অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি ও এর আদ্যপান্ত। (পার্ট-১)

1732

বর্তমানে অনলাইনে কাজের ক্ষেত্রে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং একটি ট্রেন্ড হয়ে দাঁড়িয়েছে। এই আর্টিকেলে আমরা অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং নিয়ে একটি বিষদ ভাবে জানার চেষ্টা করব।

আমরা যেসব বিষয় নিয়ে জানবো তা নিচে দেয়া হল।

  •  অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি ?
  •  অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে করা যায় ?
  •  বর্তমান বিশ্বে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কেন জনপ্রিয় ?
  •  অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কেন করবেন ?
  •  অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর ভবিষ্যৎ।  
  •  বিশ্বে জনপ্রিয় অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং এর সাইট গুলো।

আসুন এবার শুরু করা যাক।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি ?

affiliate-marketing-tips7

প্রযুক্তিনির্ভর এই বিশ্বে  অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং একটি সুপরিচিত নাম । বর্তমান বিশ্বে প্রায়   সব ধরনের কেনাকাটা অনলাইন কেন্দ্রিক হয়ে গিয়েছে । আপনি যে কোন পন্য বা সেবা ঘরে বসেই আপনার ল্যাপটপ বা মোবাইল ফোন দিয়ে নিমেষে কিনে নিতে পারেন । এজন্য যেমন বেড়েছে অনলাইন ক্রেতার সংখ্যা তার পাশাপাশি বেড়েছে অনলাইন শপ / সার্ভিস সম্পর্কিত ওয়েবসাইট । বিভিন্ন শপ / সার্ভিস সম্পর্কিত ওয়েবসাইট বাড়ার কারনে তাদের নিজের মধ্যে  বেড়ে গিয়েছে প্রতিযোগিতা।তাদের পণ্য / সেবা বিক্রি করার জন্য তারা বেছে নিয়েছে বিভিন্ন ধরনের মাধ্যম । আর এই বিভিন্ন ধরনের মাধ্যমের একটি মাধ্যম হচ্ছে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং । একটু বিষদ ভাবে বর্ণনা করতে গেলে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং হচ্ছে আপনি কোন অনলাইন ভিক্তিক কোম্পানির যারা কিনা অ্যাফিলিয়েট সুবিধা দিয়ে থাকে,তাদের সাথে চুক্তিভিক্তিক্ হয়ে তাদের প্রদত্ত্য অ্যাফিলিয়েট কোড ব্যবহার করে তাদের পণ্য / সেবা নিজের কোন ব্লগ সাইট / সোস্যাল মিডিয়ার মাধ্যমে বিক্রি / প্রচার / ভিজিটর দিয়ে নির্দিষ্ট পরিমান কমিশন/টাকা পাওয়াকে বুঝায় । উদাহরন সরূপ- এবিসি.কম একটি পণ্য / সেবা ভিক্তিক ওয়েব সাইট তারা অ্যাফিলিয়েট সুবিধা দিয়ে থাকে ধরুন আপনি একজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার এখন আপনি তাদের শর্তবলী মেনে তাদের সাথে অ্যাফিলিয়েট চুক্তি করেছেন এবং আপনাকে তাদের একটি অ্যাফিলিয়েট কোড দিয়েছে যেটা আপনার ব্লগ সাইট / সোস্যাল মিডিয়ায় ব্যবহার করে আপনি তাদের পণ্য বিক্রি / প্রচার করবেন ,ধরুন তারা গ্যাজেট পন্য বিক্রি করে এখন আপনি আপনার নিজের কোন ব্লগ / সোস্যাল মিডিয়া ব্যাবহার করে তাদের নির্দিষ্ট একটি পণ্য অথবা তাদের নির্দিষ্ট ক্যাটাগরির পণ্য প্রচার করলেন এতে আপনার ব্লগ সাইটে ভিজিটর আসলো ,  তারা আপনার ব্লগ পরে ভাল লাগলো এবং তারা ঐ পন্যের অ্যাফিলিয়েট লিংকে ক্লিক করলো তার সাথে সাথে তাকে নিয়ে যাবে  ঐ ওয়েবসাইটের তার পছন্দের পণ্যের ল্যান্ডিং পেজে এখন যদি সে এই পণ্যটি কিনে তাহলে আপনি পেয়ে যাবেন  নির্দিষ্ট পরিমান কমিশন । এখন প্রশ্ন আসতে পারে আপনি কখন, কি পরিমান ও কোন পণ্য বিক্রয় হওয়ার জন্য কমিশন পেয়েছেন! তাই না? আপনি যখনি কোন কোম্পানির সাথে অ্যাফিলিয়েট একাউন্ট খুলবেন তার সাথে সাথেই আপনাকে তারা একটি  অ্যাফিলিয়েট একাউন্ট দিয়ে দিবে যেখান থেকে আপনি খুব সহজেই ঐ সব কিছুর তথ্য পাবেন।

অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কিভাবে করা যায় ?

