংক্রান্ত বইটি। বুঝেন এবার, তার বই পড়েই তাকে টেক্কা দিয়েছে।
ইন্টারনেটে খোজ খবর:
হ্যাঁ আজকাল সব ব্যবসায়ের জন্য গুরুত্বপূর্ণ হয়ে পড়েছে। ইন্টারনেট ঘেটে ব্যবসায়ের সর্বশেষ খোজ খবর জানা। তাহলে একজন ই কমার্স উদ্যোক্তা হিসেবে আপনি কি করবেন।
০১. সফল ই কমার্স ওয়েব সাইটগুলো দেখুন। তাদের ওয়েবডিজাইন, বিজনেস পলিসি সহ সব জানতে চেষ্টা করুন।
০২. ব্যবসায়ের সাফল্যেও জন্য কিছু দেশী বিদেশী ব্যক্তির লেখা আছে সেগুলো পড়ুন।
০৩. ইউটিউবে ভিডিও দেখুন। ই কমার্স ওয়েব সাইট, পন্য প্যাকিং, ছবি তোলা, ব্যবসায়িক পলিসি, মার্কেটিং সব বিষয়ে ভিডিও পাবেন আশা করি।
০৪. দেশের ব্যবসায়িক পরিস্থতি পরিবেশ, আইন নিয়ম কানুন প্রসিডিওর এগুলো ভালোভাবে জেনে নিতে ভুলবেন না কিন্তু।
০৫. আপনি যে পন্য বা সেবা নিয়ে কাজ করবেন এ বিষয়ে আপনার খুব ভালো ধারনা থাকতে হবে। ইন্টারনেট এবং বিভিন্ন সোর্স থেকে তা অর্জন করুন।
০৬. প্রযুক্তি সম্পর্কে আপনাকে অনেক জানতে হবে তা নয়, তবে একটা লেবেলের ধারণাতো না থাকেলই নয়। তাই এই বিষয়ে নিজেকে আপডেট রাখুন।
০৭. ব্যবসায়ের পরিকল্পনা, পন্য সংগ্রহ, ডেলিভারী, প্যাকিং, লেনদেন, ব্যাংকিং, মার্কেটিং, কমিউনেিকশনাস মোট কথা ব্যবসায়ের সাথে সম্পর্কিত প্রতিটি কাজ সম্পর্কে আপনার কিছু সাধারণ ধারণা থাকা দরকার। সেটা নেট ঘেটে অর্জণ করার চেষটা করুন।

ই ক্যাব ব্লগ ও অন্যান্য আর্টিকেল পড়া
বাংলাদেশের প্রেক্ষাপটে ই কমার্স এসোসিয়েশন অব বাংলাদেশ এর ব্লগটি অত্যন্ত সমৃদ্ধ এবং ব্যবসায়ের সব ধরনের তথ্য ও জ্ঞান এতে রয়েছে। ই কমার্স সাইট তৈরী, ফটোগ্রাফী, মার্কেটিং, ডেলিভারী, ফেইসবুক ও অনলাইন মার্কেটিং থেকে শুরু কওে সব বিষয়ে লেখা ও তথ্য রয়েছে। এতে। আপনি এই ব্লগ এবং অন্যান্য ব্লগ থেকে ই কমার্স সম্পর্কিত লেখাগুলো পড়ে নিতে পারেন।
ই কমার্স সর্ম্পকিত লেখাগুলো পড়ার সময় যা করবেন
প্রথমত: আপনি বিষয় ঠিক করুন, আপনি কোন কোন বিষয়ে পড়বেন?
বিষয়গুলো হলো:
০১. বাংলাদেশে ই কমার্স সমস্যা ও সম্ভাবনা
০২. ব্যবসায়ের উদ্যোগ ও পরিকল্পনা
০৩. ব্যবসায়ের নামকরণ ডোমেইন ও হোস্টিং
০৪. ইকমার্স ওয়েবসাইট তৈরী করন, ব্যবস্থাপনা, সিকিউরিটি ও আপডেটকরন
০৫. ওয়েব ডিজাইন, গ্রাফিক্স ডিজাইন, অন্যান্য ডিজাইন
০৬. ট্রেডলাইসেন্স, টিন , ভ্যাট, ট্রেডমার্ক, পেটেন্ট, ব্যাংক একাউন্ট ও ব্যাংক লোন
০৭. ব্রান্ডিং, প্রমোশন, মার্কেটিং বিজ্ঞাপন ও সেলিং
০৮. প্রথাগত বিপনন, অনলাইন মার্কেটিং ও ফেইসবুক মার্কেটিং
০৯. ডেলিভারী সিস্টেম এর সমস্যা ও সর্তকতা
১০. পেমেন্ট অপশনসমূহ
১১. পন্যসংগ্রহ. সংরক্ষণ ও পরিবহন
১২. কাস্টমার ডিলিং, কাস্টমার কেয়ার, ও কাস্টমার ম্যানার্স
১৩. রিলেটেড পাটিংসমূহ ও তাদেও সাথে যোগাযোগ পদ্ধতি
১৪. অফিস ম্যানেজমেন্ট, কর্মী ব্যবস্থাপনার ও উৎপদনশীলতা
১৫. ব্লগিং, প্রেস রিলিজ, প্রেস রিভিও ও কেম্পাানী প্রোফাইল এবং প্রজেক্ট প্রোফাইল তৈরী

অন্যান্য:
উপরের সব বিষয় আপনি পড়ে জানতে পারবেন ন। আবার সব বিষয় পড়ে জানলেও আপনার জানা পূর্নাঙ্গ বা শেষ হবেনা। এজন্য প্রয়োজন হবে অভিজ্ঞদের সাথে আলাপ আলোচনা পরামর্শ ও কথা বলা। এজন্য রাত ১০-১২টা ই ক্যাব আড্ডার চেয়ে ভালো জায়গা আপনি পাবেন না। প্রতিদিন বিভিন্ন বিষয়ে বিশেষজ্ঞরা এখানে বিভিন্ন বিষয়ে বুদ্ধি পরামর্শ ও প্রশ্নের উত্তর দিয়ে থাকেন।
আরেকটা খুব ভালো পদ্ধতি হলো আপনি যে বিষয়ে ব্যবসায় করছেন। সে পন্য বা সেবা সম্পর্কে জানতে সে পিল্ডে ভিজিট করা। যেমন আপনি যদি টাঙাগাইলের শাড়ি বিক্রি করতে চার তাহলে আপনার উচিত গবে। ট্ঙাাইল যাওয়া এবং এর পুরো পক্রিয়া টা নিজের চোখে দেখা এবং এর ভালোমন্দ জেনে রাখা।

তাহলে শিখতে থাকুন আর পড়তে থাকুন। আদি ও আসল ই কমার্স শিক্ষা।

2,303 total views, 3 views today

Comments

comments