বিভিন্নভাবে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং করা যায় কিন্তু এটা নির্ভর করবে আপনি কোন ই-কমার্স কোম্পানি / মার্কেট প্লেসের সাথে করবেন। একেক ই -কমার্স কোম্পানি / মার্কেট প্লেস একেক ভাবে তাদের অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম সাজিয়ে থাকে । কিছু ই-কমার্স কোম্পানি / মার্কেট প্লেস সরাসরি তাদের একটি নির্দিষ্ট পণ্য  প্রচার / বিক্রি করা  জন্য , কোনটা আবার একটি / অনেকগুলো একই ক্যাটাগরির পণ্য রিভিও বেইজড ওয়েব সাইটের মাধ্যমে প্রচার / বিক্রির জন্য, কিছু ই-কমার্স কোম্পানি / মার্কেট প্লেস আবার তাদের পণ্য / সেবা / ওয়েব সাইট  শুধু মাত্র প্রচার করার জন্য  অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম সাজিয়ে থাকে।

আপনি নিচে বর্ণিত প্লাটফর্মের মাধ্যমে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং শুরু করতে পারেন-

  • নিজস্ব রিভিও বেইজড ওয়েবসাইট (ওয়ার্ডপ্রেস)
  • সোস্যাল মিডিয়া (ফেসবুক,ইউটিউব,টুইটার ইটিসি)

 আপনি অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিংয়ে সফল হবেন কিনা তা নির্ভর করে  আপনার মূলধন ,নিশ নির্বাচন,টার্গেট মার্কেট এবং বাজারজাতকরণের কৌশলের উপর।

affiliate-marketing2এখন জেনে নেয়া যাক কিভাবে / কিসের উপর ভিক্তি করে আপনি কমিশন পাবেন একেক অ্যাফিলিয়েট কোম্পানি আপনাকে  একেকভাবে কমিশন দিবে ।  নিচে কিছু প্রচলিত অ্যাফিলিয়েট প্রোগ্রাম এর কমিশন কিভাবে দেয় তা বর্ণনা করা হল।

১।পণ্য /সেবা বিক্রির মাধ্যমে আয় ( যেটাকে ইংরেজিতে বলে Pay per Sale/Pps): এই প্রোগ্রামে অ্যাফিলিয়েট সম্বলিত ই-কমার্স কোম্পানি / মার্কেট প্লেস  শুধুমাত্র  আপনার দ্বারা তাদের কোন পণ্য / সেবা বিক্রী হলেই আপনাকে নির্দিষ্ট  পরিমান কমিশন প্রদান করবে।

২।ভিজিটর/ট্রাফিক পাঠানোর মাধ্যমে আয় (যেটাকে ইংরেজিতে বলে Pay per click/Ppc ): এই প্রোগ্রামে অ্যাফিলিয়েট সম্বলিত ই-কমার্স কোম্পানি / মার্কেট প্লেস  অ্যাফিলিয়েট মার্কেটারকে পণ্য/ সেবা বিক্রী না হলেও তার মাধ্যমে যে ট্রাফিক / ভিজিটর গিয়েছে তার জন্য নির্দিষ্ট পরিমান কমিশন প্রদান করবে।

৩। লীড জেনারশনের মাধ্যমে আয় (যেটাকে ইংরেজিতে বলে Pay per lead/Ppl): এই প্রোগ্রামে একজন অ্যাফিলিয়েট মার্কেটার তখনি আয় করতে পারবে যখন তার ব্লগ সাইটের মাধ্যমে একজন ভিজিটর অ্যাফিলিয়েট সম্বলিত ই-কমার্স কোম্পানি / মার্কেট প্লেসে গিয়ে তাদের কোন ফাইল / সফটওয়্যার ডাউনলোড করবে,কোন নিউজ লেটার / কোন অফারের সাইন আপ ফর্ম পুরন করবে।

পরবর্তী আর্টিকেল সমন্ধে জানতে এখানে অ্যাফিলিয়েট মার্কেটিং কি ও এর আদ্যপান্ত। (পার্ট-2) ক্লিক করুন।

 

Comments

comments

1 Comment

Leave a Comment

Your email address will not be published. Required fields are marked *